বৃহস্পতিবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
লন্ডনে দ্বিতীয় জনপ্রিয় ভাষা বাংলা  » «   ঘুষের টাকাসহ হাতেনাতে সাব-রেজিস্ট্রার আটক  » «   আর কোনো হায়েনার দল বাংলার বুকে চেপে বসতে পারবে না  » «   সিলেটে মুক্তিযুদ্ধের পাণ্ডুলিপি সংগ্রহ করলেন প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী  » «   ফের জাতীয় পার্টির ঢাকা জেলা শাখার সভাপতি সালমা ইসলাম এমপি  » «   বিয়ানীবাজারে ৯৯০ পিস ইয়াবাসহ পেশাদার মাদক ব্যবসায়ী আটক  » «   আয়কর দিবস উপলক্ষে সিলেটে বর্ণাঢ্য র‌্যালি  » «   এবার শ্রীমঙ্গলে ট্রেনের ইঞ্জিনে আগুন  » «   বেলজিয়ামে মসজিদে তালা দেওয়ায় বাংলাদেশিদের প্রতিবাদ  » «   পায়রা উড়িয়ে জাতীয় পার্টির ঢাকা জেলা শাখার সম্মেলন উদ্বোধন  » «   ভারতের অর্থনীতির দুরবস্থা, জিডিপি কমে সাড়ে ৪ শতাংশ  » «   পায়রা উড়িয়ে সম্মেলন উদ্বোধন করলেন শেখ হাসিনা  » «   লন্ডন ব্রিজে আবারও সন্ত্রাসী হামলা, নিহত ২  » «   চীন থেকে মা-বাবার জন্য পেঁয়াজ নিয়ে এলেন মেয়ে  » «   রক্তে ভাসছে ইরাক, নিহত ৮২  » «  

জিন্দাবাজারে ছাত্রলীগ কর্মীকে পেটালেন তাঁতী লীগ নেতা



নিউজ ডেস্ক:: সিনিয়র-জুনিয়র দ্বন্দ্বের জেরে সিলেট নগরীর জিন্দাবাজারে এক ছাত্রলীগ নেতাকে মারধর করা হয়েছে। তাঁতী লীগের এক নেতার নেতৃত্বে নেওয়াজ আহমদ (২৩) নামে ওই ছাত্রলীগ নেতাকে মারধর করা হয় বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। নেওয়াজ দক্ষিণ সুরমা ছাত্রলীগের নেতা। শুত্রবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে জিন্দাবাজারের পালকী রেস্টুরেন্টের সামনে এ মারধরের ঘটনা ঘটে।

প্রতক্ষদশী সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার রাতে মোটরসাইকেলযোগে পালকী রেস্টুরেন্ট থেকে বের হচ্ছিলেন নেওয়াজ। এসময় প্রাইভেটকার নিয়ে সড়কে ছিলেন মহানগর তাঁতী লীগ নেতা আজহারুল ইসলাম মুনিমসহ একদল যুবক। নেওয়াজ মূল সড়কে আসামাত্র তাকে মোটর সাইকেল থেকে নামিয়ে মারধর করেন মুনিমসহ তাঁর সঙ্গের যুবকরা।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত ১৬ নং ওয়ার্ড যুবলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি মাহফুজ হাসান তান্না বলেন, আমি একটি অনুষ্ঠানে ছিলাম। এসময় তাঁতী লীগের মুনিম আমাকে ফোন করে জানান, নেওয়াজ তাঁর সাথে বেয়াদবি করেছে। এই খবর শুনে শুনে আমি জিন্দাবাজারের দিকে রওয়ানা দেই। কিন্তু ঘটনাস্থলে আসার আগেই নেওয়াজকে মারধর করে তাঁরা চলে যান। চিকিৎসার জন্য নেওয়াজকে ওসমানী হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলে জানান তান্না।

তবে মারধরের জড়িত থাকার অভিযোগ অস্বীকার করে আজহারুল ইসলাম মুনিম বলেন, নেওয়াজ আমার কাছে চাঁদা দাবি করেছিলেন। শুক্রবার রাতে জিন্দাবাজারে তিনি অসংলঘ্ন আচরণ করছিলেন। এসময় স্থানীয় পথচারীরাই তাকে মারধর করেন। আমি তাকে উদ্ধার করেছি।

মারধরের কোনো অভিযোগ পাননি বলে জানিয়েছেন কতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) সেলিম মিয়া।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: