সোমবার, ১৯ অগাস্ট ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
মিন্নির স্বীকারোক্তির আগে নাকি পরে এসপির ব্রিফিং : হাইকোর্ট  » «   প্রাথমিকের শিক্ষার্থীদের দুপুরের খাবারে মন্ত্রিসভার সায়  » «   নবম ওয়েজবোর্ডের গেজেট প্রকাশ নিয়ে আপিল বিভাগের সিদ্ধান্ত মঙ্গলবার  » «   পাঁচভাই রেস্টুরেন্টে প্রবাসীর ওপর হামলা: দুই ছাত্রলীগ কর্মী গ্রেপ্তার  » «   সিলেটসহ রেলের পূর্বাঞ্চলের নিরাপত্তা নিশ্চিতে হাইকোর্টের রুল  » «   বঙ্গবন্ধু হত্যায় জিয়া নয়, আ.লীগ নেতারা জড়িত : ফখরুল  » «   রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন: ‘শঙ্কা’ নিয়েই প্রস্তুত বাংলাদেশ  » «   সুনামগঞ্জে বিষপানে যুবকের আত্মহত্যা  » «   পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে ইভিনিং প্রোগ্রামে জমজমাট শিক্ষা বাণিজ্য  » «   ১০ দিনে ১৭৫ কোটি ডলারের রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন প্রবাসীরা  » «   আজ বাংলাদেশে আসছেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী, গুরুত্ব পাবে তিস্তা চুক্তি  » «   হবিগঞ্জে সড়ক দূর্ঘটনায় পুলিশ কনস্টেবলের মৃত্যু  » «   খুলনা থেকে সিলেট পর্যন্ত জমি ভারতকে ছেড়ে দিতে হবে বাংলাদেশকে!  » «   ফিলিস্তিনে ইসরাইলের গুলি ও রকেট হামলা  » «   রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরু যেকোনো দিন: পররাষ্ট্র সচিব  » «  

জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব কফি আনান আর নেই



আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: আফ্রিকান বংশোদ্ভূত জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব কফি আনান মারা গেছেন। শনিবার (১৮ আগস্ট) সুইজারল্যান্ডে জাতিসংঘের সপ্তম এই মহাসচিব ৮০ বছর বয়সে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

জাতিসংঘের প্রধান হিসেবে মানবিক কাজের জন্য বিশ্বজুড়ে সুপরিচিত ঘানান বংশোদ্ভূত কফি আনান শান্তিতে নোবেল পুরস্কার পেয়েছিলেন। কফি আনানই প্রথম কোনো আফ্রিকান; যিনি বিশ্বের শীর্ষ এই সংগঠনের নেতৃত্ব দিয়েছেন ১৯৯৭ থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত।

পরবর্তীতে যুদ্ধ বিধ্বস্ত সিরিয়ায় শান্তি ফিরিয়ে আনতে জাতিসংঘের বিশেষ দূত হিসেবে কাজ করেন তিনি। জাতিসংঘের প্রধান হিসেবে আনান যখন দায়িত্ব পালন করেন; সেই সময় ইরাক যুদ্ধ এবং বিশ্বজুড়ে এইচআইভির প্রকোপ বেড়ে যায়।১৯৩৮ সালের ৮ এপ্রিল ঘানার কুমাসিতে জন্ম নেয়া আনান পরিবারে রেখে গেছেন স্ত্রী ন্যানি ও তিন সন্তান।

কফি আনান ফাউন্ডেশন ও তার পরিবারের সদস্যরা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে দেয়া এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘হালকা অসুস্থ ছিলেন নোবেল বিজয়ী কফি আনান। শেষ দিনগুলোতে সাবেক এই জাতিসংঘ মহাসচিবের পাশে ছিলেন স্ত্রী ন্যানি ও তাদের তিন সন্তান আমা, কোজো ও নিনা।’

‘কফি আনান ছিলেন বৈশ্বিক এক রাজনীতিক; যিনি সুন্দর ও শান্তিপূর্ণ বিশ্বের জন্য সারাজীবন লড়াই করে গেছেন। জাতিসংঘের নেতৃত্বকালীন ও কর্মজীবনে তিনি ছিলেন শান্তি, টেকসই উন্নয়ন, মানবাধিকার ও আইনের শাসনের চ্যাম্পিয়ন ছিলেন।’

শোকের এই সময়ে গোপনীয়তা বজায় রাখার জন্য সবার প্রতি আহ্বান জানিয়েছে কফি আনানের পরিবার। আরো পরে তার শেষকৃত্যের ব্যাপারে বিস্তারিত তথ্য জানানো হবে বলে বিবৃতিতে বলা হয়েছে।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: