বৃহস্পতিবার, ২৩ নভেম্বর ২০১৭ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
বরখাস্তকৃত ন্যানগ্যাগওয়াই হচ্ছেন জিম্বাবুয়ের প্রেসিডেন্ট  » «   খালেদার গাড়িবহরে হামলা সরকারের সর্বোচ্চ পর্যায়ের পরিকল্পনার অংশ  » «   এক মোটরসাইকেলেই বিশ্ব রেকর্ড  » «   কাঁদলেন ঐশ্বরিয়া, ১শ শিশুর ঠোঁটের অস্ত্রোপচারে খরচ দিবেন  » «   কাল থেকে পুনরায় চালু হচ্ছে চুয়েট বাস  » «   বলি একটা লেখেন আরেকটা: সাংবাদিকদের রোনালদো  » «   এসএসসি পরীক্ষা শুরু ১ ফেব্রুয়ারি  » «   মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে হবে ছাত্রলীগের স্কুল কমিটি  » «   এগিয়ে থাকুন সৃজনশীলতায়  » «   সংসদে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী ১ বছরে সাড়ে ৩ কোটি ইয়াবা জব্দ  » «   শ্রীমঙ্গলে বড় ভাইয়ের হাতে ছোট ভাই খুন  » «   দখলমুক্ত হচ্ছে খাল ও নদী  » «   কুমিল্লায় হানিফ‘আ’লীগকে হুংকার দিয়ে লাভ নেই’  » «   কমলগঞ্জে প্রতিহিংসায় বিনষ্ট কৃষকের শিম বাগান  » «   অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাৎ সহ নানা অভিযোগ  » «  

টাইগার কোচ হতে চান সুজন



খেলাধুলা ডেস্ক::পদত্যাগ করেছেন জাতীয় দলের হেড কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহে। গত বৃহস্পতিবার (৯ নভেম্বর) দুপুরে প্রতিবেদন প্রকাশ করে ক্রিকেটের জনপ্রিয় ওয়েবসাইট ক্রিকইনফো। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সবশেষ ওয়ানডে সিরিজ চলাকালীন তিনি পদত্যাগপত্র দেন বলে (৯ নভেম্বর) বৃহস্পতিবার নিশ্চিত করেছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। কিন্তু এক দিন পরেই আলোচনায় জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক ও বিসিবি পরিচালক খালেদ মাহমুদ সুজন। বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের পরবর্তী প্রধান কোচ হতে পারেন সাবেক এই অধিনায়ক।

এ বিষয়ে খালেদ মাহমুদ বলেন, আমি নানা সময়ে নানা রকম চ্যালেঞ্জ নিয়ে এই পর্যন্ত এসেছি। যখন অধিনায়কের দায়িত্ব আমাকে দেয়া হয়েছিলো, তখনও ভাঙাচোরা একটা দল নিয়ে এগিয়েছি। এ ছাড়া কোচিংও করছি অনেক দিন ধরে। আমার মনে হয় না এই পর্যায়ের কোচিং খুব কঠিন জিনিস। তবে অনুপ্রেরণা দেয়ার কাজটা গুরুত্বপূর্ণ। বোর্ড যদি আমাকে এই কাজের উপযুক্ত মনে করে এবং দায়িত্ব দেয়, তাহলে আমি পুরোপুরি প্রস্তুত আছি।

তিনি আরো বলেন, চন্ডিকা হাথুরুসিংহের এমন একটা সিদ্ধান্ত আসতে পারে, তার কোনো ধারণাই ছিলো না। বিষয়টি নিয়ে আমি খুব অবাক হয়েছি। আমি এখনো নিশ্চিত না । ঠিক কী কারণে এটা করলো তা আমি জানি না। চন্ডিকা হাথুরুসিংহের সবচেয়ে বেশি যোগাযোগ ছিলো বোর্ড প্রধান নাজমুল হাসান পাপন ও সুজনের সঙ্গে। তারপরও পদত্যাগ করার মতো বড় একটা বিষয় নিয়ে তিনি এ দুজনের সঙ্গে কেনো আলোচনা করারও দরকার মনে করেননি, তা এক বিস্ময়কর ব্যাপার।

এ ব্যাপারে সুজন বলেন, আমার সঙ্গে ওর সম্পর্কটা চমৎকার ছিলো। কিন্তু হঠাৎ করে এমন একটা সিদ্ধান্ত কেনো নিলো; এটা বিস্ময়কর ব্যাপার। ওর সঙ্গে কথা না বলে আসল ব্যাপারটা জানার কোনো উপায় আমি দেখছি না। চান্দিকার পদত্যাগের পরই বোর্ডে পরবর্তী অধিনায়ক হিসেবে সুজনের কথা বলা হচ্ছে। কিন্তু সাবেক টেস্ট অধিনায়ক ব্যাপারটা জেনেছেন আজ। তিনি বলেন, ‘আমার কথা যে আলোচনা হচ্ছে, সেটা আমি জানতামই না। আজ একজন বললো। আসলে কী হবে সেটা জানতে আরো সময়ের প্রয়োজন। বোর্ডে এই ব্যাপার নিয়ে আলোচনা হবে।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: