বৃহস্পতিবার, ১৮ জানুয়ারী ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ মাঘ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
ডিএনসিসি নির্বাচন বন্ধ: যা বলল ইসি  » «   আইভীর পেছনে পিস্তল হাতে থাকা সুমন যুবদলের : শামীম ওসমান  » «   বিজয় মেলায় জুয়া, ইউএনও’কে ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ  » «   ‘সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে’  » «   শরীরের কোথায় তিল থাকলে আয় হবে প্রচুর!  » «   সিলেটে চলন্ত ট্রেন থেকে নামার চেষ্টা,পা পিছলে ট্রেনে কাটা পড়ে মৃত্যু  » «   নরসিংদীতে ১১ দফা দাবিতে ইউএমসি পাটকল শ্রমিকদের বিক্ষোভ  » «   ১৩০০ রোহিঙ্গা বিদ্রোহীর নাম বাংলাদেশকে দিয়েছে মিয়ানমার  » «   ‘স্যার আপনার প্রবলেম এখনই সল্‌ভ করে দিচ্ছি’  » «   মৌসুমি হামিদের গোপন মেসেজ ফাঁস করলেন ফারিয়া!  » «   প্রণব মুখার্জিকে জার্সি উপহার দিলেন সাকিব  » «   বৌদ্ধদের ওপর গুলি, বহু হতাহত!  » «   ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের ৫ নেতাকর্মী বহিষ্কার  » «   ১০ বছরে ২৯৫ কোটি ২২ লাখ ১৩ হাজার ৬৪ বই বিতরণ  » «   দুর্বল জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে হারল হাথুরুসিংহের শ্রীলঙ্কা  » «  

দ্বিতীয় সাবমেরিন ক্যাবল স্টেশনের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী



অবশেষে উদ্বোধন হলো বহুল প্রতীক্ষিত দ্বিতীয় সাবমেরিন ক্যাবলের ল্যান্ডিং স্টেশনের। কুয়াকাটায় অবস্থিত এই ল্যান্ডিং স্টেশন চালু হওয়ায় বাংলাদেশ নতুন করে ১ হাজার ৫০০ গিগাবাইটের (জিবি) বেশি ব্যান্ডউইডথ পাবে। আর ট্রান্সমিশন চার্জ কম পড়ায় দক্ষিণাঞ্চলের বরিশাল, পটুয়াখালী, খুলনা ও ফরিদপুরের মানুষ কম খরচে ইন্টারনেট সেবা পাবেন।

১০ সেপ্টেম্বর রোববার সকাল ১০টায় গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে দ্বিতীয় সাবমেরিন ক্যাবলের (সি-মি-উই-৫) উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী বলেন, দুই বার বিনা পয়সায় সাবমেরিন ক্যাবলের সঙ্গে সংযোগের সুযোগ পেলেও অজ্ঞতার কারণে তা নাকচ করে দেশকে পিছিয়ে রেখেছে বিএনপি। এখন দেশ ডিজিটাল বাংলাদেশে পরিণত হয়েছে।

বর্তমানে বাংলাদেশে ইন্টারনেট ব্যবহারের পরিমাণ ৪০০ জিবিপিএসের বেশি। এর মধ্যে ১২০ জিবিপিএস রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ সাবমেরিন ক্যাবল কোম্পানি লিমিটেডের (বিএসসিসিএল) মাধ্যমে আসে। বাকি ২৮০ জিবিপিএস আইটিসির ব্যান্ডউইডথ ভারত থেকে আমদানি করা হয়।

উল্লেখ্য, পটুয়াখালীর কুয়াকাটায় মাইটভাঙ্গা গ্রামে ২০১৩ সালের শেষের দিকে ১০ একর জমির ওপর ৬৬০ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত হয় বাংলাদেশের দ্বিতীয় সাবমেরিন ক্যাবল ল্যান্ডিং স্টেশনটি। প্রকল্পটির কাজ শেষ করার পর ২০১৭ সালের মার্চ মাস থেকে ইন্টারনেট ব্যবহার পরীক্ষামূলক শুরু হয়।

এদিকে এক বছর বিলম্বের পর দ্বিতীয় এই সাবমেরিন ক্যাবলের উদ্বোধন হলো। এর আগে চলতি বছরের ৩১ জুলাই একবার এই ক্যাবলের উদ্বোধনের তারিখ দেওয়া হয়েছিল। তার আগে মার্চের দ্বিতীয় সপ্তাহে ক্যাবলটি উদ্বোধনের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম।

সূত্র জানিয়েছে, রাষ্ট্রায়ত্ব কোম্পানি বিটিসিএল সঞ্চালন লাইনের কাজ ঠিকমতো শেষ করতে না পারায় এতদিনের এই বিলম্ব।

প্রসঙ্গত,সি-মি-উই-৫ হলো দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া- মিডল ইস্ট-ওয়েস্টার্ন ইউরোপ-৫-এর সংক্ষিপ্ত রূপ। এতে রয়েছে মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়া, থাইল্যান্ড, মিয়ানমার, বাংলাদেশ, ভারত, শ্রীলঙ্কা, পাকিস্তান, ইউএই, ওমান, জিবুতি, ইয়েমেন, সৌদি আরব, মিসর, ইতালি ও ফ্রান্স।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: