শনিবার, ২০ জুলাই ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ শ্রাবণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
জনসমাগম দেখলেই আতঙ্কে ভোগে আ’লীগ সরকার: ফখরুল  » «   ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনিতে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জে নিহত ২  » «   দুর্নীতি শব্দটি কীভাবে আসলো আই হ্যাভ নো আইডিয়া: ইকবাল মাহমুদ  » «   সেই প্রিয়া সাহাকে নিয়ে মিললো চাঞ্চল্যকর তথ্য  » «   লবণ সংকটে কোরবানির চামড়া নিয়ে উদ্বেগ  » «   দেশদ্রোহী হিসেবে প্রিয়ার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে: সেতুমন্ত্রী  » «   মিন্নিকে আইনি সহায়তা দিতে ঢাকা থেকে ৪০ আইনজীবী যাচ্ছেন বরগুনায়!  » «   আলো-পানি ছাড়াই রাত কাটল আটক প্রিয়াঙ্কার  » «   মক্কা-মদিনায় ফ্রি ইন্টারনেট ও সিম পাচ্ছেন হাজিরা!  » «   পানিতে সাপের কামড়ে মৃত্যু ,পানিতেই জানাজা-দাফন  » «   নেত্রকোনায় শিশুর কাটা মাথা কাণ্ডে যা জানলো পুলিশ  » «   লন্ডনে পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী, আজ দূত সম্মেলন  » «   ব্রিটিশ ট্যাংকার আটক করেছে ইরান, উত্তেজনা চরমে  » «   নিজেদের বিমান বাহিনী থেকে সুরক্ষা পেতেই এরদোগানের এস-৪০০ ক্রয়!  » «   জাপানে অ্যানিমেশন স্টুডিওতে অগ্নিসংযোগ, নিহত ১২  » «  

‘খালেদা জিয়ার কার্যালয়ে খাবার সরবরাহে বাধা দেয়া অবৈধ ও অনুচিত’



নিউজ ডেস্ক :: সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার কার্যালয়ে খাবার সরবরাহে বাধা দেয়া অবৈধ ও অনুচিত বলে মন্তব্য করেছেন সুপ্রিমকোর্টের সিনিয়র আইনজীবী ব্যারিস্টার রফিক উল হক।

মঙ্গলবার দুপুরে সুপ্রিমকোর্ট বারের সভাপতির কক্ষের সামনে আইনজীবীদের প্রতীকী অনশনে সংহতি জানিয়ে তিনি এ মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন, ‘সরকার যেটা করছে তা অবৈধ ও অগণতান্ত্রিক, এতে সরকারের বদনাম হচ্ছে।’

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার গুলশান কার্যালয়ে খাবার সরবরাহে বাধা দেয়ার প্রতিবাদে সুপ্রিমকোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশন এ প্রতীকী অনশনের আয়োজন করে।

রফিক উল হক বলেন, ‘খালেদা জিয়াকে স্বাভাবিক জীবন যাপন করতে দেয়া উচিৎ। একটি গণতান্ত্রিক দেশে এরকম করা মোটেও উচিৎ নয়।’

সার্বজনীন মানবাধিকারে ঘোষণা পত্রের ২৫ অনুচ্ছেদে প্রত্যেক নাগরিকের অন্ন, বস্ত্র, চিকিৎসার অধিকার আছে বলেও সাংবাদিকদের জানান তিনি।

একই কর্মসূচিতে বারের সভাপতি খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেন, ‘খালেদা জিয়ার খাবার সরবরাহে বাধা দিয়ে সরকার মানবাধিকারের আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করছে।’
তিনি সরকারের প্রতি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, ‘অবিলম্বে খালেদার কার্যালয়ে খাবার সরবরাহ, নেতাকর্মীদের দেখা করার অনুমতি দিন। না দিলে এর পরিণতি হবে ভয়াবহ। খালেদা জিয়া যে আন্দোলনের ডাক দিয়েছেন জনগণের ভোটের অধিকার প্রতিষ্ঠিত না হওয়া পর্যন্ত তা চলবে।’

ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেন, ‘খালেদা জিয়া যে আন্দোলনের ডাক দিয়েছেন এ আন্দোলন স্বাধীনতার পর যত আন্দোলন হয়েছে তা থেকে ব্যতিক্রম। এটাকে মহাত্ম গান্ধীর অহিংস আন্দোলনের সঙ্গে তুলনা করা যায়।’

শান্তিপূর্ণ আন্দোলনেই সরকারের গাত্রদাহ শুরু হয়েছে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

পরে ব্যারিস্টার রফিক উল হক পানি খাইয়ে আইনজীবীদের অনশন ভাঙান।

এসময় সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির নেতারা ও সুপ্রিমকোর্টে অন্যান্য আইনজীবীরা উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: