রবিবার, ২০ মে ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
লজ্জায় মানুষ না খেয়ে থাকার কথা বলতে পারে না —————————- : মোমিন মেহেদী  » «   রাতে মোবাইল ব্যবহার করলে হয়ে যাবেন অন্ধ!  » «   ৬ মামলার আসামি ইয়াবাসহ গ্রেফতার  » «   সৌন্দর্যের ৫ গোপন রহস্য!  » «   পরকীয়া প্রেমিকসহ চেয়ারম্যান-কন্যা আটক!  » «   হাত-পা বেঁধে আ’লীগ নেতার বাড়িতে ডাকাতি  » «   ছবি আঁকলেন প্রধানমন্ত্রী  » «   গণভবনে প্রধানমন্ত্রী‘মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান কিন্তু চলছে’  » «   তাসপিয়া হত্যা মামলার আসামি আদনানের বাবার বক্তব্য!  » «   রাজকীয় বিয়েতে রাজকীয় সাজে ছিলেন প্রিয়াঙ্কাও  » «   যে কারণে বাদ ইমরুল-তাসকিন-সোহান  » «   সাইবার অপরাধ : তাৎক্ষণিক বিচার চান অধিকাংশ ভুক্তভোগী  » «   নয়াপল্টনে রিজভী‘কাদেরের বক্তব্য একতরফা নির্বাচনেরই ইঙ্গিতবহ’  » «   রাজীবের হাত বিচ্ছিন্ন : দুই বাসচালকের জামিন নামঞ্জুর  » «   এভারেস্টের চূড়ায় ১৬ বছরের কিশোরী!  » «  

জাতীয় পতাকা উত্তোলন ছাড়াই চলছে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়



নিউজ ডেস্ক::নাটোরের বাগাতিপাড়া উপজেলার বড়ালঘাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে জাতীয় পতাকা উত্তোলন না করার অভিযোগ উঠেছে। আর এ অভিযোগের ভিত্তিতে সরেজমিনে ঘুরে মিলল সত্যতা। আর এর পরেই বিধি অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দিয়েছেন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা।

সূত্রে জানা যায়, উপজেলার বড়ালঘাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বেশ কয়েকদিন যাবৎ জাতীয় পতাকা উত্তোলন না করার অভিযোগ উঠে। বিষয়টি নিশ্চিত হতে মঙ্গলবার (২১ নভেম্বর) বেলা ১২টার দিকে উপজেলা শিক্ষা অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) ফাইজুল ইসলাম প্রতিষ্ঠানে উপস্থিত হন।

প্রধান শিক্ষক নিজে বিদ্যালয়ে উপস্থিত থাকলেও বিদ্যালয়ের জাতীয় পতাকা উত্তোলন না করা এবং ক্লাস না নিয়ে শিক্ষকদের বাইরে বসে থাকাসহ শিক্ষার্থীদের বাইরে এলোমেলো ভাবে ঘুরতে দেখেন তিনি। প্রাথমিক পর্যায়ে শিক্ষার মানোন্নয়নে ব্যাপক প্রচেষ্টা থাকলেও কিছু স্বেচ্ছাচারী শিক্ষকের জন্য তা ব্যহত হচ্ছে বলে অভিযোগ এলাকাবাসীর।

এক শিক্ষার্থীর অভিভাবক আনছার আলী দাবি করেন, ‘বড়ালঘাট সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়টি অনিয়মের সর্বোচ্চ পর্যায়ে পৌঁছেছে। তারা নিয়ম নীতিকে তোয়াক্কা না করেই খেয়াল খুশি মতো চলে। পড়াশোনার মান দিন-দিন খারাপের দিকে যাচ্ছে। বর্তমানে যে সকল শিক্ষক প্রতিষ্ঠানে আছে তাদের সবাইকে বদলি করাসহ অনিয়মের জন্য শাস্তি দেওয়া প্রয়োজন।’

সরেজমিনে তদন্তকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) ফাইজুল ইসলাম বলেন, ‘ জাতীয় পতাকা উত্তোলন না করার যে অভিযোগ পেয়েছিলাম, তার সত্যতা পেয়েছি। প্রধান শিক্ষক প্রতিষ্ঠানে উপস্থিত থাকলেও জাতীয় পতাকা উত্তোলন কেন করেননি তার সদুত্তর দিতে পারেননি তিনি। তার বিরুদ্ধে বিধি অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাসরিন বানু বলেন, ‘ওই সরকারি প্রতিষ্ঠানে জাতীয় পতাকা উত্তোলন না করে শাস্তিযোগ্য অপরাধ করেছে। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: