বুধবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
লন্ডনে দ্বিতীয় জনপ্রিয় ভাষা বাংলা  » «   ঘুষের টাকাসহ হাতেনাতে সাব-রেজিস্ট্রার আটক  » «   আর কোনো হায়েনার দল বাংলার বুকে চেপে বসতে পারবে না  » «   সিলেটে মুক্তিযুদ্ধের পাণ্ডুলিপি সংগ্রহ করলেন প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী  » «   ফের জাতীয় পার্টির ঢাকা জেলা শাখার সভাপতি সালমা ইসলাম এমপি  » «   বিয়ানীবাজারে ৯৯০ পিস ইয়াবাসহ পেশাদার মাদক ব্যবসায়ী আটক  » «   আয়কর দিবস উপলক্ষে সিলেটে বর্ণাঢ্য র‌্যালি  » «   এবার শ্রীমঙ্গলে ট্রেনের ইঞ্জিনে আগুন  » «   বেলজিয়ামে মসজিদে তালা দেওয়ায় বাংলাদেশিদের প্রতিবাদ  » «   পায়রা উড়িয়ে জাতীয় পার্টির ঢাকা জেলা শাখার সম্মেলন উদ্বোধন  » «   ভারতের অর্থনীতির দুরবস্থা, জিডিপি কমে সাড়ে ৪ শতাংশ  » «   পায়রা উড়িয়ে সম্মেলন উদ্বোধন করলেন শেখ হাসিনা  » «   লন্ডন ব্রিজে আবারও সন্ত্রাসী হামলা, নিহত ২  » «   চীন থেকে মা-বাবার জন্য পেঁয়াজ নিয়ে এলেন মেয়ে  » «   রক্তে ভাসছে ইরাক, নিহত ৮২  » «  

গরিব দেশগুলো বেশি টাকা ছাপিয়ে বড়লোক হতে পারে!



আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: জিম্বাবুয়ে আর ভেনিজুয়েলা তাদের অর্থনীতিতে গতি আনতে বেশি টাকা ছাপিয়েছিল একবার। কিন্তু তাতে উপকারের চেয়ে ক্ষতিই হয়েছে বেশি। জিম্বাবুয়েতে যেখানে একটি মিষ্টি কিনতে এক ডলার খরচ করতে হতো, সেখানে এক বছরের মাথায় ২৩১ মিলিয়ন ডলার দাম পড়ল একটি মিষ্টির।

লোকেরা তখন বলেছিল, টাকার চেয়ে কাগজগুলোর বরং গুরুত্ব বেশি। আসলে ধনী হতে একটি দেশের প্রয়োজন বেশি জিনিস উৎপাদন। বেশি উৎপাদন না করে অধিক টাকা ছাপালে জিনিসপত্রের দাম চড়া হতে থাকে। একে বলে মূল্যস্ফীতি।

ধরা যাক, ১০ লাখ বই আছে বাজারে, যার মূল্য এক কোটি টাকা। সে ক্ষেত্রে প্রতি বইয়ের দাম ১০ টাকা। এখন বাজারে দুই কোটি টাকা থাকলে কিন্তু বইয়ের সংখ্যা বাড়বে না; বরং বৃদ্ধি পেয়ে প্রতিটি বইয়ের দাম হবে ২০ টাকা। তাতে লাভ কিছুই হলো না; বরং টাকার মান পড়ে গেল।

গত শতকের বিশের দশকে জার্মানিতে টাকার মান এতই পড়ে গিয়েছিল যে টাকা দিয়ে শিশুরা ঘুড়ি ইত্যাদি খেলার সামগ্রী তৈরি করত। তাই গবেষকরা বলছেন, জিনিসপত্রের উৎপাদন বৃদ্ধি গরিব দেশের বড়লোক হওয়ার উপায় হতে পারে। অধিক টাকা ছাপানো কোনো সমাধান নয়।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: