সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ২৯ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
আবরার হত্যায় এবার মুজাহিদের স্বীকারোক্তি  » «   তিন সপ্তাহ ধরে কার্যালয়ে যান না যুবলীগ চেয়ারম্যান  » «   নোবেল পুরস্কার র‌্যাব-পুলিশের হাতে নয় : রিজভী  » «   বুরকিনা ফাসোতে মসজিদে ঢুকে ১৬ মুসল্লিকে গুলি করে হত্যা  » «   হবিগঞ্জে পাচারকালে ১২শ’ কেজি রসুন জব্দ  » «   সৌদি-ইরান উত্তেজনা মধ্যস্ততায় তেহরানের পথে ইমরান খান  » «   ঢাবি ‘খ’ ইউনিটের ফল প্রকাশ, ৭৬ শতাংশ ফেল  » «   সরকার ছাত্র রাজনীতি বন্ধের পক্ষে নয়: ওবায়দুল কাদের  » «   ৮ দিন পর ফিরলেন আমিরাতের প্রথম মহাকাশচারী  » «   শ্রীমঙ্গলে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ডাকাত দলের সদস্য নিহত  » «   ছাত্র-শিক্ষক রাজনীতি নিষিদ্ধ চেয়ে হাইকোর্টে রিট  » «   টাইফুনে লন্ডভন্ড জাপান, নিহত বেড়ে ১৯  » «   আবরারের খুনিকে কারাগারে গণপিটুনি  » «   রাজীবের মৃত্যু: ১০ লাখ টাকা দেওয়ার নির্দেশ স্বজন পরিবহনকে  » «   আমি বহু ইস্যুতেই নোবেল পাই, ওরা দেয় না: ট্রাম্প  » «  

চাপে আছেন মুসা, দেশ ত্যাগে নিষেধাজ্ঞা



নিউজ ডেস্ক::পূর্বের সব সময়ের চেয়ে চাপে আছেন বিতর্কিত ব্যবসায়ী মুসা বিন শমসের। চলতি মাসের (সেপ্টেম্বর) যেকোন সময় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাকে ডাকা হবে বলে জানিয়েছেন শুল্ক গোয়েন্দা সূত্র।

দিন যত যাচ্ছে এ ব্যবসায়ীর মামলার চাপও তত বাড়ছে। মামলার তদন্তের স্বার্থে মুসার দেশ ত্যাগে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। তিনি চাইলেও এখন আর দেশ থেকে পালাতে পারবেন না। এমনকি তার পরিবারের উপরও গোয়েন্দা নজরদারি রয়েছে বলে জানা গেছে।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, মুসা বিন শমসেরের বিরুদ্ধে অবৈধ সম্পদ অর্জন এবং বৈধ কাগজপত্র ছাড়া বিলাসবহুল গাড়ি ক্রয়সহ একাধিক মামলা রয়েছে। মামলার তদন্ত করছে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর। এ তদন্তের স্বার্থে তাকে যে কোন সময় ডাকা হতে পারে। এ বছরের মার্চে বিতর্কিত এ ব্যবসায়ীর শুল্ক ফাঁকি দিয়ে চালানো রেঞ্জ রোভার গাড়ি জব্দ করে শুল্ক গোয়েন্দা অধিদপ্তর।

গত বছর সম্পদের মিথ্যা তথ্য দেয়ার অভিযোগে বিতর্কিত ব্যবসায়ী মুসা বিন শমসেরের বিরুদ্ধে মামলা করেন দুর্নীতি দমন কমিশনের উপ-পরিচালক মীর জয়নুল আবেদিন শিবলী। অবৈধ সম্পদ ও মিথ্যা তথ্য দেয়ায় দুদক আইনের ২৬ (১) ও (২) ধারায় মামলা করা হয়।

এদিকে সুইস ব্যাংকে তার (মুসা) ৯৬ হাজার কোটি টাকার সমপরিমাণ বৈদেশিক মুদ্রা আছে। এ টাকা আয়ের উৎস জানতে চাওয়া হয়েছিল। গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা শাহরিয়ার মাহমুদ এ ব্যাপারে মুসাকে চিঠি পাঠিয়েছিলেন কিন্তু এক মাস হয়ে গেলও চিঠির কোনো জবাব পাওয়া যায়নি।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: