সোমবার, ৯ ডিসেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
লন্ডনে দ্বিতীয় জনপ্রিয় ভাষা বাংলা  » «   ঘুষের টাকাসহ হাতেনাতে সাব-রেজিস্ট্রার আটক  » «   আর কোনো হায়েনার দল বাংলার বুকে চেপে বসতে পারবে না  » «   সিলেটে মুক্তিযুদ্ধের পাণ্ডুলিপি সংগ্রহ করলেন প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী  » «   ফের জাতীয় পার্টির ঢাকা জেলা শাখার সভাপতি সালমা ইসলাম এমপি  » «   বিয়ানীবাজারে ৯৯০ পিস ইয়াবাসহ পেশাদার মাদক ব্যবসায়ী আটক  » «   আয়কর দিবস উপলক্ষে সিলেটে বর্ণাঢ্য র‌্যালি  » «   এবার শ্রীমঙ্গলে ট্রেনের ইঞ্জিনে আগুন  » «   বেলজিয়ামে মসজিদে তালা দেওয়ায় বাংলাদেশিদের প্রতিবাদ  » «   পায়রা উড়িয়ে জাতীয় পার্টির ঢাকা জেলা শাখার সম্মেলন উদ্বোধন  » «   ভারতের অর্থনীতির দুরবস্থা, জিডিপি কমে সাড়ে ৪ শতাংশ  » «   পায়রা উড়িয়ে সম্মেলন উদ্বোধন করলেন শেখ হাসিনা  » «   লন্ডন ব্রিজে আবারও সন্ত্রাসী হামলা, নিহত ২  » «   চীন থেকে মা-বাবার জন্য পেঁয়াজ নিয়ে এলেন মেয়ে  » «   রক্তে ভাসছে ইরাক, নিহত ৮২  » «  

ক্রিকেটকে বিদায় পিটারসনের



খেলাধুলা ডেস্ক::এ বছরের ডিসেম্বর পর্যন্ত খেলা চালিয়ে যাবেন বলেলেও মার্চেই শেষ করতে যাচ্ছেন ক্রিকেটের ক্যারিয়ার। বলছি ইংল্যান্ডের সাবেক অধিনায়ক কেভিন পিটারসেন এর কথা। , ২২ ফেব্রুয়ারি থেকে আরব আমিরাতে শুরু হতে যাওয়া বৈশ্বিক টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট পাকিস্তান সুপার লিগে (পিএসএল) তিনি খেলছেন কোয়েটা গ্ল্যাডিয়েটর্সের হয়ে।

সেজন্য দুবাইতে আসার আগে পরিবারকে উদ্দেশ করে সামাজিক মাধ্যম ইনস্টাগ্রামে একটি আবেগপ্রবণ বার্তা পোস্ট করেছেন এই ৩৭ বছর বয়সী। তিনি সেখানে বলেছেন, পিএসএলই তার শেষ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট। এবার অবসর নিয়েই ফেললেন এই ডানহাতি স্টাইলিশ ব্যাটসম্যান।

দক্ষিণ আফ্রিকায় জন্ম হলেও দেশটির ক্রিকেট দলে জাতিগত কোটা পদ্ধতির প্রতিবাদ করে ইংল্যান্ডে চলে আসেন পিটারসেন। ২০০৪ সালে ইংলিশদের হয়ে ওয়ানডে অভিষেকের পর ২০০৫ সালে ইংল্যান্ডের মাটিতে অ্যাশেজ দিয়ে টেস্ট অভিষেক হয় তার। সেবার ৫২.৫৫ গড়ে ৪৭৩ রান করে সিরিজসেরা খেলোয়াড় হন তিনি। ইংল্যান্ডও জেতে ২-১ ব্যবধানে।

এরপর আর পেছনে তাকাতে হয়নি পিটারসেনের। ২০০৮ সালে দলটির টেস্ট ও ওয়ানডে অধিনায়কত্ব পেলেও ছয় মাসের মধ্যে তৎকালীন কোচ পিটার মুরসের সঙ্গে ঝামেলা করে দায়িত্ব ছেড়ে দেন। ২০১২ সালে একবার অবসর নিয়ে আবার ফিরে আসেন। তবে ইংলিশ ক্রিকেট বোর্ডের (ইসিবি) সঙ্গে তার সম্পর্কের উন্নতি হয়নি। ২০১৩ সালে অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে ওয়ানডে ও ২০১৪ সালে অ্যাশেজ শেষ হওয়ার পর ইসিবি জাতীয় দল থেকে বরখাস্ত করে পিটারসেনকে।

বৈশ্বিক টি-টোয়েন্টি লিগগুলোয় খেলা চালিয়ে গেলেও এবার ক্যারিয়ারে একেবারে ইতি টেনে দিচ্ছেন প্রতিভাবান এই ক্রিকেটার। ইনস্টাগ্রামের পোস্টে তিনি লিখেছেন, ‘একজন ক্রিকেটার হিসেবে অসংখ্য বিদায় জানাচ্ছি জেসিকা লিবার্টি (স্ত্রী) ও আমার সন্তানদের। এবং এটাই আমার নেয়া শেষ বিদায় হবে। আমি প্রতিটি বিদায়ই ঘৃণা করতাম, তারপরও কাজের অংশ বলে মানিয়ে নিতাম। এই যাত্রাটা ছিল অসাধারণ। আগামী ৩-৪ সপ্তাহ আমি একজন পেশাদার খেলোয়াড় এবং তারপরই এই অধ্যায় সমাপ্ত!’

খেলাটির প্রতি তার ভালোবাসাও ফুটে উঠেছে এই বার্তায়, ‘আমি আমার সময় কাটিয়ে এসেছি এবং তা ভালোবেসেছি। তবে অনুভব করছি অন্তহীন বিদায় ও সফরের এখন একটা শেষ হওয়া উচিত। আমার জীবনে ক্রিকেটই ছিল সবচেয়ে চমৎকার বিষয়।’

ইংল্যান্ডের সর্বোচ্চ টেস্ট রান সংগ্রাহকদের একজন পিটারসেন ১০৪ ম্যাচে ২৩ সেঞ্চুরি ও ৩৫ ফিফটিতে ৮১৮১ রান করেছেন। ১৩৬ ওয়ানডেতে ৯ সেঞ্চুরি ও ২৫ ফিফটিতে ৪৪৪০ রান ও ৩৭ টি-টোয়েন্টিতে ৭ ফিফটিতে তার সংগ্রহ ১১৭৬ রান।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: