বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৩ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
৬০ নম্বরের পরীক্ষা দিয়ে হতে হবে ছাত্রলীগ নেতা  » «   মিয়ানমার তাদের লোকদের ফেরত নিতে রাজি হয়েছে : পররাষ্ট্রমন্ত্রী  » «   রাজশাহীতে মা-ছেলে হত্যায় আ.লীগ নেতাসহ ৩ জনের মৃত্যুদণ্ড  » «   অবশেষে সেই বাংলাদেশি যুবকের লাশ ফেরত দিল বিএসএফ  » «   নিউইয়র্কে হবে শেখ হাসিনা-বিল গেটস বৈঠক  » «   ‘এবার এক দেশ, এক দলের’ ইঙ্গিত বিজেপি সভাপতির  » «   রাতে আটক, ভোরে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত  » «   জগন্নাথপুরে র‌্যাবের জালে আটকা পড়লেন ভূয়া ডাক্তার  » «   এবার ভিসি ফারজানার বিরুদ্ধে ভয়াবহ অভিযোগ  » «   রংপুর-৩ উপনির্বাচন: লাঙ্গলের ঘাঁটিতে আসিফের দিকেই ভোটের হাওয়া  » «   রিফাত হত্যা: যা বললেন সেই রিকশাচালক  » «   চতুর্থ ড্রিমলাইনার ‘রাজহংস’ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী  » «   সুনামগঞ্জে অজ্ঞাতনামা যুবকের মরদেহ উদ্ধার  » «   বন্দরবাজার থেকে ইয়াবাসহ দুই মাদক ব্যবসায়ী আটক  » «   আফগান প্রেসিডেন্টকে লক্ষ্য করে বোমা হামলা, নিহত ২৪  » «  

গ্রেনেড হামলায় খালেদা-তারেক জড়িত



1. hasinaনিউজ ডেস্ক::
২১ শে আগস্টের ভয়াবহ গ্রেনেড হামলায় আওয়ামী লীগকে নিশ্চিহ্ন করার চেষ্টা করা হয়েছিল বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রী অভিযোগ করে বলেন, ২০০৪ সালের এ ঘটনার সাথে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও তার ছেলে তারেক রহমান জড়িত এতে কোন সন্দেহ নেই।

আজ শুক্রবার (২১ শে আগস্ট) নিহতদের স্মরণে বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে স্থাপিত অন্থায়ী বেদীতে শ্রদ্ধা জানাতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

ভয়াল ২১ আগস্ট আজ। ২০০৪ সালের এই দিনে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের সমাবেশে বিভীষিকাময় গ্রেনেড হামলায় প্রাণ হারান আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা আইভি রহমানসহ ২৪ জন। তবে প্রাণে বেঁচে গিয়েছেন তৎকালীন বিরোধী দলীয় নেত্রী ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

গ্রেনেড হামলার বিচার প্রসঙ্গে আওয়ামী সভানেত্রী বলেন, ২১ শে আগস্ট যারা গ্রেনেড হামলা করেছিল তাদের সকলের বিচার করা হবে। অপরাধীদের বিচার চলছে, সাজাও হবে। কাউকেই ছাড় দেওয়া হবে না।

সেই হামলার স্মৃতিচারণ করে শেখ হাসিনা বলেন, সেদিন আমার জন্য অনেক নেতাকর্মী প্রান দিয়েছেন। সেদিনের একটা ঘটনা এখনো আমার চোখের সামনে ভাসে। হানিফ ভাইয়ের(মেয়র হানিফ) মাথা দিয়ে রক্ত ঝড়ছিল। রক্ত এসে আমার উপর পড়ছিল। তিনি আমাকে বাঁচালেন। নিজের জীবন দিয়ে গেলেন। সেদিন আমার চশমাটা হাড়িয়ে গিয়েছিল।

হামলাকারীরা যে দলেরই হোক না কেন কোন ক্রমেই ছাড় দেওয়া হবে না বলে জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার অন্যায়কে কখনোই প্রশ্রয় দেয় নি। আগামীতেও দিবে না।

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার জন্য তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া ও তার পুত্র তারেক জিয়া কে দায়ী করে তিনি বলেন, এরা দেশে খুনের রাজত্ব কায়েম করতে চায়। হাওয়া ভবন তৈরি করে আর জজ মিয়া নাটক সাজিয়ে সেই ঘটনাকে ধামাচাপা দেওয়ার অপচেষ্টা করেছিল তারা। কিন্ত পাপের শাস্তি তাদের পেতেই হবে।

আমেরিকার মানবাধিকারের প্রতি ধিক্কার জানিয়ে বঙ্গবন্ধু কন্যা বলেন, তারা মানবাধিকারের কথা বলে। অথচ বঙ্গবন্ধুর খুনিদের আশ্রয় দিয়ে রেখেছে। এটা কোন মানবাধিকারের মধ্যে পরে?

সভায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য বাণিজ্য মন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, আমির হোসেন আমু, সুরঞ্জিত সেন গুপ্ত, কৃষি মন্ত্রী মতিয়া চৌধুরি প্রমুখ।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: