শনিবার, ২০ জুলাই ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ শ্রাবণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনিতে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জে নিহত ২  » «   দুর্নীতি শব্দটি কীভাবে আসলো আই হ্যাভ নো আইডিয়া: ইকবাল মাহমুদ  » «   সেই প্রিয়া সাহাকে নিয়ে মিললো চাঞ্চল্যকর তথ্য  » «   লবণ সংকটে কোরবানির চামড়া নিয়ে উদ্বেগ  » «   দেশদ্রোহী হিসেবে প্রিয়ার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে: সেতুমন্ত্রী  » «   মিন্নিকে আইনি সহায়তা দিতে ঢাকা থেকে ৪০ আইনজীবী যাচ্ছেন বরগুনায়!  » «   আলো-পানি ছাড়াই রাত কাটল আটক প্রিয়াঙ্কার  » «   মক্কা-মদিনায় ফ্রি ইন্টারনেট ও সিম পাচ্ছেন হাজিরা!  » «   পানিতে সাপের কামড়ে মৃত্যু ,পানিতেই জানাজা-দাফন  » «   নেত্রকোনায় শিশুর কাটা মাথা কাণ্ডে যা জানলো পুলিশ  » «   লন্ডনে পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী, আজ দূত সম্মেলন  » «   ব্রিটিশ ট্যাংকার আটক করেছে ইরান, উত্তেজনা চরমে  » «   নিজেদের বিমান বাহিনী থেকে সুরক্ষা পেতেই এরদোগানের এস-৪০০ ক্রয়!  » «   জাপানে অ্যানিমেশন স্টুডিওতে অগ্নিসংযোগ, নিহত ১২  » «   খাদ্য ঘাটতি পূরণ করেছি, এখন লক্ষ্য পুষ্টি: প্রধানমন্ত্রী  » «  

তারাবি শেষে ফিরছিলেন লন্ডনে হামলায় আহতরা



আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: সেভেন সিস্টার্স রোডের ফিন্সবারি পার্কের কাছে গাড়ি চালিয়ে ওই হামলার ঘটনায় ৪৮ বছর বয়সী একজনকে আটক করেছে পুলিশ। হামলার পরপরই রোববার স্থানীয় সময় রাত ১২টা ১৫ মিনিটে লন্ডনের অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিসকে খবর দেয়া হয়।
মুসলিম কাউন্সিল অব ব্রিটেন (এমসিবি) জানিয়েছে, প্রার্থনা শেষে বাড়ি ফেরার পথে মুসল্লিদের ওপর চালানো ওই হামলা ইচ্ছাকৃত।

সংগঠনটির তরফ থেকে বলা হয়েছে, এই ঘটনার মাধ্যমে হিংসাত্মক ইসলামভীতির বহিঃপ্রকাশ ঘটেছে। তারা মসজিদের চারপাশে অতিরিক্ত নিরাপত্তা নিশ্চিতের আহ্বান জানিয়েছেন।
এই হামলার ঘটনাকে ভয়ানক ঘটনা বলে উল্লেখ করেছেন প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে। তিনি বলেন, হামলায় যারা হতাহত হয়েছেন তাদের জন্য আমরা ব্যথিত। ঘটনাস্থলে জরুরি বিভাগের কর্মকর্তারা রয়েছে বলে উল্লেখ করেছেন তিনি।

রায়ান নামের এক নারী জানিয়েছেন, তিনি দুর্ঘটনার আগে ওই মসজিদের কাছেই ছিলেন। নামাজ শেষে সবাই ফিরছিল। তিনি পেছনে দাঁড়িয়ে একজনের সঙ্গে কথা বলছিলেন।
তিনি সিএনএনকে জানিয়েছেন, আমি কথা বলছিলাম। কিছুক্ষণ পরেই লোকজনের চিৎকার শুনতে পেলাম। আমি একটু সামনে এগিয়ে গেলাম কি হয়েছে সেটা দেখার জন্য।

রিয়ান জানান, তাকে ভেতরে যাওয়ার জন্য বলা হয়েছিল। তাকে বলা হয়েছিল এটা নিরাপদ জায়গা নয়। কিন্তু তিনি কারো কথা শোনেননি।
তিনি বলেন, ‘আমি হাঁটতে হাঁটতে ঘটনাস্থলে পৌঁছাই। আমি দেখতে পেলাম কিছু মানুষ রাস্তায় পড়ে আছে, কেউ কেউ মারাত্মক আহত হয়েছে। এদের মধ্যে একজন সম্ভবত মারা গেছেন। পুলিশ আমাদের সেখান থেকে সরিয়ে দিচ্ছিলেন।’

এই হামলার ঘটনা সম্পর্কে বিস্তারিত কিছু জানায়নি পুলিশ। এছাড়া কোনো সন্দেহভাজন সম্পর্কেও কোনো তথ্য প্রকাশ করা হয়নি।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: