শুক্রবার, ২২ জুন ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
পাবনায় ছাত্রদলের কমিটি বাতিল এবং যোগ্য ও মেধাবীদের নিয়ে নতুন কমিটির দাবিতে বিভিন্ন ইউনিটের নেতৃবৃন্দের পদত্যাগ  » «   পবিত্র হজকে রাজনীতির হাতিয়ার বানিয়েছে সৌদি  » «   চুয়াডাঙ্গায় সাপের কামড়ে বৃদ্ধার মৃত্যু  » «   সিটি নির্বাচন ১৭ প্রার্থীর সাক্ষাৎকার নিয়েছে বিএনপি  » «   বৃদ্ধ মাকে মারধর, যে পরিণাম হল সন্তানের  » «   এমপিপুত্র শাবাবকে ‘শনাক্তে’ পুলিশের হাতে সিসিটিভি ফুটেজ  » «   জেনে নিন শাওয়াল মাসের ছয়টি রোজার ফজিলত  » «   মৃত্যুভয়ে ১১ তলা পাইপ বেয়ে নামে শিশুটি  » «   বিএনপির কর্মীরা এখন ঢাকায় রিকশা চালায় : ফখরুল  » «   দীপিকা-রণবীরের বিয়ের দিনক্ষণ ফাঁস!  » «   জনপ্রিয়তা বেড়েছে বিটিভির  » «   দিনদুপুরে পার্কে গণধর্ষণ, সেনাবাহিনী ঘিরে ফেলে পার্ক এলাকা  » «   ফের দক্ষিণের ১৫ রুটে বাস চলাচল বন্ধ  » «   স্বামী-সন্তানের স্বীকৃতির দাবিতে প্রবাসী স্ত্রীর অনশন  » «   সাবেক প্রেমিকা কোপাল বর্তমান প্রেমিকাকে!  » «  

জাকির নায়েকের মাথা কেটে আনলে ১৫ লাখ টাকা পুরষ্কার!



24আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ভারতে হুসাইনি টাইগার নামের এক শিয়া গ্রুপ ড. জাকির নায়েকের খুলির বিনিময়ে ১৫ লাখ টাকা পুরষ্কার দিবেন বলে ঘোষণা করেছে।
গত মঙ্গলবার হুসাইনি গ্রুপের প্রেসিডেন্ট সৈয়দ কালবি হোসেন নাকভি নিজের ফেসবুক ওয়ালে পোস্ট করেছেন, ‘সে(জাকির নায়েক) একজন খলনায়ক। তিনি নবীজিকে অপমান করেছেন এবং তাকে যে হত্যা করবে সে ইহকালে ও পরকালে পুরস্কৃত হবে। আমরাও তাদেরকে পুরষ্কার দিব।’
নাকভি সর্বভারতীয় মুসলিম পার্সোনাল ল বোর্ডের সিনিয়র সহ-সভাপতি এবং বিশিষ্ট ধর্মীয় নেতা সৈয়দ কালবি সাদিকের পুত্র।
নাকভি বলেন, ‘নায়েক একজন ‘কাফির’(ধর্মহীন)। সে নবীকে অপমান করেছে এবং তার সন্ত্রাসীদের সঙ্গে কোন সম্পর্ক নেই বলে নিজেকে রক্ষার চেষ্টা করেছেন।’
শিয়া নেতার এই ঘোষণায় অপরাধমূলক ভীতিপ্রদর্শন রয়েছে, তাই ভারতীয় দণ্ডবিধির ৫০৬ ধারায় এটি একটি অপরাধ, যার ফলে তার সর্বোচ্চ সাত বছরের কারাদণ্ড হতে পারে। জেল বহন করে পরিমাণ। যদিও বিভিন্ন রাজনৈতিক ও ধর্মীয় নেতারা অতীতে অনুরূপ বিবৃতি করেছেন, তাদের কয়েক আইনের অধীনে শাস্তি হয়েছে।
ড. জাকির নায়েক একজন ডাক্তার ছিলেন পরবর্তীতে তিনি ইসলাম ধর্মের প্রচারক হিসেবে দেশ-বিদেশে অনেক বক্তব্য সম্প্রচার করেন। ওসামা বিন লাদেনের জন্য তার সমর্থন প্রকাশ করে তিনি বিতর্কিত হয়ে যান। কিন্তু ঢাকার হামলার পর থেকে তাকে নিয়ে আবার সমালোচনার ঝর বইতে শুরু করে।
গুলশানে হামলাকারীদের মাঝে দুইজন জাকির নায়েককে অনুসরণ করতেন। তার ভিডিও দেখে জঙ্গিরা অনুপ্রাণিত হয় বলে তার বিরুদ্ধে বিতর্ক শুরু হয়। তিনি তার বিরুদ্ধে সকল অভিযোগ অস্বীকার করেছেন এবং বলেছেন, বাংলাদেশে তার অসংখ্য অনুসারী রয়েছে, তাই বলে এই নয় যে তিনি জঙ্গিদের মদদদাতা।
ভারতীয় জনতা পার্টির সংখ্যালঘু সেলের সদস্যরা মঙ্গলবার তার কুশপুত্তলিকা পোড়ায়। ‘নায়েক যুবকদের বিভ্রান্ত এবং ইসলাম এবং তার মতবাদের অপব্যাখ্যা করছেন। তাকে খুব শীঘ্রই গ্রেফতার করা উচিৎ এবং তাঁর সংগঠনের তহবিলে কোথা থেকে টাকা জমা হচ্ছে সেই হিসাবে খতিয়ে দেখার জন্য একটি তদন্তের নির্দেশ দেওয়া উচিত’ বলে মনে করেন বিজেপির সংখ্যালঘু সেলের সদস্য শাফাত হোসেন।
আরেকজন সদস্য শামিল সামসি আরও বলেন, ‘নায়েক বারবার হিন্দু দেবদেবীদের অপমান করেছে এবং তাকেও তিরস্কার করা উচিৎ।’
কিন্তু জাকির নায়েকের নিজ ভক্তদের একটি সৈন্যবাহিনী হয়েছে। গত বছর সৌদি রাজা বাদশাহ ফয়সাল আন্তর্জাতিকভাবে ইসলাম প্রচারের কারণে ২,০০,০০০ টাকা নগদ পুরষ্কার দেন। নায়েকের পুত্র ফারেক, বর্তমানে সৌদি আরবে অধ্যয়নরত এবং তিনিও ইসলাম সম্পর্কে বক্তৃতা দেন।–সুত্র: হিন্দুস্তান টাইম্‌স।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: