শনিবার, ২০ জুলাই ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ শ্রাবণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
নিজেদের বিমান বাহিনী থেকে সুরক্ষা পেতেই এরদোগানের এস-৪০০ ক্রয়!  » «   জাপানে অ্যানিমেশন স্টুডিওতে অগ্নিসংযোগ, নিহত ১২  » «   খাদ্য ঘাটতি পূরণ করেছি, এখন লক্ষ্য পুষ্টি: প্রধানমন্ত্রী  » «   রিফাত হত্যায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে মিন্নি  » «   বাংলাদেশের পতাকার আদলে অন্তর্বাস বিক্রি করছে অ্যামাজন  » «   রিফাত হত্যাকাণ্ড: এবার রিশান ফরাজীও গ্রেফতার  » «   বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি কেলেঙ্কারি: সিস্টেম লস নয় দুর্নীতি  » «   বন্যার কারণে জাতীয় ও উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন পরীক্ষা স্থগিত  » «   হঠাৎ কিশোর গ্যাং নিয়ন্ত্রণে শক্ত পদক্ষেপ, মাঠে নামছে র‌্যাব  » «   ধসে পড়া ভবনে মিললো বাবা-ছেলের মরদেহ  » «   ইসরাইলের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের তীব্র নিন্দা  » «   ‘নয়ন বন্ডের বাড়িতে বসেই স্বামীকে হত্যার পরিকল্পনা করেন মিন্নি’  » «   সিলেটের ২ জনসহ দেশসেরা ১২ শিক্ষার্থীকে পুরস্কার দিলেন প্রধানমন্ত্রী  » «   বেনাপোল ও বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেনের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী  » «   উপজেলা নির্বাচন: সিলেটে আ.লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীদের বহিষ্কারের তালিকা  » «  

গাজায় ইসরাইলি সেনাদের কমান্ডো হামলায় ৭ ফিলিস্তিনি নিহত



আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: ইসরাইলি সেনারা অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় প্রবেশ করে অতর্কিত হামলা চালিয়ে ইসলামী প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসের এক শীর্ষস্থানীয় কমান্ডারসহ সাত ফিলিস্তিনিকে হত্যা করেছে।

ইহুদিবাদী দেশটির সেনাদের দাবি, তাদের টার্গেট ছিল-হামাসের সামরিক শাখা ইজ্জাদ্দিন আল-কাস্সাম ব্রিগেডের সিনিয়র কমান্ডার নূর বারাকা। এ সময় বাধা পেয়ে অন্য ফিলিস্তিনিদের হত্যা করে তারা। এ সময় হামাসের পাল্টা গুলিতে এক ইসরাইলি সেনাও প্রাণ হারায়। খবর আলজাজিরার।

এক বিবৃতিতে হামাস জানায়, দক্ষিণ গাজার খান ইউনিস শহরের কাছে ইসরাইলি বিশেষ বাহিনীর একটি দল রোববার ছদ্মবেশে একটি বেসামরিক গাড়িতে করে গাজা উপত্যকায় অনুপ্রবেশ করে।

এ সময় তারা চলন্ত গাড়ি থেকে গুলি চালিয়ে হামাসের সামরিক শাখা ইজ্জাদ্দিন আল-কাস্সাম ব্রিগেডের সিনিয়র কমান্ডার নূর বারাকাকে হত্যা করে। ইসরাইল সীমান্ত থেকে গাজা উপত্যকার তিন কিলোমিটার ভেতরে ওই হামলা হয় বলে হামাস জানিয়েছে।

কমান্ডার নিহত হওয়ার পর হামাস যোদ্ধারা ঘাতক ইসরাইলি সেনা বহনকারী গাড়িটির ওপর হামলা চালালে দুপক্ষের মধ্যে গুলিবিনিময় শুরু হয়। এ সময় আরও ৬ ফিলিস্তিনিসহ এক ইসরাইলি সেনাও নিহত হয়।

এ সময় আকাশে উড়ে আসে একটি ইহুদিবাদী জঙ্গিবিমান। ইসরাইলি বিশেষ সেনা বহনকারী গাড়িটিকে পালিয়ে যেতে সহায়তা করার জন্য ওই বিমান থেকে অন্তত ৪০টি ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করা হয়।

ফিলিস্তিনি ভূখণ্ডে নিজের অবৈধ উপস্থিতি বজায় রাখার জন্য দীর্ঘদিন ধরে সংগ্রামী ফিলিস্তিনিদের এভাবে হত্যা করে আসছে দখলদার ইসরাইলি বাহিনী।

গত ৩০ মার্চ থেকে নিজেদের ভূমি ফিরে পাওয়ার আন্দোলন নতুন করে শুরু করার পর থেকে এ পর্যন্ত দুই শতাধিক নারী ও শিশুসহ স্বাধীনতাকামী দুই শতাধিক ফিলিস্তিনিকে হত্যা করে দখলদার ইহুদিবাদীরা।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: