বুধবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৭ খ্রীষ্টাব্দ | ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
পত্নীতলায় বিজয় দিবস আন্ত:ইউনিয়ন ভলিবল টুর্ণামেন্টের উদ্বোধন  » «   পত্নীতলার প্রিয় মুখ বিএফডিসি, এর তরুন কমেডিয়ান ইমরান হাসোর আজ জন্মদিন  » «   পত্নীতলায় বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে ক্যাম্পেইন অনুষ্ঠিত  » «   রাজশাহীতে ৩ সাংবাদিককে পেটাল ছাত্রলীগ  » «   খালেদার দুর্নীতি নিয়ে ইনুর ওপেন চ্যালেঞ্জ  » «   ফেসবুকে আশঙ্কাজনকহারে বাড়ছে নগ্ন ভিডিও-ছবি  » «   অতিরিক্ত সচিব পদে পদোন্নতি ১২৮ কর্মকর্তার  » «   প্রধানমন্ত্রীর বিমানে ত্রুটি : সব আসামির জামিন  » «   ভরিতে স্বর্ণের দাম কমলো ১২৮২ টাকা  » «   ১৪ ও ১৬ ডিসেম্বর উপলক্ষে আওয়ামী লীগের কর্মসূচি  » «   এপির অনুসন্ধান: ধর্ষণ থেকে রেহাই মেলেনি ৯ বছরের রোহিঙ্গা শিশুরও  » «   সীতাকুণ্ডে বিরল প্রজাতির পেঁচা ধরা পড়ল  » «   ‘ভয় পাওয়ার কিছু নেই’  » «   হাইকোর্টের রুল বৈবাহিক অবস্থা লিখতে বাধ্য করা কেন অবৈধ নয়  » «   অবশেষে ফাইনালে রংপুর  » «  

চবির বি-১ ইউনিটের প্রশ্নেও ‘ঝাপসা’ জালিয়াতি



চবির বি-১ ইউনিটের প্রশ্নেও ‘ঝাপসা’ জালিয়াতি

ভর্তি পরীক্ষায় প্রশ্নপত্রে জালিয়াতির অভিযোগ থেকে  বের হতে পারছে না চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি)।  সি-৩ ইউনিটের ‘ঝাপসা’ জালিয়াতির পর কলা ও মানববিদ্যা অনুষদের অধীন  বি-১ ইউনিটে ফের একই রকম জালিয়াতির অভিযোগ উঠেছে।

পরীক্ষায় অংশ নেয়া একাধিক শিক্ষার্থীর অভিযোগের ভিত্তিতে বি-১ ইউনিটের সেট -২ এর প্রশ্ন যাচাই বাছাই করে দেখা যায়, সম্ভাব্য ৫টি উত্তরের মধ্যে সঠিক উত্তরটি তুলনামূলক ঝাপসা।  শুধু যে একটি প্রশ্নের উত্তরে এমন তা নয়। ধারাবাহিকভাবে ১০০টি প্রশ্নের সঠিক উত্তর সুকৌশলে এমন ঝাপসা করে দেয়া হয়। জালিয়াতি চক্রটি  এতোটাই সুদক্ষ যে স্বাভাবিকভাবে বিষয়টি সবার চোখে পড়বে না। একটু খেয়াল করলেই বিষয়টি চোখে পড়বে।

বি-১ ইউনিটে পরীক্ষায় অংশ নেয়া রাফসান মাহমুদ নামের এক শিক্ষার্থী জাগো নিউজকে বলেন, পরীক্ষার হলে থাকার সময় মনে করেছি এটা ছাপানোর কোনো ভুল। পরে প্রতিটি প্রশ্নের উত্তর মিলিয়ে দেখার পর বিষয়টি বুঝতে পারি। ঠিক একই রকম অভিযোগ করে উক্ত ইউনিটে পরীক্ষা দেয়া একাধিক শিক্ষার্থী।

এদিকে, গত ২৬ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হওয়া বি-১ ইউনিটের পরীক্ষায় ১০ হাজার ৮৩৫ জন শিক্ষার্থী উত্তীর্ণ হয়। সোমবার এই ইউনিটের উত্তীর্ণ হওয়া শিক্ষার্থীদের সাক্ষাতকার অনুষ্ঠিত হয়।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে উপাচার্য প্রফেসর ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরীর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি এই প্রতিবেদককে বলেন, বিষয়টি নিয়ে তুমি আমার অফিসে এসো। এসব বিষয় মোবাইলে আলোচনা করা সম্ভব নয়।

একই বিষয়ে কলা ও মানবিদ্যা অনুষদের ডিন ও ভর্তি কমিটির সভাপতি প্রফেসর ড. সেকান্দর চৌধুরী জাগো নিউজকে বলেন, এতো দিন পর কীসের অভিযোগ? আমাদের কাছে কেউ কোনো অভিযোগ দেয় নি। তাছাড়া আজকে বি-১ ইউনিটের সাক্ষাতকার অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ ধরনের অভিযোগ এখন উঠার কোনো প্রশ্নই আসে না।`

সম্প্রতি সি-৩ ইউনিটের প্রশ্নপত্রেও উত্তর ঝাপসা থাকার অভিযোগ উঠার পর বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সাক্ষাতকার স্থগিতসহ দুই সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করে।

 

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: