সোমবার, ২৪ জুন ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১০ আষাঢ় ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
প্রথমবার সিলেট-চট্টগ্রাম-কক্সবাজার রুটে উড়বে ইউএস-বাংলা  » «   ভূমিকম্পে কেঁপে উঠলো ইন্দোনেশিয়ায়-জাপান-অস্ট্রেলিয়া  » «   ভোটকেন্দ্রেই ঘুমিয়ে পড়লেন কর্মকর্তা  » «   ‘জয় শ্রীরাম’ না বলায় পিটিয়ে মুসলিম যুবককে হত্যা  » «   নয়াপল্টনে একের পর এক ককটেল বিস্ফোরণ  » «   অফিসে বসে বসে শুধু কি চা খাইলে হবে? দেশপ্রেম থাকতে হবে: হাইকোর্ট  » «   বিকেলের মধ্যে উদ্ধার কাজ শেষ হবে: রেলসচিব  » «   বাংলাদেশের নামে সড়কের নামকরন যুক্তরাষ্ট্রে  » «   সরকারি চাকরিজীবীদের বেতন বাড়লেও দুর্নীতি কমছে না : টিআইবি  » «   দেশসেরা প্রধান শিক্ষক হবিগঞ্জের শাহনাজ কবীর  » «   বাঘের খাবারও চুরি হয় ঢাকা চিড়িয়াখানায়, ফেসবুকে ভাইরাল  » «   দুই মাস ওমরাহ ভিসা স্থগিত করল সৌদি  » «   বীমার আওতায় যেসব সুবিধা পাচ্ছে সরকারি চাকরিজীবীরা  » «   কারাগারে সুনামগঞ্জের আ. লীগ নেতা শামীম আহমদ  » «   মুক্তি পেয়ে নতুন যে বাড়িতে থাকবেন খালেদা  » «  

জাতিগত সংঘাত: গুজরাট থেকে পালাচ্ছে হিন্দিভাষীরা!



আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: ভারতের গুজরাট রাজ্যে একটি ধর্ষণের ঘটনাকে কেন্দ্র করে জাতিগত সংঘাত শুরু হয়েছে। এর জেরে পালিয়ে যাচ্ছে অনেক হিন্দিভাষী লোক।এদিকে বিজেপি-শাসিত রাজ্যটির পুলিশ বলছে, সংঘাত রুখতে কঠোর পদক্ষেপ নিচ্ছে তারা।

ভারতীয় গণমাধ্যম বলছে,জাতিগত সংঘাত এখনও বিরাজমান রয়েছে।সে কারণে প্রতিদিন অসংখ্য হিন্দিভাষী শ্রমিক শ্রেণির মানুষ গুজরাট ছেড়ে নিরাপদস্থানে চলে যাচ্ছে।উল্লেখ্য, গুজরাটে কয়েক লাখ শ্রমিক বাস করে। বিহার, উত্তরপ্রদেশ, পশ্চিমবঙ্গ, ত্রিপুরা এবং ঝাড়খন্ডসহ ভারতের বিভিন্ন রাজ্যে এদের স্থায়ী আবাস।

ভারতীয় গণমাধ্যম বলছে, সম্প্রতি এ গুজরাটে কাজের জন্যে আসা বিহারের এক বাসিন্দার বিরুদ্ধে শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠে। এরপর থেকেই সেখানে গুজরাটি ভাষা ছাড়া অন্য ভাষাভাষী শ্রমিকদের ওপর অত্যাচার শুরু হয়।

সে কারণে জীবন বাঁচাতে গত কয়েকদিন গুজরাট ছেড়ে পালিয়েছে বিহার-উত্তরপ্রদেশের হিন্দিভাষী হাজার হাজার শ্রমিক এবং তাদের পরিবারের সদস্যরা।জি নিউজের এক খবরে বলা হয়েছে, এখন পর্যন্ত ৫০ হাজার শ্রমিক গুজরাট থেকে তাদের নিজেদের রাজ্যে চলে গেছে।

পশ্চিমবাংলার আনন্দবাজার পত্রিকার খবরে জানা যায়,সংঘাতের ঘটনায় অন্তত ৩৪২ জনকে গ্রেপ্তার করেছে গুজরাটের পুলিশ।মামলা হয়েছে ৪২টি।

সূত্র: ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস, ওয়েবসাইট

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: