বৃহস্পতিবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৩ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
বিএনপির বিরুদ্ধে গায়েবি মামলার প্রমাণ নেই : আমু  » «   অংশ্রহণমূলক নির্বাচনের জন্য সহযোগিতা করতে প্রস্তুত ইইউ  » «   কমলগঞ্জে ট্রাক চাপায় তরুণী নিহত,চালক পালাতক  » «   বি. চৌধুরীর চায়ের দাওয়াতে যাচ্ছে ন্যাপ–এনডিপি  » «   নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহে জাতীয় নির্বাচনের তফসিল: ইসি সচিব  » «   ঈশ্বর, মৃত্যু-পরবর্তী জীবন ও স্বর্গ নিয়ে যা ভাবতেন স্টিফেন হকিং  » «   আইয়ুব বাচ্চুর মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শোক  » «   সাম্প্রদায়িক সম্প্রতির দৃষ্টান্ত: এক উঠোনে মসজিদ-মন্দির  » «   খাশোগি হত্যা: যুক্তরাষ্ট্রকে সাড়ে ৭ হাজার কোটি টাকা দিল সৌদি  » «   দুর্গাপূজা যেভাবে হলো হিন্দুদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব  » «   সিলেটে ফোনে কথা বলা অবস্থায় যুবকের হঠাৎ মৃত্যু  » «   ইরান কখনো পরমাণু বোমা বানাবে না: রুহানি  » «   সিলেটে সমাবেশের অনুমতি পেয়েছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট  » «   বাংলাদেশে আরো সৌদি বিনিয়োগ চান প্রধানমন্ত্রী  » «   কানাডায় প্রকাশ্যে গাঁজা বিক্রি শুরু, ক্রেতাদের ভিড়  » «  

তারাবি শেষে ফিরছিলেন লন্ডনে হামলায় আহতরা



আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: সেভেন সিস্টার্স রোডের ফিন্সবারি পার্কের কাছে গাড়ি চালিয়ে ওই হামলার ঘটনায় ৪৮ বছর বয়সী একজনকে আটক করেছে পুলিশ। হামলার পরপরই রোববার স্থানীয় সময় রাত ১২টা ১৫ মিনিটে লন্ডনের অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিসকে খবর দেয়া হয়।
মুসলিম কাউন্সিল অব ব্রিটেন (এমসিবি) জানিয়েছে, প্রার্থনা শেষে বাড়ি ফেরার পথে মুসল্লিদের ওপর চালানো ওই হামলা ইচ্ছাকৃত।

সংগঠনটির তরফ থেকে বলা হয়েছে, এই ঘটনার মাধ্যমে হিংসাত্মক ইসলামভীতির বহিঃপ্রকাশ ঘটেছে। তারা মসজিদের চারপাশে অতিরিক্ত নিরাপত্তা নিশ্চিতের আহ্বান জানিয়েছেন।
এই হামলার ঘটনাকে ভয়ানক ঘটনা বলে উল্লেখ করেছেন প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে। তিনি বলেন, হামলায় যারা হতাহত হয়েছেন তাদের জন্য আমরা ব্যথিত। ঘটনাস্থলে জরুরি বিভাগের কর্মকর্তারা রয়েছে বলে উল্লেখ করেছেন তিনি।

রায়ান নামের এক নারী জানিয়েছেন, তিনি দুর্ঘটনার আগে ওই মসজিদের কাছেই ছিলেন। নামাজ শেষে সবাই ফিরছিল। তিনি পেছনে দাঁড়িয়ে একজনের সঙ্গে কথা বলছিলেন।
তিনি সিএনএনকে জানিয়েছেন, আমি কথা বলছিলাম। কিছুক্ষণ পরেই লোকজনের চিৎকার শুনতে পেলাম। আমি একটু সামনে এগিয়ে গেলাম কি হয়েছে সেটা দেখার জন্য।

রিয়ান জানান, তাকে ভেতরে যাওয়ার জন্য বলা হয়েছিল। তাকে বলা হয়েছিল এটা নিরাপদ জায়গা নয়। কিন্তু তিনি কারো কথা শোনেননি।
তিনি বলেন, ‘আমি হাঁটতে হাঁটতে ঘটনাস্থলে পৌঁছাই। আমি দেখতে পেলাম কিছু মানুষ রাস্তায় পড়ে আছে, কেউ কেউ মারাত্মক আহত হয়েছে। এদের মধ্যে একজন সম্ভবত মারা গেছেন। পুলিশ আমাদের সেখান থেকে সরিয়ে দিচ্ছিলেন।’

এই হামলার ঘটনা সম্পর্কে বিস্তারিত কিছু জানায়নি পুলিশ। এছাড়া কোনো সন্দেহভাজন সম্পর্কেও কোনো তথ্য প্রকাশ করা হয়নি।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: