সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ২৯ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
ক্যাসিনো পঞ্চপাণ্ডবের রইল বাকি ১  » «   পুলিশের ওপর হামলা: দুই ‘জঙ্গি’ আটক  » «   সিলেট-জকিগঞ্জ সড়কে চালকদের প্রতিযোগিতায় যাত্রীবাহী বাস খাদে, আহত ৭  » «   ইনস্টাগ্রামে ট্রাম্প-ওবামাকে পেছনে ফেললেন মোদি!  » «   একটি মোবাইল চার্জারের দাম ২২ হাজার টাকা  » «   বেতন বৈষম্য: কর্মবিরতিতে সাড়ে ৩ লাখ শিক্ষক  » «   আবরার হত্যা: শেষ চার ঘণ্টার নৃশংসতার চিত্র  » «   সংবিধান পড়ে শোনালেন আমান, পুলিশ বলল ‘গো ব্যাক’  » «   বুয়েটে ভর্তি পরীক্ষা শুরু  » «   আবরার হত্যায় এবার মুজাহিদের স্বীকারোক্তি  » «   তিন সপ্তাহ ধরে কার্যালয়ে যান না যুবলীগ চেয়ারম্যান  » «   নোবেল পুরস্কার র‌্যাব-পুলিশের হাতে নয় : রিজভী  » «   বুরকিনা ফাসোতে মসজিদে ঢুকে ১৬ মুসল্লিকে গুলি করে হত্যা  » «   হবিগঞ্জে পাচারকালে ১২শ’ কেজি রসুন জব্দ  » «   সৌদি-ইরান উত্তেজনা মধ্যস্ততায় তেহরানের পথে ইমরান খান  » «  

ট্রাম্পের আয়কর বিবরণী প্রকাশে আল্টিমেটাম দিল ডেমোক্রেটরা



আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের আয়কর বিবরণী ২৩ এপ্রিলের মধ্যে প্রতিনিধি পরিষদের ডেমোক্রেট সদস্যদের দিতে হবে বলে জানিয়েছে নিম্নকক্ষের কর ও বাজেট পর্যালোচনা এবং সুপারিশ সংক্রান্ত কমিটির চেয়ারম্যান রিচার্ড নিল। খবর বিবিসির।এর আগে ১০ এপ্রিলের মধ্যে আয়কর বিবরণীর তথ্য দিতে বললেও তাতে কান দেয়নি ট্রাম্প প্রশাসন।

যুক্তরাষ্ট্রের অভ্যন্তরীণ রাজস্ব বিভাগকে (আইআরএস) লেখা এক চিঠিতে রিচার্ড নিল জানিয়েছেন, এ দফায় আয়কর বিবরণী না দিলে ঘটনাটিকে ‘অনুরোধ অবজ্ঞা’ হিসেবে বিবেচনা করা হবে।প্রতিনিধি পরিষদের একমাত্র ব্যক্তি হিসেবে যে কারও আয়কর বিবরণী চাওয়ার সুযোগ আছে ওয়েস অ্যান্ড মিনস কমিটির চেয়ারম্যান রিচার্ডের। আর এ সংক্রান্ত একটি আইনও আছে।এদিকে এ ধরনের অনুরোধ করদাতার গোপনীয়তা লংঘনের শামিল বলে জানিয়েছেন রিপাবলিকানরা।

চিঠিতে আইআরএসের কমিশনার চার্লস রেটিগকে রিচার্ড বলেছেন, কমিটির আবেদন প্রত্যাখ্যানে কোনো উদ্বেগকেই আইনিভাবে ব্যবহার করা যাবে না। আপনারা যদি এ অনুরোধ রাখতে না পারেন সেটি আমার অনুরোধকে অবজ্ঞা করা হয়েছে বলে বিবেচিত হবে।

১৯৭৬ সালের পর থেকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে অংশ নেওয়া সব প্রার্থীই তাদের আয়কর বিবরণী প্রকাশ করে আসছে। তবে এর জন্য নির্দিষ্ট কোনো বিধিবিধান নেই।ডেমোক্রেটরা এ আবেদনকে ‘বৈধ ও জরুরি’ বলে জানিয়েছেন। অন্যদিকে ট্রাম্পের এক আইনজীবী এ আবেদনকে ‘হয়রানি’ বলে অ্যাখ্যা দিয়েছেন।

গত বছরের মধ্যবর্তী নির্বাচনে নিম্নকক্ষে রিপাবলিকানদের ভরাডুবি ট্রাম্পের ব্যক্তিগত ও ব্যবসায়িক লেনদেনের বিষয়ে তদন্তের দ্বার খুলে দেয়। ওই নির্বাচনে বেশি সংখ্যক আসনে জিতে ডেমোক্রেটরা প্রতিনিধি পরিষদ পুনরায় দখল করে নেয়।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: