সোমবার, ১৯ অগাস্ট ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্থদের পাশে থাকবে সরকার: কাদের  » «   থানায় ‘গণধর্ষণের’ শিকার সেই নারীর জামিন নামঞ্জুর  » «   মিন্নির স্বীকারোক্তির আগে নাকি পরে এসপির ব্রিফিং : হাইকোর্ট  » «   প্রাথমিকের শিক্ষার্থীদের দুপুরের খাবারে মন্ত্রিসভার সায়  » «   নবম ওয়েজবোর্ডের গেজেট প্রকাশ নিয়ে আপিল বিভাগের সিদ্ধান্ত মঙ্গলবার  » «   পাঁচভাই রেস্টুরেন্টে প্রবাসীর ওপর হামলা: দুই ছাত্রলীগ কর্মী গ্রেপ্তার  » «   সিলেটসহ রেলের পূর্বাঞ্চলের নিরাপত্তা নিশ্চিতে হাইকোর্টের রুল  » «   বঙ্গবন্ধু হত্যায় জিয়া নয়, আ.লীগ নেতারা জড়িত : ফখরুল  » «   রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন: ‘শঙ্কা’ নিয়েই প্রস্তুত বাংলাদেশ  » «   সুনামগঞ্জে বিষপানে যুবকের আত্মহত্যা  » «   পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে ইভিনিং প্রোগ্রামে জমজমাট শিক্ষা বাণিজ্য  » «   ১০ দিনে ১৭৫ কোটি ডলারের রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন প্রবাসীরা  » «   আজ বাংলাদেশে আসছেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী, গুরুত্ব পাবে তিস্তা চুক্তি  » «   হবিগঞ্জে সড়ক দূর্ঘটনায় পুলিশ কনস্টেবলের মৃত্যু  » «   খুলনা থেকে সিলেট পর্যন্ত জমি ভারতকে ছেড়ে দিতে হবে বাংলাদেশকে!  » «  

গ্রিল খুলে ঘুমন্ত মা-বাবার বিছানা থেকে শিশুকে চুরি!



নিউজ ডেস্ক:: বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে জানালার গ্রিল খুলে ঘুমন্ত মা-বাবার কোলের মধ্য থেকে আড়াই মাস বয়সী শিশুকে নিয়ে গেছে দুর্বৃত্তরা। রবিবার দিবাগত রাত ৩ টার দিকে বিশারীঘাটা গ্রামে লোমহর্ষক এ ঘটনাটি ঘটে।

দুর্বৃত্তরা দলিল লেখক সোহাগ হাওলাদারের আড়াই মাস বয়সী ছেলে আব্দুল্লাহকে নিয়ে গেছে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে থানা পুলিশ।এছাড়া এ ঘটনার পর এলাকাবাসী ওই বাড়িতে ভিড় করেছে।এদিকে শিশুটির মুক্তির জন্য মোবাইল ফোনে দশ লাখ টাকা ‘মুক্তিপণ’ দাবি করেছে দুর্বৃত্তরা।

সোহাগ বলেন, রাত ৩টার দিকে অসুস্থ ছেলেকে ওষুধ খাওয়াই। এর পরে আমাদের অপর সন্তান সুমাইয়া ও আব্দুল্লাহকে নিয়ে আমরা ঘুমিয়ে পড়ি। রাত সাড়ে ৪টায় জেগে দেখি বিছানায় আমার সন্তান আব্দুল্লাহ নেই। আমার মোবাইল ফোনটিও নেই। নেমে দেখি জানালার গ্রীল খোলা, দরজা খোলা। ঘরের মধ্যে লোক টের পেয়েছি, ওঠার চেষ্টা করেছি, কিন্তু পারিনি। ঘরের অন্যান্য কক্ষের সকল দরজা বাহির থেকে আটকিয়ে রেখেছিল দুর্বৃত্তরা।

সোহাগের স্ত্রী রেশমা বেগম বলেন, ওষুধ খাওয়ানোর পরে আব্দুল্লাহকে বুকের দুধ খাওয়াতে খাওয়াতে আমরা ঘুমিয়ে পড়ি। সে আমার কোলের মধ্যেই ছিল। কিভাবে নিয়ে গেছে টের পাইনি।

এ বিষয়ে মোরেলগঞ্জ থানার ওসি কেএম আজিজুল ইসলাম বলেন, শিশুটিকে উদ্ধারের জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। কারা, কি কারণে এ ঘটনা ঘটিয়েছে তা এই মুহূর্তে স্পষ্ট করে বলা যাচ্ছে না।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: