সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ১৪ ফাল্গুন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
রেল স্টেশনে স্ক্যানার বসানোর সুপারিশ  » «   পাবনায় আব্দুর রব বগা মিয়ার ৪৫তম মৃত্যুবার্ষিক উপলক্ষে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত  » «   মির্জা ফখরুলের নেতৃত্বে সুপ্রিম কোর্টে বৈঠক নয় চা খাওয়া হয়েছে  » «   ব্যাগের ভেতরে তরুণীর লাশ  » «   শেখ হাসিনা জাতীয় যুব উন্নয়ন ইনস্টিটিউট বিল পাস  » «   বাড়ানো হয়েছে মুক্তিযোদ্ধাদের মাসিক ভাতা  » «   খালেদার শুনানি, যা বললেন অ্যাটর্নি জেনারেল  » «   স্ত্রীর মর্যাদার দাবিতে সন্তানসহ অবস্থান  » «   বিচারিক আদালতে খালেদার নথি  » «   শান্তিপূর্ণ আন্দোলন ঘরে করুন, রাস্তায় কেন : কাদের  » «   বাহুবল থেকে নিখোঁজ ৩ মাদ্রাসা ছাত্র ফেনীতে উদ্ধার  » «   খালেদার সঙ্গে দেখা করতে গেছেন ৪ স্বজন  » «   মাদকের বিরুদ্ধে তথ্য অভিযান শুরু ১ মার্চ  » «   যুবককে ডেকে নিয়ে হত্যার ঘটনায় মামলা, গ্রেফতার ১  » «   সোমবার রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় শ্রীদেবীর শেষকৃত্য  » «  

‘গোমাংস খেতে হলে নিজেদের দেশে খান’



আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: বিদেশি পর্যটকদের উদ্দেশ্যে ভারতের নতুন পর্যটনমন্ত্রী আলফোন্স কান্নানথানম বলেছেন, গোমাংস যদি খেতে হয় তবে তা নিজেদের দেশে খান এবং তারপর ভারতে আসুন। উড়িষার ভুবনেশ্বরে ৩৩তম ইন্ডিয়ান অ্যাসিসেয়শন অফ ট্যুর অপারেটরস’এর সম্মেলনের ফাঁকে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

গোরক্ষকদের তাণ্ডব ও ভারতের একাধিক রাজ্যে গোমাংস খাওয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞার ফলে দেশটির পর্যটন শিল্পে তার কোন প্রভাব পড়বে কি না-সে প্রশ্নের উত্তরে এই অদ্ভুত পরামর্শ দেন সদ্য শপথ নেয়া পর্যটন দফতরের স্বাধীন দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী আলফোন্স। সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি জানান, ‘পর্যটকরা তাদের নিজেদের দেশেই যেন গোমাংস খান এবং তারপর ভারতে আসেন’।

যদিও এর আগে ওই অনুষ্ঠানের শুরুতেই ভারতের প্রাচীন ইতিহাস তুলে ধরে মন্ত্রী বলেন, ‘ভারতের সভ্যতা অনেক পুরোনো। গোটা বিশ্বের উচিত এখানে আসা এবং আমাদের দেখা। আমাদের দেশ ও ইতিহাসকে আমাদের ভালবাসতে হবে এবং বিদেশিদের কাছে তার মাহাত্ম তুলে ধরে বলতে হবে যে…দেখুন এটা হল একটা সুন্দর দেশ’।

সাম্প্রতিককালে ভারত জুড়ে গোমাংস বিতর্কের মধ্যেই মন্ত্রীর এই মন্তব্য আগুনে ঘি ঢালার মতো কাজ করেছে। বিষয়টি নিয়ে বিতর্ক মাথাচাড়া দিতেই অবশ্য সেই মন্তব্যকে ডিফেন্ড করেছেন তিনি।

শুক্রবারই সে প্রসঙ্গে কেরলা ও গোয়ার মতো রাজ্যের উদাহরণ তুলে ধরে মন্ত্রী বলেন, ‘গোয়ায় বিজেপিই ক্ষমতায় রয়েছে। সেখানকার মানুষ এখেনা গোমাংস খায়। তাতে বিজেপির কোন সমস্যাই নেই। কেরলায়ও বিরোধী দল হিসাবে বিজেপি গোমাংস খাওয়ায় কোনো আপত্তি জানায়নি। আগের মন্তব্যের প্রেক্ষিতে তিনি বলেন ‘ওটা একটা কথার কথা ছিল.. তাছাড়া আমি খাদ্যমন্ত্রী নই, আমি হলাম পর্যটনমন্ত্রী, তাই এই বিষয়টিতে সিদ্ধান্ত নেওয়ার এক্তিয়ার আমার নেই’।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: