রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
লন্ডনে প্রধানমন্ত্রীর হো‌টে‌লের সাম‌নে বৃষ্টি উপেক্ষা করে বিএন‌পির বিক্ষোভ  » «   বিশ্বের চতুর্থ ভয়ঙ্করতম সংগঠন মাওবাদী!  » «   ফেঁসে যাচ্ছেন যুক্তরাষ্ট্রে গ্রিন কার্ড আবেদনকারীরা  » «   শাবিপ্রবিতে ছাত্রী হলের পানিতে মিলছে কেঁচো-জোঁক!  » «   সিলেটের ওসমানীনগরে বাস চাপায় নিহত ২, আহত ৩  » «   বনে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে সংঘর্ষে ১১ সিংহের মৃত্যু  » «   তাবলিগের সংকট নিরসনে সরকারের পাঁচ নির্দেশনা  » «   গাজীপুরে বেতনের দাবিতে শ্রমিক বিক্ষোভ, মহাসড়ক অবরোধ  » «   শূন্যপদের সঠিক তথ্য দিচ্ছে না শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো  » «   আজ ঢাকায় আসছেন বিশ্বব্যাংকের ভাইস প্রেসিডেন্ট  » «   এবার ক্ষুধার্ত পদ্মার পেটে যাচ্ছে শিবচর  » «   আইসিসি নিজেই মিয়ানমারের বিচারে সক্ষম: জাতিসংঘ মহাসচিব  » «   নাইজেরিয়ায় কলেরা সংক্রমণ; ৯৭ জনের মৃত্যু  » «   ধানের শিষ এখন পেটের বিষ: ওবায়দুল কাদের  » «   যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত, তবে শান্তির পথও খোলা: পাকিস্তান আর্মি  » «  

জাহান্নামের আগুনে বসিয়া হাসি পুষ্পের হাসি: হাসিনা



নিউজ ডেস্ক::আন্তর্জাতিক ভাষা দিবসের উদযাপনের আগের দিন গণভবনে ভারতীয় সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপ করছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ সময় নিজের খোশ মেজাজে থাকার জবাবে তিনি কবিতার ভাষায় বলেন, ‘জাহান্নামের আগুনে বসিয়া হাসি পুষ্পের হাসি!’

এসময় তিস্তার পানি চুক্তি এবং চীনের বিনিয়োগ নিয়েও কথা বলেন তিনি। বাংলাদেশের সঙ্গে চীনের সম্পর্ক নিয়ে উদ্বেগের কোনো কারণ নেই ভারতের। মঙ্গলবার গণভবণে ভারতীয় সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপ করার সময় প্রতিবেশী দেশটিকে এভাবেই আশ্বস্ত করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিস্তা প্রসঙ্গ উঠতেইবলেছেন, ‘‌একটা দুঃখ আছে। দিদিমণি(মমতা বন্দোপাধ্যায়) তিস্তার পানি দিলেন না। যখন পানি চাইলাম, তখন উনি বললেন, বিদ্যুৎ দেব। আমি বললাম, তথাস্তু। যা পাওয়া যায়, তাই দিন।’‌

ভারতীয় সাংবাদিকদের অন্য এক প্রশ্নের জবাবে শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশে চীনের বিনিয়োগ নিয়ে ভারতের উদ্বেগের কোনও কারণ নেই। বাংলাদেশের কাছ ভারত ভারতের জায়গাতেই থাকবে, চীন চীনের জায়গায়। ভারতের বন্ধুত্ব সময়ের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ। চীন তো নতুন বন্ধু।’

ভারতের ভূমিকা নিয়ে একবারই আক্ষেপ করার কারণ ঘটেছিল বলে জানিয়ে হাসিনা বলেন, ‘২০০১-এর ভোটে আমরা ভারতের সহযোগিতা পাইনি। তারা যাদের সহযোগিতা করেছিল, তারা কিছুই দেয়নি।’ তিনি এভাবেই কটাক্ষ করেন বিরোধী দল বিএনপিকে।

সামনেই সাধারণ নির্বাচন বাংলাদেশে। তাতে কি বিরোধী দল বিএনপি যোগ দেবে? ভারতীয় সাংবাদিকদের এ প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘দেশে দলের অভাব নেই। তারা না-এলেও ভোট ঠিকই হবে।’

বাংলাদেশের একটি ‘থিঙ্ক ট্যাঙ্ক’-এর আমন্ত্রণে ঢাকায় আসা ভারতীয় সাংবাদিকদের হাসিনা বলেন, ‘আমি প্রধানমন্ত্রী হিসেবে আপনাদের ডাকিনি। প্রধানমন্ত্রী আজ আছি, কাল না-ও থাকতে পারি। কিন্তু বঙ্গবন্ধুর কন্যা হিসেবে ভারতের মানুষকে আমি প্রাণের বন্ধু বলে মনে করি।’ এসময় বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে ভারতীয় সাংবাদিকদের অবদান স্মরণ করেন তিনি।

প্রতিবেশী দেশের সাংবাদিকরা প্রধানমন্ত্রীর কাছে জানতে চান, তার সবসময় হাসিখুশি থাকার কারণ। উত্তরে বঙ্গবন্ধু কন্যা বলেন, ‘ভয়ে মুখ শুকিয়ে থাকি না আমি। ১৯ বার আক্রান্ত হয়েছি। সময় যখন আসবে মরতে হবেই।’ তারপরে হেসে আবৃত্তি করেন, ‘জাহান্নামের আগুনে বসিয়া হাসি পুষ্পের হাসি!’

সূত্র: আনন্দবাজার

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: