বুধবার, ২২ মে ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
খালেদা জিয়ার সুবিধার্থে কেরানীগঞ্জে আদালত স্থাপনের সিদ্ধান্ত: তথ্যমন্ত্রী  » «   বুথফেরত জরিপের ফলেই ‘বিজয়োৎসব’ শুরু বিজেপির  » «   হুতি বিদ্রোহীদের হামলা, সৌদির পাশে থাকবে পাকিস্তান  » «   ধানক্ষেতে আগুনের ঘটনা তদন্তে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ  » «   মুক্তিযোদ্ধাদের ভাতা বাড়ছে  » «   বালিশ দুর্নীতি: নির্বাহী প্রকৌশলী প্রত্যাহার  » «   এফআর টাওয়ার নির্মাণে ত্রুটি, তদন্ত প্রতিবেদনে দোষী ৬৭ জন  » «   ক্ষতিপূরণ দিতে গ্রিনলাইনকে আদালতের আল্টিমেটাম  » «   প্রখ্যাত তিন ইসলামি স্কলারের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করছে সৌদি  » «   মৌলভীবাজারে কে এই ‘পীর’ আজাদ?  » «   ৮০ বছরের মধ্যে সাগরে ডুবে যাবে বাংলাদেশ!  » «   অনলাইনে ট্রেনের টিকিট: বিক্রি শুরুর আগেই টিকিট শেষ!  » «   আজ সিলেটের যে নয়টি এলাকায় গ্যাস সংযোগ বন্ধ থাকবে  » «   অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাবার বিক্রির দায়ে ইষ্টিকুটুম-মধুবনকে জরিমানা  » «   বুধবারীবাজার ইউনিয়ন আ.লীগ সভাপতি রফিক উদ্দিনের জানাযায় মানুষের ঢল  » «  

খালেদার জামিন, যা বললেন আইনমন্ত্রী



নিউজ ডেস্ক::জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় কারাগারে থাকা বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে চার মাসের জামিন দিয়েছেন আদালত।

এ বিষয়ে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, জামিনের অর্ডার জেলখানায় যাওয়ার পরই মুক্তি পাবেন খালেদা জিয়া। তবে আমি রায়ে কি ধরণের বিষয় উল্লেখ করা হয়েছে সে বিষয়ে পরিস্কার না।

সোমবার (১২ মার্চ) সচিবালয়ের রায়ের পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় তিনি সাংবাদিকদের এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, এ জামিনের মাধ্যমে প্রমাণ হলো সরকার আদালতের উপর হস্তক্ষেপ করে না। একইসাথে পরের কর্মপন্থা দুর্নীতি দমন কমিশন ঠিক করবে বলেও জানান তিনি।

আইনমন্ত্রী বলেন, আদালত আদেশে কি উল্লেখ করেছেন তার উপর নির্ভর করবে খালেদা জিয়া কখন মুক্তি পাবেন। যদি শর্ট অর্ডারে মুক্তি পাওয়ার বিষয়ে রায়ে কোন নির্দেশনা থাকে তাহলে শর্ট অর্ডার জেলে পৌঁছালে উনি মুক্তি পাবেন।

আর কোন মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখানো হবে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে আইনমন্ত্রী বলেন, এটা আমরা জানা নেই। তবে এবার আবারো প্রমাণিত হলো দেশের বিচার ব্যবস্থা স্বাধীন। জামিনের মাধ্যমে প্রমাণ হলো সরকার আদালতের উপর হস্তক্ষেপ করে না।
প্রসঙ্গত, আজ ১২ মার্চ দুপুরে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় কারাগারে থাকা বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জামিন চেয়ে করা শুনানি শেষে চার মাসের জামিন দিয়েছেন আদালত।

বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি সহিদুল করিমের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট ডিভিশন বেঞ্চ এ আদেশ দেন। এছাড়া এই সময়ের মধ্যে খালাস চেয়ে বেগম জিয়ার আপিল শুনানির জন্য প্রস্তুত করার নির্দেশ দেওয়া হয়।

এসময় আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম, দুদকের পক্ষে খুরশিদ আলম খান এবং খালেদা জিয়ার পক্ষে জয়নুল আবেদীন শুনানি করেছেন।

একই বেঞ্চে রবিবার মামলাটি জামিন বিষয়ে আদেশের জন্য রাখা ছিল। কিন্তু মামলার নথি না পৌঁছানো ও আদালতের দেয়া ১৫ দিন সময় শেষ না হওয়ায় আদেশের জন্য সময় পিছিয়ে সোমবার দিন ধার্য করেন। মামলাটি আজ হাইকোর্টের কার্যতালিকার (কজলিস্ট) এক নম্বরে রাখা হয়।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: