রবিবার, ২৪ মার্চ ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১০ চৈত্র ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
একাত্তরের গণহত্যা আন্তর্জাতিক ফোরামগুলোতে তুলবে জাতিসংঘ  » «   এ বছর থেকেই তৃতীয় শ্রেণি পর্যন্ত থাকছে না পরীক্ষা  » «   মসজিদে হামলা: ৮ দিনেও জ্ঞান ফেরেনি চার বছর বয়সী আলিনের  » «   মালিতে ১৩৪ মুসলিম আদিবাসীকে গুলি করে হত্যা  » «   ইভিএমএ ভোট দেই এক জায়গায়,আরেক জায়গায়  » «   ভোটকেন্দ্র দখল নিয়ে দু’পক্ষের গোলাগুলি, গুলিবিদ্ধ পুলিশ সদস্য  » «   আড়াই ঘণ্টায় ভোট পড়েছে ৩টি!  » «   ব্রেক্সিট ঠেকাতে ফের গণভোট ও মে’র পদত্যাগ দাবিতে উত্তাল ব্রিটেন  » «   যুক্তরাষ্ট্র সীমান্তে চরম হেনস্থার শিকার ৯ বছরের বালিকা  » «   রাতেই ব্যালটে সিল মারায় নির্বাচন স্থগিত  » «   বাসচাপায় সিকৃবি ছাত্র হত্যা, চালক-হেলপার গ্রেফতার  » «   উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে তৃতীয় ধাপের ভোটগ্রহণ চলছে  » «   লাগামহীনভাবে বাড়ছে দ্রব্যমূল্য: রমজানপূর্ব মজুদদারিতে কারসাজি  » «   সন্ত্রাস ও হিংসা মোকাবেলায় একসঙ্গে কাজ করতে পাকিস্তানকে আহ্বান মোদির  » «   সংসদে লুকিয়ে চকলেট খেয়ে ক্ষমা চাইলেন ট্রুডো!  » «  

গণভবনে শুভেচ্ছা বিনিময়ে প্রধামন্ত্রী‘বাঙালি কোনো বাধা মানে না, ভাঙতে জানে’



নিউজ ডেস্ক::নতুন বছরে সব বাধা অতিক্রম করে উন্নত ও সমৃদ্ধ এক বাংলাদেশ গড়ার অঙ্গীকার করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেছেন, ‘বাংলাদেশে নববর্ষ উদযাপন একটি সার্বজনীন উৎসব। এ উৎসব উদযাপনে যত বাধাই আসুক, বাঙালি কোনো বাধা মানে না। এ জাতি বাধা ভাঙতে জানে।’

শনিবার (১৪ এপ্রিল) প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে সর্বস্তরের মানুষের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময়কালে তিনি এ অঙ্গীকার করেন।

এসময় দেশে-বিদেশের সব বাঙালিকে নববর্ষের শুভেচ্ছা জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘পৃথিবীতে অনেক দেশ আছে। সব দেশেই নববর্ষের অনুষ্ঠান হয়। কিন্তু ভাষাভিত্তিক রাষ্ট্র এই উপমহাদেশে শুধু বাংলাদেশ। আমরা বাংলা ভাষায় কথা বলি, বাংলায় হাসি, বাংলায় কাঁদি, বাংলায় জীবন চর্চা করি।’

‘ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে আমরা নববর্ষ উদযাপন করি’ জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, প্রবাসীরাও নানা অনুষ্ঠানে নতুন বছরকে বরণ করে নেন। এমনকি গ্রাম পর্যায়েও এ উৎসব উদযাপন করা হয় এখন। সবাই মন খুলে একাত্ম হয়ে যাতে এ উৎসব পালন করতে পারে আমরা সে ব্যবস্থা করেছি। গত বছর থেকে আমরা সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নববর্ষে ভাতার ব্যবস্থা করেছি।’

‘বর্ষবরণে বিএনপি সরকারের বাধার কথা’ উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘১৯৯২ সালে আমরা ১৪০০ বঙ্গাব্দকে বরণ করতে অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিলাম। কিন্তু সেখানে তৎকালীন খালেদা জিয়া সরকার বাধা দেয়। আমরা কবি সুফিয়া কামালকে নিয়ে সেসব বাধা উপেক্ষা করে রমনা পার্কে আয়োজিত অনুষ্ঠানে নতুন শতাব্দীকে স্মরণ করি।’

‘আমাদের সজাগ থাকতে হবে যাতে দেশে এমন কোনও অশুভ শক্তি না আসে যারা সমাজ, ধর্ম ও সংস্কৃতির ওপর আঘাত করতে পারে। এমন কোনও শক্তিকেও বাংলাদেশের ক্ষমতায় আসতে দেওয়া যাবে না। কারণ বাংলা আমাদের দেশ, এখানে কোনও অপশক্তি থাকতে পারে না’ বলেও জানান প্রধানমন্ত্রী।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: