শুক্রবার, ১৮ জানুয়ারী ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ মাঘ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
জিয়াউর রহমানের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে কর্মসূচি ঘোষণা  » «   সীমান্তের খালে মিয়ানমারের সেতু, বন্যার আশঙ্কা বাংলাদেশে  » «   দ্বিতীয় কৃত্রিম উপগ্রহ পাঠাবে বাংলাদেশ: শাবিতে পরিকল্পনামন্ত্রী  » «   আতিয়া মহল মামলা: ৫ দিনের রিমান্ডে ৩ আসামি  » «   শেখ হাসিনা হত্যাচেষ্টা মামলা: হাইকোর্টে আপিল শুনানি শুরু  » «   টিআইবির রিপোর্টে সরকার ও ইসির আঁতে ঘা লেগেছে: বিএনপি  » «   মাফিয়াদের স্বর্গরাজ্যে দশ বাংলাদেশির অনন্য সাহসিকতার নজির  » «   ১৪ দলের শরিকদের বিরোধী দলে থাকাই ভালো: ওবায়দুল কাদের  » «   সন্ত্রাস-মাদক-জঙ্গিবাদের মতো দুর্নীতির বিরুদ্ধেও ‘জিরো টলারেন্স’ : প্রধানমন্ত্রী  » «   সংসদ সদস্যদের শপথের বৈধতা নিয়ে রিট খারিজ  » «   কৃত্রিম কিডনি তৈরি করলেন বাঙালি বিজ্ঞানী  » «   ব্রেক্সিট ইস্যু: অনাস্থা ভোটে টিকে গেলেন তেরেসা মে  » «   টিআইবির প্রতিবেদন গ্রহণযোগ্য নয়, পুরোপুরি প্রত্যাখ্যান করি: সিইসি  » «   জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে অফিস করছেন শেখ হাসিনা  » «   সংসদ কার্যকর রাখতেই বিরোধী দলে জাপা : জিএম কাদের  » «  

জীবন যাবে, তবুও খালেদাকে মুক্ত করা হবে: মান্না



নিউজ ডেস্ক:: জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ও নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না বলেছেন, বেগম জিয়াকে জেলে রাখা যাবে না। জীবন যাবে, তবুও তাকে (খালেদা জিয়া) মুক্ত করা হবে। আজ যারা ছবি তুলেছেন আর ভিডিও করেছেন- প্রধানমন্ত্রীর কাছে, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে এবং আইজিপি’র কাছে সেইগুলো পাঠিয়ে দেন। তারা দেখুক, জনগণ খালেদা জিয়াকে কতটা ভালোবাসে।

মঙ্গলবার (৬ নভেম্বর) রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সমাবেশে বক্তব্য রাখার সময় তিনি এসব কথা বলেন। এদিন দুপুর ১টায় আনুষ্ঠানিকভাবে জনসভা শুরু হয়। তবে জনসভা শুরুর আগেই ঢাকা এবং এর আশেপাশের বিভিন্ন এলাকা থেকে নেতা-কর্মী ও সমর্থকরা মিছিল নিয়ে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আসতে থাকে।

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেন এবং প্রধান বক্তা হিসেবে অংশ নেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জেএসডি) সভাপতি আ স ম আবদুর রব।

মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে ভোটার ছিল না। কুকুর-বিড়ালের ছবি দেখেছে সবাই। আবার ভোট আসছে, মানুষ ভোট দিতে পারবে কি না- তা নিয়ে সংশয় তৈরি হয়েছে। সংলাপে আমরা বলেছি, শেখ হাসিনার অধীনে কোনো নির্বাচন হবে না। নির্বাচন কমিশনের অধীনেও নির্বাচন হবে না। সরকারে থেকে কোনো নির্বাচন হবে না। সাত দফার কিছু মানবেন না-ে অন্যদিকে বলছেন, নিরপেক্ষ নির্বাচন হবে!

তারা বললেন, কাউকে গ্রেফতার করা হবে না। অথচ গত রাতেও সারাদেশে রাজনীতিবিদদের গ্রেফতার করা হয়েছে। অক্টোবর মাসে ছয় হাজার মামলা হয়েছে। শেখ হাসিনা বললেন, কার নামে কত মামলা। মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর জবাব দিলেন, আমার নামে একশ’ মামলা। উনি বললেন, তালিকা দেন ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তালিকা দিলে ব্যবস্থা নিতে নিতে নির্বাচন পার হয়ে যাবে।

জমির উদ্দিন সরকার বলেন, দেশে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা, স্বাভাবিক মৃত্যুর গ্যারান্টিসহ নিরপেক্ষ নির্বাচনের লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরি করতে খালেদা জিয়াকে নিঃশর্ত মুক্তি দিতে হবে। অন্যথায় নিরপেক্ষ নির্বাচন হবে না। দেশে সুশাসন প্রতিষ্ঠিত হবে না।তিনি বলেন, সংসদ ভেঙে দিন। পার্লামেন্ট রেখে দেশে নির্বাচন হয় না।

সমাবেশে মির্জা আব্বাস বলেন, এই সরকারের পুলিশ বাহিনী রাতের অন্ধকারে বিএনপি নেতা-কর্মীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে হামলা করছে, গ্রেফতার করছে। সরকার পুলিশ দিয়ে হামলা চালায় টিকে থাকতে চাইছে।

তিনি বলেন, এই লড়াই ক্ষমতায় যাওয়ার লড়াই নয়, এই লড়াই গণতন্ত্র রক্ষা এবং জনগণের অধিকার প্রতিষ্ঠার লড়াই। আমাদের দেশের গণতন্ত্র এই হায়েনা সরকারের হাত থেকে রক্ষা করতে হবে। স্বাভাবিক মৃত্যুর গ্যারান্টি চাই। আন্দোলন করে সরকারকে জায়গা মতো পাঠিয়ে দেবো।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: