বৃহস্পতিবার, ২৬ এপ্রিল ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ১৩ বৈশাখ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
প্রধানমন্ত্রী অষ্ট্রেলিয়া যাচ্ছেন বৃহস্পতিবার  » «   রুয়েট বাস চালককে হত্যা  » «   কান চলচ্চিত্র উৎসবে ‘পোড়ামন ২’  » «   ক্রেডিট কার্ড জালিয়াতির মূলহোতা গ্রেফতার  » «   বিএনপির মানববন্ধনে নেতাকর্মীরর ঢল  » «   সমকামী তরুণীকে বিয়ে করলেন সাবেক মিস আমেরিকা!  » «   আতঙ্কিত হয়েই খালেদা জিয়াকে জেলে বন্দি  » «   পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী নিজেই গর্তে পড়েছেন  » «   ময়মনসিংহ-৩ গৌরীপুরআসন ধরে রাখতে মরিয়া আ.লীগ, পুনঃরুদ্ধার চায় বিএনপি  » «   বিডি জবসের সিইও ফাহিম মাশরুর গ্রেফতার  » «   চেকপোস্ট বসিয়ে : রোহিঙ্গা তল্লাশির নামে স্থানীয়দের হয়রানি, সড়ক অবরোধ  » «   বিএনপির হুঁশিয়ারি : খালেদাকে মুক্তি না দিলে দেশে নির্বাচন হবে না  » «   তারেক জিয়া পাকিস্তানের নাগরিক  » «   পতাকা অবমাননা ও ভুয়া জন্মদিন পালন : খালেদা জিয়ার জামিন শুনানি ১৭ মে  » «   সিনেমায় এসে নাম বদলেছেন যেসব নায়ক-নায়িকা  » «  

গানবাজিয়ে হত্যা, স্বামী-শ্বশুর ও দেবর উধাও!



পাবনার চাটমোহরে লাবনী খাতুন (২১) নামে এক গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। শনিবার (২৪ মার্চ) রাতে উপজেলার হরিপুর ইউনিয়নের ধূলাউড়ি বড়ুরিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। তিনি ওই গ্রামের সোহেল রানার স্ত্রী ও উপজেলার বোয়াইলমারী গ্রামের আবদুল করিম সরকারের মেয়ে।

তবে ওই গৃহবধূর পরিবারের দাবি লাবনীকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে শরীরে কীটনাশক পাউডার ছিটিয়ে দেয়া হয়েছে। এ ঘটনার পর থেকে ওই গৃহবধূর স্বামী, শ্বশুর, ভাসুর ও দেবর সবাই বাড়ি থেকে উধাও হয়ে গেছে। খবর পেয়ে রবিবার (২৪ মার্চ) সকালে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাবনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।

জানা গেছে, শনিবার (২৪ মার্চ) বিকেলে স্বামী সোহেল, শাশুড়ী আমেনা বেগম, ভাসুর শরীফ হোসেন ও দেবর শহীদুলের সাথে পারিবারিক বিষয় নিয়ে ঝগড়া হয় লাবনী খাতুনের। সন্ধ্যায় বাড়ির সবার অগোচরে ঘরে রাখা পিঁপড়ে মারা কীটনাশক ফিনিস পাউডার পান করেন।

পরে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে চাটমোহর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসার পথে রাত ৯টার দিকে লাবনী খাতুন মারা যায়। পরে শ্বশুড় বাড়ির লোকজন ওই গৃহবধূর লাশ বাড়িতে নিয়ে যায়। এরপর সবাই বাড়ি থেকে গা ঢাকা দেয়।

তবে লাবনী খাতুনকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন তার ভাই সবুজ সরকার। তিনি জানান, গত ৮মাস আগে সোহেলের সাথে পারিবারিক ভাবে বিয়ে দেয়া হয় লাবনীর। বিয়ের পর থেকেই পারিবারিক বিষয় নিয়ে স্বামী, শ্বাশুড়ী, ভাসুর ও দেবর মিলে তাকে নানা ভাবে নির্যাতন করতো।

শনিবার বিকেলে লাবনীর সাথে ঝগড়া হলে উচ্চস্বরে গান বাজিয়ে মারপিট করেন তারা এবং শ্বাসরোধ করে হত্যা করে হাসপাতালে নেয়ার অভিনয় করা হয়।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে থানার ওসি (তদন্ত) মো. শরিফুল ইসলাম জানান, ‘পারিপার্শিক অবস্থা দেখে মৃত্যুর ঘটনাটি সন্দেহজনক মনে হয়েছে। থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট এলে বোঝা যাবে এটি হত্যা না আত্মহত্যা। হত্যার বিষয়টি প্রমাণিত হলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: