বৃহস্পতিবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
লন্ডনে দ্বিতীয় জনপ্রিয় ভাষা বাংলা  » «   ঘুষের টাকাসহ হাতেনাতে সাব-রেজিস্ট্রার আটক  » «   আর কোনো হায়েনার দল বাংলার বুকে চেপে বসতে পারবে না  » «   সিলেটে মুক্তিযুদ্ধের পাণ্ডুলিপি সংগ্রহ করলেন প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী  » «   ফের জাতীয় পার্টির ঢাকা জেলা শাখার সভাপতি সালমা ইসলাম এমপি  » «   বিয়ানীবাজারে ৯৯০ পিস ইয়াবাসহ পেশাদার মাদক ব্যবসায়ী আটক  » «   আয়কর দিবস উপলক্ষে সিলেটে বর্ণাঢ্য র‌্যালি  » «   এবার শ্রীমঙ্গলে ট্রেনের ইঞ্জিনে আগুন  » «   বেলজিয়ামে মসজিদে তালা দেওয়ায় বাংলাদেশিদের প্রতিবাদ  » «   পায়রা উড়িয়ে জাতীয় পার্টির ঢাকা জেলা শাখার সম্মেলন উদ্বোধন  » «   ভারতের অর্থনীতির দুরবস্থা, জিডিপি কমে সাড়ে ৪ শতাংশ  » «   পায়রা উড়িয়ে সম্মেলন উদ্বোধন করলেন শেখ হাসিনা  » «   লন্ডন ব্রিজে আবারও সন্ত্রাসী হামলা, নিহত ২  » «   চীন থেকে মা-বাবার জন্য পেঁয়াজ নিয়ে এলেন মেয়ে  » «   রক্তে ভাসছে ইরাক, নিহত ৮২  » «  

জনপ্রিয় হচ্ছে অনলাইন গরুর হাট, মিলবে কসাইও



নিউজ ডেস্ক:: তথ্য প্রযুক্তির ছোঁয়া লেগেছে সব জায়গায়। ইন্টারনেটও এখন সহজলভ্য। এতে করে মানুষ অভ্যস্ত হচ্ছে ভার্চুয়াল জগতে। ফেসবুক, ভাইবার, হোয়াটসঅ্যাপসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোও হয়ে উঠেছে জীবনের অনুষঙ্গ। এক ক্লিকেই বিচরণ করছে ইন্টারনেটের বিশাল ভুবনে। কেনাকাটাও সারছেন অনলাইনে। ক্রেতা-বিক্রেতা দু’পক্ষই সময়ের সঙ্গে আপডেট করে নিয়েছেন নিজেদের।

এরই ধারাবাহিকতায় অনলাইনে কোরবানির গরুও বিকি-কিনি করছেন তারা। শুধু তাই-ই নয়, ক্রেতাদের বাড়ি পৌঁছে দেয়া থেকে শুরু করে দিচ্ছে কসাইয়ের সার্ভিসও। বিক্রেতা, সে হোক ব্যক্তিগত খামার বা প্রাতিষ্ঠানিক; ভার্চুয়াল হাটে তাদের উপস্থিতি বেড়েছে চোখে পড়ার মতো। এদিকে হাটে ধাক্কাধাক্কি, গরম, দালালদের উৎপাত এড়াতে এখন সৌখিন ক্রেতাদের পছন্দ এই ভার্চুয়াল কোরবানির পশুর হাট।

এছাড়া, বাসায় গরু রাখার জায়গার অভাবের কারণেই শহুরে ক্রেতারা অনলাইন ও খামার থেকে গরু কেনার দিকে ঝুঁকছেন। নির্বাচন করছেন গরু, ছাগল অর্থাৎ তাদের পছন্দের পশু। তারপর শুধু অর্ডার দিলেই হলো।

এ জন্য প্রথমেই সংশ্লিষ্ট কোম্পানির ওয়েবসাইট ভিজিট করতে হবে। সেখানে দেখা যাবে কোরবানির জন্য বিক্রির অপেক্ষায় বেশ কিছু গরুর ছবি, কোড নম্বর, দাম এবং কোনো কোনো ক্ষেত্রে এর ভিডিও। দাম ও সাইজ দেখে কেউ যদি কোনো পশু পছন্দ করেন তবে দিয়ে দিতে পারেন অনলাইনে বুকিং।

ফেসবুকে বা অনলাইনে ক্রেতারা শুধু গরু-ছাগলের ছবিই দেখতে পাচ্ছেন না, পশুর দাম, বয়স, ওজন, রঙ, জাতসহ বিস্তারিত উল্লেখ থাকছে। ক্রেতারা চাইলে নিজ চোখে পশু দেখতেও পারছেন। পছন্দ হলে পশুটি পৌঁছে দেয়া হচ্ছে ক্রেতার ঠিকানায়।

সংশ্লিষ্টরা জানান, এ পর্যন্ত যে ছবি দেখানো হয়েছে বাস্তবেই সে পশুটিই পেয়েছে ক্রেতারা। দেশে ২০১৩ সাল থেকে কোরবানিরে সময় অনলাইনে পশু বিক্রি শুরু হয়। প্রথম দিকে অনীহা থাকলেও বর্তমানে বেশ আগ্রহ নিয়ে অনলাইন থেকে গরু বা পশু কিনছে মানুষ। আবার বিদেশ থেকেও অর্ডার দিচ্ছেন অনেকে। বর্তমানে কয়েকটি অনলাইন শপ/ফেসবুক পেজে বসেছে পশুর হাট। দিচ্ছে নানা ধরনের অফার।

জাহাঙ্গীর হোসেন নামে এক প্রবাসী অনলাইনে গরুর বুকিং দিয়েছেন। কারণ বৃদ্ধ বাবা হাটে গিয়ে গরু কিনুক, চান না তিনি। আবার কসাই সার্ভিসও দিচ্ছে বিক্রেতা প্রতিষ্ঠান। তাই ঝামেলা এড়াতে অনলাইনকেই বেছে নিয়েছেন তিনি।

নিরাপদ ও পরিচ্ছন্ন কোরবানির অঙ্গীকার নিয়ে পঞ্চমবারের মতো অনলাইন কোরবানির হাটের আয়োজন করছে বেঙ্গল মিট। হালাল ও নিরাপদ কোরবানির প্রতিশ্রুতি দিচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি। এই অনলাইন হাট থেকে গ্রাহকরা ক্রয় করতে পারবেন সম্পূর্ণ স্টেরয়েড-ফ্রি ও রোগমুক্ত কোরবানির পশু।

কোরবানির পশু কেনার পাশাপাশি গ্রাহকরা আরো পাচ্ছেন পরিপূর্ণ কোরবানি সেবার মাধ্যমে বিশ্বমানের নিরাপদ খাদ্য নীতিমালা অনুযায়ী মাংস প্রসেসিং ও হোম ডেলিভারির সুবিধা।

বাড়িতে বসেই ঢাকা, চট্টগ্রাম ও সিলেট মহানগরের অধিবাসীরা এই অনলাইন কোরবানির হাটের মাধ্যমে পছন্দের গরু ডেলিভারি পাবেন। পরিপূর্ণ কোরবানি সেবা উপভোগ করতে পারবেন শুধু ঢাকা মহানগরীর ক্রেতারা।

এ বিষয়ে বেঙ্গল মিটের হেড অব রিটেইল মো. আসাদুজ্জামান খান বলেন, আমরা কঠোরভাবে পশুর স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলি। আমাদের নিজস্ব ভেটেরিনারি চিকিৎসক রয়েছে। অনলাইন হাট থেকে গ্রাহকরা ক্রয় করতে পারবেন সম্পূর্ণ স্টেরয়েড-ফ্রি ও রোগমুক্ত কোরবানির পশু। ওয়েবসাইটে পশুর জাত/ওজনসহ বিস্তারিত দেয়া থাকে। বিষয়টা এমন না যে কিনলাম আর বিক্রি করলাম। আমরা গ্রাহকদের বেস্ট সার্ভিসটা দিয়ে থাকি।

আসন্ন ঈদুল আজহা উপলক্ষে এরই মধ্যে দুইশ’র বেশি গরুর বুকিং হয়েছে বলে জানান তিনি। এক হাজারের বেশি গরু বিক্রি হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন আসাদুজ্জামান খান। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ব্যক্তিগতভাবে গরু বিক্রির বিজ্ঞাপন দিচ্ছেন অনেকেই। দাম/নাম/জাত/ওজন/বয়সসহ বিস্তারিত জানিয়ে অনলাইন প্লাটফর্ম বিক্রয় ডট কমে বিজ্ঞাপন দিচ্ছেন। তবে দেশের বিভিন্ন জায়গায় বন্যা হওয়াতে কোরবানির পশু বিক্রির বিজ্ঞাপন কম।

এদিকে, খামারিরা তাদের প্রতিষ্ঠানের ফেসবুক পেজে বিক্রি করছেন কোরবানির পশু। সাদিক এগ্রো খামার, শিকড় এগ্রো ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের মতো বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠান ফেসবুক পেজে কোরবানির পশু বিক্রি করছে। যেমন শিকড় এগ্রো ইন্ডাস্ট্রি লিমিটেডের ফেসবুক পেজে কোরবানির গরুর আপডেট দিচ্ছে প্রতিনিয়ত। গরুর ছবি, জাত, বয়স, সংখ্যা বিস্তারিত দেয়া আছে পেজ। বেশির ভাগ গরুই আবার সোল্ড বা বিক্রি দেখাচ্ছে।

আবার বেশ কিছু ফেসবুক পেজ/গ্রুপ রয়েছে। সেখানে তারা ঈদুল আজহার জন্য গরু বিক্রি করছে বা বিক্রয়যোগ্য গরুর তথ্য আদান-প্রদান করছে। এমনি একটি ফেসবুক গ্রুপ HUT (গরু কিনুন অনলাইনে)। তারা বিভিন্ন জায়গায় বা খামারে কোন গরু ভালো বা বৈশিষ্ট্যগুলোর তথ্য আদান-প্রদান করছে। এমন আরেকটি পেজ ‘ফেসবুকে গরুর হাট’। এরকম বেশ কয়েকটি পেজ রয়েছে কোরবানির পশু বিক্রির।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: