বুধবার, ১৭ জানুয়ারী ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ মাঘ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
পাবনায় সিভিল সার্জন কার্যালয়ে কমিউনিটি ক্লিনিক-এ কমর্রত কমিউনিটি হেল্থ কেয়ার প্রোভাইডারদের অবস্থান কর্মসূচী পালন  » «   আল-আকসা সংস্কারে ইসরাইলের নিষেধাজ্ঞা!  » «   ঢাবি অধিভুক্ত ৭ কলেজের মানববন্ধন ১৮ জানুয়ারি  » «   এক সপ্তাহেও সন্ধান মেলেনি নিখোঁজ পরীক্ষার্থী বাপ্পীর  » «   উজানের দেশ সমূহ হতে বাংলাদেশে মোট ৫৭ টি নদী প্রবাহিত  » «   নরসিংদীতে অটোরিকশা চালকের লাশ উদ্ধার  » «   এ দেশে কোনো দস্যুতা চলবে না : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী  » «   স্কুল ছাত্রকে পিটিয়ে হাসপাতালে পাঠালো শিক্ষক  » «   হবিগঞ্জের স্কুল পরিদর্শনে কোরিয়ার প্রতিনিধি দল  » «   সড়কে পড়ে গিয়ে যা বললেন আইভী!  » «   বেসরকারি হাসপাতালে চলছে নৈরাজ্য!  » «   নীলফামারীতে নকল সার উদ্ধার, ২০ হাজার টাকা জরিমানা  » «   সিলেটে বোলারদের দাপট  » «   ৩ লাখ ৫৯ হাজার ২৬১ সরকারি পদ শূন্য  » «   ডাকসু নির্বাচন নিয়ে হাইকোর্টের রায় বুধবার  » «  

টাইগারদের বিশাল জয়



খেলাধুলা ডেস্ক::নিউজিল্যান্ডে অনূর্ধ্ব-১৯ যুব বিশ্বকাপের ১০ম আসরে শনিবার (১৪ জানুয়ারি) উদ্বোধনী দিনে নামিবিয়ারর বিপক্ষে টস হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নামে যুব টাইগাররা।

ম্যাচটিতে বৃষ্টির কারণে ৫০ ওভার থেকে কমে ২০ ওভারে নিয়ে আসা হয়। নির্ধারিত এই ২০ ওভার খেলে ৪ উইকেট হারিয়ে ১৯০ রান করে যুব টাইগারা। তাই নামিবিয়াকে জিতলে হলে করতে হবে ১৯১ রান। তবে বাংলাদেশের দেওয়া এই পাহাড় সমান রান তারা করতে নেমে ২০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ১০৩ রান করে হার নিয়ে মাঠ ছাড়ে দলটি।

নামিবিয়া ব্যাটিং করতে নেমে শুরুটা ভালো করতে পারেনি। দলীয় ৮ রানের মাথায় দুই উইকেট হারিয় দলটি। কিন্তু বাংলাদেশি বোলাদের সামনে নিজেদের মেলে ধরতে পারছিলেন না। দলীয় ১২ রানে আবারো ২ উইকেট হারালে চাপে পরে। অবশেষে এই চাপ থেকে বের হতে না পেরে হার নিয়ে মাঠ ছাড়ে নামিবিয়া।

এর আগে ওভালের লিঙ্কন গ্রাউন্ডে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই প্রতিপক্ষ বোলারদের উপর চড়াও হয়ে ব্যাট করতে থাকে যুব টাটাইগার পিনাক ঘোষ ও মোহাম্মদ নাঈম। তবে ইনিংস বড় করতে ব্যার্থ হয় পিনাক। তিনি ১৭ বলে ২৬ রানে ফিরে যায় সাজঘরে। এরপর যুব অধিনায়ক অধিনায়ক সাইফকে সঙ্গে নিয়ে বড় সংগ্রহের দিকে এগিয়ে যান নাঈম। ৪৩ বলে ৮ চার ও ১ ছয়ে ৬০ রান করে সাজঘরে ফেরেন নাঈম। নাঈম ফিরে গেলেও বাংলাদেশের রানের চাকা সচল রাখেন সাইফ হাসান। বিধ্বংসী এক ইনিংস খেলে ৪৮ বলে ৩ চার ও ৫ ছয়ে ৮৪ রানে অপরাজিত থাকেন টাইগার এই অধিনায়ক। মাঝে আফিফ ১১ রান করেন। অনিক ও হাসান ৪ ওচার বল করে ২টি করে উইকেট শিকার করেন অন্য দিকে হৃদয় ১ ওভার বল করে ১টি উইকেট নেনে।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালে যুব বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বের ম্যাচে নামিবিয়াকে মাত্র ৬৫ রানে গুড়িয়ে দিয়েছিল বাংলাদেশ

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: