সোমবার, ১৯ অগাস্ট ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
প্রাথমিকের শিক্ষার্থীদের দুপুরের খাবারে মন্ত্রিসভার সায়  » «   নবম ওয়েজবোর্ডের গেজেট প্রকাশ নিয়ে আপিল বিভাগের সিদ্ধান্ত মঙ্গলবার  » «   পাঁচভাই রেস্টুরেন্টে প্রবাসীর ওপর হামলা: দুই ছাত্রলীগ কর্মী গ্রেপ্তার  » «   সিলেটসহ রেলের পূর্বাঞ্চলের নিরাপত্তা নিশ্চিতে হাইকোর্টের রুল  » «   বঙ্গবন্ধু হত্যায় জিয়া নয়, আ.লীগ নেতারা জড়িত : ফখরুল  » «   রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন: ‘শঙ্কা’ নিয়েই প্রস্তুত বাংলাদেশ  » «   সুনামগঞ্জে বিষপানে যুবকের আত্মহত্যা  » «   পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে ইভিনিং প্রোগ্রামে জমজমাট শিক্ষা বাণিজ্য  » «   ১০ দিনে ১৭৫ কোটি ডলারের রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন প্রবাসীরা  » «   আজ বাংলাদেশে আসছেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী, গুরুত্ব পাবে তিস্তা চুক্তি  » «   হবিগঞ্জে সড়ক দূর্ঘটনায় পুলিশ কনস্টেবলের মৃত্যু  » «   খুলনা থেকে সিলেট পর্যন্ত জমি ভারতকে ছেড়ে দিতে হবে বাংলাদেশকে!  » «   ফিলিস্তিনে ইসরাইলের গুলি ও রকেট হামলা  » «   রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরু যেকোনো দিন: পররাষ্ট্র সচিব  » «   গুগলে ‘ভিখারি’ লিখলেই আসছে ইমরান খানের ছবি  » «  

ছাত্রলীগ নেতার গাড়ির কাগজ দেখতে চাওয়ায় ৪ পুলিশ ক্লোজড



নিউজ ডেস্ক:: দিনাজপুরের বিরলে উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি সারোয়ারুল ইসলাম রাসেলের গাড়ির কাগজ দেখতে চাওয়ায় এক এসআই ও তিন পুলিশ কনস্টেবলকে প্রত্যাহার (ক্লোজ) করা হয়েছে। গতকাল শনিবার বিকেলে বিরল থানার সামনে এ ঘটনা ঘটে।

ক্লোজ হওয়া চার পুলিশ সদস্য হলেন- বিরল থানার এসআই নজরুল ইসলাম এবং কনস্টেবল বাবুল হক, সাগর আহম্মেদ ও মিজানুর রহমান। দিনাজপুর সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুশান্ত সরকার এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

বিরল থানার ওসি এ টি এম গোলাম রসুল জানান,গতকাল শনিবার বিকেলে বিরল থানা গেটের সামনে মোটরসাইকেলের কাগজপত্র যাচাই চলছিল। এ সময় বিরল উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সারোয়ারুল ইসলাম রাসেলের মোটরসাইকেলের গতিরোধ করে কাগজপত্র দেখতে চায় পুলিশ। এ সময় পুলিশের সঙ্গে রাসেলের ধাক্কাধাক্কি হয়। পরে কিছু ছাত্রলীগ নেতাকর্মী একত্রিত হয়ে থানা গেটের সামনে অবস্থান নিয়ে পুলিশকে উদ্দেশ করে বিভিন্ন স্লোগান দিতে থাকে।

এ ঘটনার পর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) সুশান্ত সরকার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। পরে সন্ধ্যা ৬টার দিকে সংশ্লিষ্ট চার পুলিশ সদস্যকে প্রত্যাহার করে দিনাজপুর পুলিশ লাইনসে সংযুক্ত করা হয়।

এ ব্যাপারে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সারোয়ারুল ইসলাম রাসেল বলেন, ‘গাড়ির কাগজ দেখার নামে আমাকে হয়রানি ও লাঞ্ছিত করা হয়েছে।’

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: