রবিবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ ফাল্গুন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
চাকরিতে প্রবেশের বয়স ৩৫ করার খবরটি ‘টোটালি ফলস’  » «   শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে: খাদ্যমন্ত্রী  » «   জামায়াত নতুন নামে পুরনো চরিত্রে ফিরে আসে কিনা তা ভাবনার বিষয়  » «   সুস্থ থাকলে শেখ হাসিনার বিকল্প দরকার নেই  » «   নন্দলালের ভূমিকায় অবতীর্ণ হবেন না: ইসি রফিকুল  » «   এমপি হিসেবে শপথ নিলেন সৈয়দ আশরাফের বোন ডা. জাকিয়া  » «   রোহিঙ্গাদের নৃশংসতার অভিযোগ প্রত্যাখ্যান মিয়ানমার সেনাপ্রধানের!  » «   যেসব শর্তে আত্মসমর্পণ করছেন ১০২ ইয়াবা ব্যবসায়ী  » «   নাসা আ্যপস চ্যালেঞ্জে বিশ্বসেরা শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়  » «   বাংলা একাডেমিতে আল মাহমুদের মরদেহ, শ্রদ্ধা নিবেদন  » «   আখেরি মোনাজাতের মধ্যদিয়ে জোবায়ের অনুসারীদের ইজতেমা শেষ  » «   যেভাবে ভারতীয় সেনাবহরে হামলা চালায় জঙ্গিরা  » «   রোহিঙ্গা নিপীড়ন তদন্তে মার্চে বাংলাদেশ আসছে আইসিসি প্রতিনিধিদল  » «   ব্যাটিং ব্যর্থতায় সিরিজ হার বাংলাদেশের  » «   যুক্তরাষ্ট্রে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করলেন ট্রাম্প  » «  

গোসলের ভিডিও প্রকাশের ভয় দেখিয়ে স্কুলছাত্রীকে কুপ্রস্তাব



images-1সুনামগঞ্জে মুঠোফোনে ধারণ করা স্কুলছাত্রীর গোসলের ভিডিও প্রকাশের ভয় দেখিয়ে কুপ্রস্তাবের দেয়ার অভিযোগ উঠেছে এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় মঙ্গলবার পর্যন্ত ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি।

অভিযুক্ত তাহিরপুরের সীমান্ত সংলগ্ন টেকেরঘাট চুনাপাথর খনি মাধ্যমিক বিদ্যালয় অ্যান্ড কলেজের সহকারী শিক্ষক আব্দুল লতিফ (৩৭)। তিনি নেত্রকোনার কলমাকান্দা উপজেলার বালুকান্দা গ্রামের মমতাজ আলীর ছেলে।

এ ঘটনায় ওই স্কুলছাত্রীর বাবা সংশ্লিষ্ট বিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

জানা গেছে, গত ৮ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার স্কুল সংলগ্ন পাশের বাসায় ওই স্কুলছাত্রী নলকূপে গোসল করতে যান। এসময় স্কুলশিক্ষক আব্দুল লতিফ পার্শ্ববর্তী একটি ঘর থেকে ওই শিক্ষার্থীর গোসলের দৃশ্য গোপনে মোবাইলে ধারণ করেন।

বিষয়টি আঁচ করতে পারলে তাকে কু-প্রস্তাব দেয়া হয়। ওই দিনই বিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ বরাবরে ওই স্কুলছাত্রীর বাবা একটি লিখিত অভিযোগ দেন।

এ ব্যাপারে টেকেরঘাট চুনাপাথর খনি মাধ্যমিক বিদ্যালয় অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ খায়রুল আলম মঙ্গলবার দুপুরে  অভিযোগের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় তিন সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তারা সাত দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের পর আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: