রবিবার, ১৬ জুন ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ২ আষাঢ় ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
বিকল্প কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা না থাকায় ভালো নেই সুনামগঞ্জের হাওরাঞ্চলের মানুষ  » «   সীমান্তে বাংলাদেশি হত্যা ‘অনাকাঙ্ক্ষিত মৃত্যু’: বিএসএফ মহাপরিচালক  » «   সর্বোচ্চ চেষ্টা’ করেও ওসি মোয়াজ্জেমকে ধরতে পারছে না পুলিশ  » «   পৃথিবীর ইতিহাসে সর্বোচ্চ তাপমাত্রার রেকর্ড কুয়েতে  » «   রোহিঙ্গা সংকট সমাধান না হলে অস্থিতিশীল হবে এশিয়া: রাষ্ট্রপতি  » «   অবশেষে ইমরান-মোদির সৌজন্য সাক্ষাৎ  » «   এমপিও পাবেন মাদরাসার সাড়ে ২১ হাজার শিক্ষক  » «   বাজেট সমালোচকদের যে গল্প শোনালেন প্রধানমন্ত্রী  » «   সুনামগঞ্জে পরিবহন সেক্টরে নৈরাজ্য ঠেকাতে প্রতিবাদ  » «   পশ্চিমবঙ্গে থাকতে হলে বাংলায় কথা বলতে হবে: মমতা  » «   ইকোসকে বিপুল ভোটে জয় পেল বাংলাদেশ  » «   মোবাইলে ১০০ টাকার কথা বললে ২৭ টাকা কেটে নেবে সরকার  » «   সাক্ষ্য দিতে চাওয়ায় প্রাণটাই কেড়ে নিল আসামিরা  » «   পশ্চিমবঙ্গকে বাংলাদেশ নয়; গুজরাট বানানো ভাল : দিলীপ ঘোষ  » «   বাজেটের প্রভাব: দাম বাড়বে যেসব জিনিসের  » «  

চকরিয়ায় হাতি হত্যা, আসামির বাড়িতে গভীর রাতে হাতির পাল!



14. hathiনিউজ ডেস্ক::
চকরিয়ায় বন্যহাতি হত্যার ঘটনায় মামলা হলেও এখনো কোন আসামি গ্রেফতার হয়নি। তবে আসামি গ্রেফতারে পুলিশের বদলে গভীর রাতে আসামির বাড়িতে হানা দিয়েছে একটি হাতির পাল। এ ঘটনায় এলাকার লোকজনের মাঝে উদ্বেগ-উৎকন্ঠা দেখা দিয়েছে।

এলাকাবাসি জানায়, উপজেলার দক্ষিন সুরাজপুর এলাকায় গত ১৫ ডিসেম্বর বিদ্যুৎ তারে জড়িয়ে দুর্বৃত্তরা একটি বন্যহাতিকে হত্যা করে। পরে মৃতদেহটি এলাকার তামাক ক্ষেতে মাটি চাপা দেয়। মাটি চাপা দেয়ার দুইদিন পর বন্যহাতির একটি পাল গভীর রাতে মাটি থেকে মৃত হাতির দেহটি উত্তোলন করেন। ১৭ ডিসেম্বর রাতে একই চক্র উত্তোলনকৃত হাতির দেহটি ফের মাটি চাপা দেন। এ ঘটনার খবর পেয়ে ১৯ ডিসেম্বর সকালে ফাসিয়াখালী রেঞ্জের বনকর্মীরা তামাক ক্ষেতের মাটির ভেতর থেকে বন্যহাতির মরদেহটি উত্তোলন করেন। এ ঘটনায় কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগের চকরিয়া উপজেলার মানিকপুর বনবিট কর্মকর্তা ফরিদ আহমদ বাদি হয়ে ২০ ডিসেম্বর থানায় পাঁচজনকে আসামি করে একটি মামলা রুজু করেন।

মামলায় আসামি করা হয়, দক্ষিন সুরাজপুরের হাজী নুরুল কবিরের ছেলে জসিম উদ্দিন, ছৈয়দ নুর প্রকাশ লেদুর ছেলে আবু তৈয়ব, দক্ষিন কাকারা এলাকার ফকির মোহাম্মদের ছেলে, নুরুল আলম, নুরুন্নবী এবং আবদুল মান্নানকে।
এলাকাবাসি জানায়, মামলা হলেও আসামিদের মধ্যে কাউকে পুলিশ এখনো গ্রেফতার করতে পারেনি। ফলে পুলিশের বদলে আসামি গ্রেফতারে তাদের বাড়িতে হানা দিচ্ছে বন্যহাতির পাল। গত ২৮ ডিসেম্বর রাতে বন্যহাতির একটি পাল মামলার আসামি আবু তৈয়বের বাড়িতে হানা দেয়। ওই সময় বাড়ির লোকজন ভয়ে পালিয়ে যায়।

স্থানীয় সুরাজপুর-মানিকপুর ইউপি চেয়ারম্যান আজিমুল হক আজিম জানান, তাকে এলাকার লোকজন জানিয়েছেন মামলার আসামি তৈয়বের বাড়িতে হাতির পাল হানা দিয়েছে। এঘটনার পর এলাকার লোকজনের মাঝে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে।
চকরিয়া থানার ওসি প্রভাষ চন্দ্র ধর বলেন, বন্যহাতির হত্যা মামলার আসামি গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। ঘটনার পর অভিযুক্তরা পালিয়ে থাকায় গ্রেফতার করতে একটু বিলম্ব হচ্ছে।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: