সোমবার, ১৮ জুন ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
ছাত্রীর সঙ্গে শিক্ষকের কুকীর্তি ফাঁস!  » «   মায়ের পছন্দ ব্রাজিল, সমর্থক জয়ও  » «   পুলিশ কমিশনার‘ঈদগাহে ছাতা ও জায়নামাজ ছাড়া অন্য কিছু নয়’  » «   ‘আমিও প্রেগনেন্ট হয়েছি, অনেকবার অ্যাবরশনও করিয়েছি’  » «   গুগল পেজ ইরর দেখায় কেন?  » «   রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, সিইসি কে কোথায় ঈদ করছেন  » «   ইসি সচিব : তিন সিটি নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা  » «   বিপজ্জনক রূপ নিয়েছে মনু ও ধলাই  » «   বিশ্বকাপের একদিন আগে বরখাস্ত স্পেন কোচ!  » «   ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কে ৭ কি.মি. যানজট  » «   শারীরিক সম্পর্ক নিয়ে আলিয়ার সোজা কথা!  » «   যে কারণে ইউনাইটেড হাসপাতালে যেতে চান খালেদা  » «   খালেদা চিকিৎসা চান নাকি রাজনীতি করছেন : সেতুমন্ত্রী  » «   যানজটের কথা শুনিনি, কেউ অভিযোগও করেননি  » «   ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান ‘বকশিসের নামে নীরব চাঁদাবাজি নেই’  » «  

খাদিজা দিলেন বর্ণনা, বদরুল বললেন সুখে থেকো



‘আমার শাস্তি হোক, তুমি সুখে থেকো। … আমি মিথ্যা বলি না। তুমিও (খাদিজা) সত্য কথা বলো।’

আজ রোববার দুপুরে সিলেটের মুখ্য মহানগর হাকিম (সিএমএম) আদালতের বিচারক সাইফুজ্জামান হিরোর আদালতে খাদিজা আক্তার নার্গিসের সাক্ষ্য গ্রহণের সময় চিৎকার করে এসব কথা বলছিলেন বদরুল।

পরে বদরুলের আইনজীবী সাজ্জাদুর রহমান চৌধুরী তাকে দমিয়ে দেন। এভাবে আদালতে কথা বলতে নিষেধ করলে বদরুল শান্ত হন।

পরে আইনজীবীদের জেরায় খাদিজা ঘটনার লোমহর্ষক বর্ণনা দেন। খাদিজা বলেন, ঘটনার দিন পরীক্ষা শেষে তিনি হল থেকে বের হন। পরে বদরুল তাঁর হাত ধরে টেনে পুকুরের পাড়ে নিয়ে যান। সেখানে প্রথমে বদরুল তাঁকে চর মেরে মাটিতে ফেলে দেন। এর পরই চাপাতি দিয়ে প্রথমে তাঁর বাম হাতে কোপ দেন। আত্মরক্ষার চেষ্টা করলে আরো তিনটি কোপের আঘাতে তিনি জ্ঞান হারান। আর কিছু তাঁর মনে নেই বলে জানান খাদিজা।

বদরুলের আইনজীবী এ সময় বিচারক ও খাদিজাকে একটি ছবি দেখিয়ে বলেন, এ ছবিটি খাদিজা ও বদরুলের। এখানে উভয়ের মধ্যে সম্পর্কের প্রমাণ পাওয়া যায়।

তখন খাদিজা বলেন, বদরুলের সঙ্গে তাঁর কোনো সম্পর্ক নেই। লজিং থাকা অবস্থায় বদরুলকে চা করে খাওয়াতেন তিনি। ওই সময় বদরুলের ব্যবহারে পরিবর্তন এলে পরিবার থেকে বদরুলকে বের করে দেওয়া হয়। তাই ছবিটিতে থাকা মেয়েটি তিনি নন।

বদরুলের আইনজীবী খাদিজার উদ্দেশে প্রশ্ন করে বলেন, ‘আপনি (খাদিজা) বদরুলের রেজিস্ট্রেশন করা সিম ব্যবহার করতেন কি না?’ সেই বিষয়টিও খাদিজা অস্বীকার করেন।

আদালতে স্বাক্ষ্য গ্রহণ শেষে বের হয়ে বদরুলের আইনজীবী সাজ্জাদুর রহমান চৌধুরী বলেন, ‘খাদিজা বদরুলের সঙ্গে সম্পর্ক ও সিম ব্যবহারের কথা অস্বীকার করায় বদরুলের ন্যায় বিচার প্রাপ্তিতে সহায়তা হবে।’

এ ছাড়া বদরুল ঘটনার সময় নেশাগ্রস্ত ছিল বলে দাবি করেন এই আইনজীবী।

এদিকে খাদিজার আইনজীবী আ ক ম শিবলী বলেন, ‘খাদিজা আজ আদালতে হামলার সুস্পষ্ট ঘটনা তুলে ধরেছেন। আমরা আশা করছি ন্যায়বিচার পাব।’


 

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: