বৃহস্পতিবার, ২৭ জুন ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১৩ আষাঢ় ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
দুই প্রকৌশলীকে পেটালেন আওয়ামী লীগ-ছাত্রলীগ নেতারা  » «   সিলেটে বিদেশী মদসহ ৪ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার  » «   রেল লাইন সংস্কারের দাবিতে শাহবাগে সিলেটি শিক্ষার্থীদের মানববন্ধবন  » «   আসামে নাগরিক তালিকা থেকে বাদ পড়লেন আরও এক লাখ  » «   বিশ্বনাথে ডাকাতের সঙ্গে গোলাগুলি, ৫ পুলিশ গুলিবিদ্ধ  » «   প্রাথমিকে চলতি দায়িত্বপ্রাপ্ত শিক্ষকদের জন্য সুখবর  » «   স্বাস্থ্যসনদ পেলেন সাড়ে ৬২ হাজার হজ গমনেচ্ছু  » «   হবিগঞ্জে পিস্তল ঠেকিয়ে মোটরসাইকেল ছিনতাই  » «   সাংবাদিকদের বিক্ষোভ কর্মসূচি, ক্ষমা চাইতে হবে দুদককে  » «   যুক্তরাষ্ট্রে যাবার সময় নদীতে ডুবলো শরণার্থী বাবা-মেয়ে  » «   দেশে ফিরছেন সাগরে ভাসা আরও ২৪ বাংলাদেশি  » «   অস্ট্রেলিয়ায় আগুনে পুড়ে ৩ ভাই-বোন নিহত  » «   অবশেষে বরখাস্ত ডিআইজি মিজান  » «   সরকারি চাকরিতে ডোপটেস্ট বাধ্যতামূলক করা হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী  » «   ঘুষ নেয়ার ভিডিও করায় সাংবাদিককে পেটাল পুলিশ, ৪ পুলিশ সদস্য ক্লোজড  » «  

গোসলের ভিডিও প্রকাশের ভয় দেখিয়ে স্কুলছাত্রীকে কুপ্রস্তাব



images-1সুনামগঞ্জে মুঠোফোনে ধারণ করা স্কুলছাত্রীর গোসলের ভিডিও প্রকাশের ভয় দেখিয়ে কুপ্রস্তাবের দেয়ার অভিযোগ উঠেছে এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় মঙ্গলবার পর্যন্ত ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি।

অভিযুক্ত তাহিরপুরের সীমান্ত সংলগ্ন টেকেরঘাট চুনাপাথর খনি মাধ্যমিক বিদ্যালয় অ্যান্ড কলেজের সহকারী শিক্ষক আব্দুল লতিফ (৩৭)। তিনি নেত্রকোনার কলমাকান্দা উপজেলার বালুকান্দা গ্রামের মমতাজ আলীর ছেলে।

এ ঘটনায় ওই স্কুলছাত্রীর বাবা সংশ্লিষ্ট বিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

জানা গেছে, গত ৮ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার স্কুল সংলগ্ন পাশের বাসায় ওই স্কুলছাত্রী নলকূপে গোসল করতে যান। এসময় স্কুলশিক্ষক আব্দুল লতিফ পার্শ্ববর্তী একটি ঘর থেকে ওই শিক্ষার্থীর গোসলের দৃশ্য গোপনে মোবাইলে ধারণ করেন।

বিষয়টি আঁচ করতে পারলে তাকে কু-প্রস্তাব দেয়া হয়। ওই দিনই বিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ বরাবরে ওই স্কুলছাত্রীর বাবা একটি লিখিত অভিযোগ দেন।

এ ব্যাপারে টেকেরঘাট চুনাপাথর খনি মাধ্যমিক বিদ্যালয় অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ খায়রুল আলম মঙ্গলবার দুপুরে  অভিযোগের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় তিন সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তারা সাত দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের পর আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: