বুধবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ২ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
খাশোগি হত্যা বনাম সৌদি যুবরাজের কালো অধ্যায়  » «   অপারেশন ‘গর্ডিয়ান নট’ সমাপ্ত, দুই জঙ্গির মরদেহ উদ্ধার  » «   ২০ দলীয় জোট থেকে বেরিয়ে গেল ন্যাপ ও এনডিপি  » «   মতবিরোধ থাকলেও সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন পরিচালনা সম্ভব: সিইসি  » «   সিলেটে জনসভার মধ্যেদিয়ে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের আনুষ্ঠানিক যাত্রা  » «   সৌদির প্রশিক্ষণ বিমান বিধ্বস্ত, সব ক্রু নিহত  » «   ডিজিটাল আইনের ৯টি ধারা সংশোধন চেয়ে আইনি নোটিশ  » «   ট্রাম্পের বিরুদ্ধে স্টর্মির মানহানি মামলা খারিজ  » «   জঙ্গি আস্তানায় অভিযান শুরু,দফায় দফায় আসছে গুলির শব্দ  » «   সাত বছরেও চালু হয়নি হাসপাতালের কার্যক্রম  » «   হযরত মুহাম্মাদ (সা:) কে নিয়ে যা বললেন মমতা ব্যানার্জী  » «   নির্বাচন কমিশন তো জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ নয় : কাদের  » «   জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলার রায় ২৯ অক্টোবর  » «   মির্জাপুরে ট্রাক উল্টে একই পরিবারের ৩ জন নিহত  » «   আস্তানায় বেশ কয়েকজন জঙ্গি ও গোলাবারুদ রয়েছে: সিটিটিসি প্রধান  » «  

দুদকের ডাকে সময় চেয়েছেন ডিআইজি মিজান ও তার স্ত্রী



নিউজ ডেস্ক:: দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) ডাকে অসুস্থতার কারণ দেখিয়ে সময় চেয়েছেন পুলিশের উপ মহাপরিদর্শক (ডিআইজি) মিজানুর রহমান ও তার স্ত্রী সোহেলিয়া আনার রত্না। রোববার (৩০ সেপ্টেম্বর) দুদকের জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রণব কুমার ভট্টাচার্য এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তবে তারা কতদিন সময় চেয়েছেন তা জানাতে পারেননি প্রণব।

অনিয়ম ও দুর্নীতির মাধ্যমে অঢেল সম্পদ অর্জনের অভিযোগ অনুসন্ধানের অংশ হিসেবে ডিআইজি মিজানুর রহমান ও তার স্ত্রী সোহেলিয়া আনার রত্নাকে তলব করে দুদক। রোববার ( ৩০ সেপ্টেম্বর) তাদের দুদকের প্রধান কার্যালয়ে হাজির থাকতে বলা হয়েছিল। গত ২০ সেপ্টেম্বর দুদকের উপপরিচালক ফরিদ আহমেদ পাটোয়ারী ডিআইজি মিজান ও তার স্ত্রীকে তলব করে নোটিশ পাঠান। মিজানের উত্তরার ১৩ নম্বর সেক্টরের ২৯ নম্বর বাড়ির ঠিকানায় তলবি নোটিশ পাঠানো হয়।

জানা গেছে, ডিআইজি মিজানের প্রায় কোটি টাকারও বেশি সম্পদের খোঁজ পেয়েছে দুদক। প্রাথমিক অনুসন্ধানে ডিআইজি মিজানুর রহমানের নামে ৪৬ লাখ ৩২ হাজার ১৯১ টাকার স্থাবর অস্থাবর সম্পদ পাওয়া গেছে। আর মিজানের স্ত্রীর নামে পাওয়া গেছে ৭২ লাখ ৯০ হাজার ৯৫২ টাকার। যে সম্পদগুলো প্রকৃত আয় ও হিসাবের সঙ্গে অসংগতিপূর্ণ।

এছাড়াও মিজানের ছোট ভাই মাহবুবুর রহমান স্বপন ও ভাগনে পুলিশের এসআই মাহামুদুল হাসানের নামেও স্থাবর ও অস্থাবর প্রচুর সম্পদের খোঁজ পাওয়া গেছে। মিজানই এসব সম্পদের প্রকৃত মালিক বলে ধারণা দুদকের।

এর আগে, গত ৩ মে অবৈধ সম্পদসহ বিভিন্ন দুর্নীতির অভিযোগে প্রথম দফায় প্রায় সাত ঘণ্টা ডিআইজি মিজানকে জিজ্ঞাসাবাদ করে দুদক। তবে তার স্ত্রীকে আগামী ৩০ সেপ্টেম্বরই প্রথমবারের মতো জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

মিজানের নামে বেনামে বিপুল অবৈধ সম্পদ রয়েছে এমন অভিযোগে চলতি বছরের ১০ জানুয়ারি দুদকের উপপরিচালক ফরিদ আহমেদ পাটোয়ারীকে অনুসন্ধান কর্মকর্তা হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়।এই পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে এক সংবাদ পাঠিকাকে হুমকি দেয়ারও অভিযোগ রয়েছে।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: