মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ২ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
বিতর্কিত আইনে কাশ্মিরের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী গ্রেপ্তার  » «   অপমানজনক বিতাড়ণের আগে সিনেট ও ডাকসু ছাড়ুন: শোভন-রাব্বানীকে ভিপি নুর  » «   পেঁয়াজ নেই, তবুও বিক্রির ঘোষণা টিসিবির!  » «   শর্ত ভেঙে ‘অযোগ্য’ প্রতিষ্ঠানকে কাজ দিচ্ছে গণপূর্ত  » «   মেট্রোরেলের জন্য আলাদা পুলিশ ইউনিট গঠনের নির্দেশ  » «   রংপুর উপনির্বাচনে সরে দাঁড়ালেন আওয়ামী লীগ প্রার্থী  » «   সিলেটে কমতে শুরু করেছে ডেঙ্গুর প্রকোপ  » «   শোভন-রাব্বানীর পর এবার আলোচনায় যুবলীগ  » «   মধ্যরাতে ‘এক কাপড়ে’ সৌদি থেকে ফিরলেন ১৭৫ বাংলাদেশি  » «   ভারতে ভয়াবহ নৌকাডুবি: নিহত ১২, নিখোঁজ ৩০  » «   এবার রিফাত হত্যার নতুন ভিডিও প্রকাশ্যে  » «   সিলেটে গ্রেফতার সেই ডিআইজির পক্ষে দাঁড়ালেন সাবেক খাদ্যমন্ত্রী  » «   পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মোমেনের সঙ্গে সিলেট বিভাগের পৌর মেয়রদের বৈঠক  » «   কমিশন কেলেঙ্কারিতে ফেঁসে যাচ্ছেন জাবি উপাচার্য  » «   সৌদির তেলক্ষেত্রে হামলার পর থেকেই তেলের দাম ১০ শতাংশ বৃদ্ধি  » «  

দেশসেরা প্রধান শিক্ষক হবিগঞ্জের শাহনাজ কবীর



নিউজ ডেস্ক:: দেশসেরা প্রধান শিক্ষক নির্বাচিত হয়েছেন হবিগঞ্জ জেলার বানিয়াচংয়ের শাহনাজ কবীর। বৃহস্পতিবার (২০ জুন) মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তর তাকে দেশের সেরা প্রধান শিক্ষক হিসেবে নির্বাচিত করে। শাহনাজ বর্তমানে কিশোরগঞ্জ শহরের এসভি সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হিসেবে কর্মরত। চলতি মাসের ২৬ তারিখ দেশসেরা এই প্রধান শিক্ষককে পুরস্কৃত করা হবে।

শাহনাজ কবীরের গ্রামের বাড়ি হবিগঞ্জ জেলার বানিয়াচং উপজেলার ১৫নং পৈলারকান্দি ইউনিয়নের কুমড়ি দুর্গাপুর গ্রামে। তাঁর বাবা অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তা শামসুল কবীর। স্বামী ড. মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম উর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা হিসেবে মৃত্তিকা সম্পদ উন্নয়ন ইন্সটিটিউট যশোরে কর্মরত আছেন।

তিনি দুই কন্যা সন্তানের জননী। বড় মেয়ে স্বর্ণা সপ্তম শ্রেণি ও ছোট মেয়ে রাফা তৃতীয় শ্রেণিতে পড়ালেখা করে। শাহনাজ কবীর ঢাকার লালমাটিয়া মহিলা কলেজ থেকে ১৯৯০ সালে বিএ এবং আনন্দমোহন সরকারি কলেজ থেকে এমএ পাস করেন ১৯৯২ সালে। এরপর ১৯৯৩-৯৪ সালে টিচার্স ট্রেনিং কলেজ (মহিলা) ময়মনসিংহ থেকে বিএ প্রশিক্ষণে প্রথম শ্রেণি লাভ করেন। ১৯৯৪-৯৫ শিক্ষাবর্ষে টিচার্স ট্রেনিং কলেজ, ময়মনসিংহ থেকে এমএড প্রশিক্ষণেও প্রথম শ্রেণিতে উত্তীর্ণ হন।

জানা যায়, শাহনাজ কবীর ২০০৬ সালের ৬ মার্চ কিশোরগঞ্জ শহরের এসভি সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে সহকারী প্রধান শিক্ষক হিসেবে যোগদান করেন। তারপর তিনি বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন। পরে পদোন্নতি পেয়ে ২০১০ সালে তিনি অত্র বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হন।

প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব পাওয়ার পর ২০১২ ও ২০১৩ সালে টানা দুইবার এসএসসি পরীক্ষায় ফলাফলে এসভি সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় জেলার সেরা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মর্যাদা লাভ করে। এরপর ২০১৫ সাল থেকে শতভাগ পাস ও সর্বাধিক জিপিএ-৫ পেয়ে কিশোরগঞ্জ জেলায় ধারাবাহিকভাবে প্রথম স্থান দখল করে আছে এই বিদ্যালয়টি।

এবারের এসএসসি পরীক্ষার ফলাফলেও এসভি সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের মোট ২৩৯ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ১৩৬ জন জিপিএ-৫ পেয়ে শতভাগ পরীক্ষার্থী পাস করে।

এর আগে জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ-২০১৯ এ শাহনাজকে প্রথমে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলা পর্যায়ে ও পরে কিশোরগঞ্জ জেলা পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ প্রধান শিক্ষক হিসেবে নির্বাচিত হন। পরবর্তীতে ময়মনসিংহ অঞ্চলের সেরা প্রধান শিক্ষক নির্বাচিত হয়ে তিনি জাতীয় পর্যায়ের বাছাইয়ে নাম লেখান। এই বাছাইয়ে দেশের সেরা প্রধান শিক্ষক হিসেবে শাহনাজ কবীরকে নির্বাচিত করে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক অধিদপ্তর।

শাহনাজ কবীর তার এই সাফল্যের পিছনে বিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ শিক্ষার্থীদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন। পাশাপাশি সবার কাছে দোয়া প্রার্থনা চেয়েছেন।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: