বুধবার, ১৫ অগাস্ট ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৩১ শ্রাবণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
‘সৎ বাবার ধর্ষণে’ ১২ বছরের মেয়ে অন্তঃসত্ত্বা!  » «   ‘যুক্তরাষ্ট্রের সব ইলেকট্রনিক পণ্য বর্জন করবে তুরস্ক’  » «   রাইফার পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দিতে হাইকোর্টের রুল  » «   ভারতে হামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে আল-কায়েদাঃ জাতিসংঘ  » «   সোশ্যাল মিডিয়ার আপত্তিকর কন্টেন্ট বিশ্লেষণে পৃথক ইউনিট  » «   যুক্তরাষ্ট্র থেকে আরো বেশি তুলা আমদানি করতে চায় বাংলাদেশ  » «   গজনিতে তালেবান সংঘর্ষ, নিহত বেড়ে ৩০০  » «   আবারও উত্তপ্ত ভারত-চীন, লাদাখ সীমান্তে মুখোমুখি সেনারা  » «   ঈদুল আজহার প্রধান জামাত জাতীয় ঈদগাহে সকাল ৮টায়  » «   ৩ হাজার ৮৮ কোটি ব্যয়ে ৯ প্রকল্পের অনুমোদন  » «   আরও এক মামলায় খালেদার জামিন  » «   ১৫ আগস্টে নিরাপত্তা নিয়ে কোনো শঙ্কা নেই  » «   মোদির জন্য কনে দেখতে চেয়েছিলেন ট্রাম্প!  » «   রাজু হত্যাকান্ড: রকিব,দেলোয়ারসহ ২৩ জনকে আসামী করে মামলা  » «   ডিভোর্সের নোটিস পেয়ে শ্বশুরবাড়িতে পেট্রোল বোমা নিক্ষেপ স্বামীর  » «  

দু’সপ্তাহের মধ্যে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরু



নিউজ ডেস্ক::বাংলাদেশ থেকে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের ফেরত নেয়ার কার্যক্রম আগামী দু’সপ্তাহের মধ্যে শুরু হতে পারে বলে জানিয়েছেন মিয়ানমারের সমাজকল্যাণ, ত্রাণ ও পুনর্বাসনবিষয়ক মন্ত্রী ইউ উইন মিয়াত আই।

মন্ত্রীর উদ্ধৃতি দিয়ে মিয়ানমার টাইমস জানিয়েছে, বাংলাদেশ সরকার সম্প্রতি ৮ হাজার ৩২ জন রোহিঙ্গার যে তালিকা মিয়ানমারকে দিয়েছে, তা যাচাই-বাছাই করতে দু’সপ্তাহের মতো সময় লাগবে। এরপরই শুরু হতে পারে প্রত্যাবর্তন।

ইউ উইন মিয়াত আই আরও বলেন, যাচাই-বাছাই শেষ হলে স্থল ও নৌরুটে প্রতিদিন ৩০০ শরণার্থীকে নিতে প্রস্তুত মিয়ানমার। যাচাই-বাছাই করা তালিকা আমরা বাংলাদেশ কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করব এবং বাংলাদেশ সবুজ সংকেত দিলেই প্রত্যাবর্তন শুরু করা হবে।

এ বিষয়ে মিয়ানমারের প্রেসিডেন্ট অফিসের মুখপাত্র ইউ জ হতাই বলেন, অভিবাসন-বিষয়ক কর্মকর্তারা এখন ৮ হাজারের বেশি শরণার্থী প্রত্যাবর্তনের বিষয়ে যাচাই-বাছাই করছেন। যেসব শরণার্থীর সঙ্গে ডকুমেন্ট আছে, তাদের গ্রহণ করবে মিয়ানমার। যতটা দ্রুত সম্ভব এ বিষয়ে কাজ করছি আমরা।

গত বছরের আগস্ট মাস থেকে মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর নির্যাতনের শিকার হয়ে রোহিঙ্গারা বাংলাদেশে আসতে শুরু করে। বান্দরবান ও কক্সবাজারের বিভিন্ন এলাকা দিয়ে রোহিঙ্গারা বাংলাদেশে প্রবেশ করে। সরকারের হিসাব অনুযায়ী আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গার সংখ্যা ১০ লাখেরও বেশি। কক্সবাজারের উখিয়া ও বালুখালীতে দুইটি আশ্রয়কেন্দ্রে বাস করছে এসব রোহিঙ্গা। পার্সটুডে

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: