রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ কার্তিক ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
পাল্টাপাল্টি হামলায় ভারতের ৯, পাকিস্তানে ৭ জন নিহত  » «   মহানবী (স.) নিয়ে কটূক্তি: পুলিশ-জনতা সংঘর্ষে নিহত ৩  » «   ঢাবির ক ও চ ইউনিটের ফল প্রকাশ  » «   সিলেটে দুই ওলির মাজার জিয়ারত করলেন এরশাদপুত্র  » «   যে কারণে যুবলীগ বাসনা জবি ভিসির  » «   পাক সেনার গুলিতে ভারতীয় ২ সেনাসহ নিহত ৩  » «   ব্রিটিশ পার্লামেন্টে আবার আটকে গেল ব্রেক্সিট চুক্তি  » «   বিকেলে যুবলীগের সঙ্গে বসছেন শেখ হাসিনা  » «   সীমান্ত থেকে বাংলাদেশিকে ধরে নিয়ে গেছে বিএসএফ  » «   কাউন্সিলর রাজীব গ্রেপ্তার  » «   যুবলীগ সভাপতির দায়িত্ব পেলে ভিসি পদ ছাড়তে রাজি ড. মীজান  » «   সোমবার শহীদ মিনারে নেওয়া হবে চিত্রশিল্পী কালিদাসের মরদেহ  » «   উত্তাল লেবানন, বাংলাদেশিদের সতর্কভাবে চলাফেরার পরামর্শ  » «   সম্রাটের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে জাপান যাচ্ছেন রাষ্ট্রপতি  » «   যুবলীগের সম্মেলন: চেয়ারম্যান পদে যাদের নাম আলোচনায়  » «  

তাহরির স্কয়ারসহ মিসরজুড়ে একনায়ক সিসির বিরুদ্ধে বিক্ষোভ



আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: মিসরের একনায়ক প্রেসিডেন্ট আবদেল ফাত্তাহ আল-সিসিকে অপসারণের দাবিতে দেশটির রাজধানী কায়রোসহ অন্যান্য বড় শহরে ব্যাপক বিক্ষোভ হয়েছে। বার্তা সংস্থা এএফপির সাংবাদিকদের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নিরাপত্তা বাহিনী দ্রুতই ওই বিক্ষোভ ছত্রভঙ্গ করে দিয়েছে। তবে এই সামরিক শাসক ক্ষমতা দখলের পর এটিই সবচেয়ে বড় বিক্ষোভ।

মিডল ইস্ট আইয়ের খবর বলছে, সিসির দুঃশাসনের অবসানের দাবিতে শুক্রবার রাত ও শনিবার সকালে এই বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এএফপি জানায়, তাহরির স্কয়ার চত্বরকে ঘিরে রাতে শত শত লোক রাস্তায় নেমে আসেন। ২০১১ সালে আরব বসন্তের কেন্দ্রস্থল ছিল এই চত্বরটি। এতে তখনকার স্বৈরশাসক হোসনে মোবরকের পতন ঘটেছিল। মধ্যপ্রাচ্যজুড়ে যার রেশ এখনো রয়ে গেছে।আলেক্সজান্দ্রিয়া, সুয়েজ, গারিবিয়া, মাহালা, মনসুরা ও দামিয়েত্তায় বিক্ষোভ প্রদর্শন করা হলে তার ভিডিওফুটেজ অনলাইনে ছড়িয়ে পড়ে।

মিসরের প্রথম গণতান্ত্রিক প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ মুরসিকে সামরিক অভ্যুত্থানের মাধ্যমে হটিয়ে ২০১৩ সালে ক্ষমতা দখল করেন তখনকার সেনাপ্রধান সিসি। এর পর দেশটিতে বিক্ষোভ-প্রতিবাদ এক ধরনের নিষিদ্ধই বলা চলে।দাঙ্গা পুলিশ ও সাদা পোশাকের পুলিশ কর্মকর্তাসহ ব্যাপক নিরাপত্তা উপস্থিতির মধ্যে বিক্ষোভকারীরা মিছিল নিয়ে তাহরির স্কয়ারে চক্কর দেন। অন্তত পাঁচ বিক্ষোভকারীকে আটক হতে দেখেছেন এএফপির সাংবাদিকরা। বিক্ষোভ ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশ কাঁদানে গ্যাস নিক্ষেপ করেছে।

কায়রোতে মিডল ইস্ট আইয়ের প্রতিবেদক বলেন, বিক্ষোভকারীরা সহিংসতা ও আটকের শিকার হয়েছেন।শুক্রবার রাতে দুই শতাধিক বিক্ষোভকারী মিছিল নিয়ে তাহরির স্কয়ারমুখী হলে দাঙ্গা পুলিশ তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেন।

মিসরে সাংবাদিকদের ওপর বিধিনিষেধ থাকায় নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক প্রতিবেদক বলেন, কোনো মৃত্যুর ঘটনা ঘটেনি। তবে ২০-২৫ বিক্ষোভকারী আটক হয়েছেন। পরবর্তী সময়ে কয়েকজনকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।সড়কের এক পাশ ধরে বিক্ষোভ নিয়ে যাওয়া লোকজন ‘ক্ষমতা ছাড়ো সিসি মোবারক’ বলে স্লোগান দিচ্ছিলেন।

জেনারেল সিসির শাসনে বিরোধীদের ওপর ব্যাপক ধরপাকড় চালাচ্ছে দেশটির কর্তৃপক্ষ। হাজার হাজার ইসলামপন্থী, ধর্মনিরপেক্ষ অ্যাকটিভিস্ট ও জনপ্রিয় ব্লগারদের আটক করে কারাগারে রাখা হয়েছে।ভিডিও ফুটেজে দেখা গেছে, কয়েক ডজন বিক্ষোভকারী ‘সিসি, তুই সরে যা’ স্লোগান দিচ্ছেন।

তাহরির স্কয়ারের কাছে নীল নদ বরাবর সড়কে বিক্ষোভকারীদের একটি ছোট্ট গ্রুপ দেখা গেছে। পুলিশ তাদের সরিয়ে দেয়ার আগে তারা সিসির বিরুদ্ধে স্লোগান দিচ্ছিলেন।এ বিক্ষোভে ফের সক্রিয় হয়ে ওঠেন সিসির শাসনে ক্ষুব্ধ নির্বাসিত মিসরীয় ব্যবসায়ী মোহাম্মদ আলী। তিনি সিসির পদত্যাগ দাবি করেন।

সিসিকে ক্ষমতা থেকে সরাতে মিসরীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রী মোহাম্মদ জাকিকে আহ্বান করেছেন আলী। তিনি বলেন, আপনি দেখেছেন, লোকজন কীভাবে বিক্ষোভে নেমেছেন। আমি আশা করছি, উত্তেজনা বাড়বে না। দয়া করে নিজের সম্মানের দিকে তাকিয়ে আবদেল ফাত্তাহ আল-সিসিকে গ্রেফতারের নির্দেশ দিন।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: