সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ২৯ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
অর্থনীতিতে নোবেল পেলেন যারা  » «   যুবলীগের পদ বেচে ঢাকায় ৪৬ ফ্ল্যাট-দোকানের মালিক ‘ক্যাশিয়ার আনিস’  » «   বরফ গলছে সৌদি-ইরানের, নেপথ্যে ইমরান খান  » «   ক্যাসিনো পঞ্চপাণ্ডবের রইল বাকি ১  » «   পুলিশের ওপর হামলা: দুই ‘জঙ্গি’ আটক  » «   সিলেট-জকিগঞ্জ সড়কে চালকদের প্রতিযোগিতায় যাত্রীবাহী বাস খাদে, আহত ৭  » «   ইনস্টাগ্রামে ট্রাম্প-ওবামাকে পেছনে ফেললেন মোদি!  » «   একটি মোবাইল চার্জারের দাম ২২ হাজার টাকা  » «   বেতন বৈষম্য: কর্মবিরতিতে সাড়ে ৩ লাখ শিক্ষক  » «   আবরার হত্যা: শেষ চার ঘণ্টার নৃশংসতার চিত্র  » «   সংবিধান পড়ে শোনালেন আমান, পুলিশ বলল ‘গো ব্যাক’  » «   বুয়েটে ভর্তি পরীক্ষা শুরু  » «   আবরার হত্যায় এবার মুজাহিদের স্বীকারোক্তি  » «   তিন সপ্তাহ ধরে কার্যালয়ে যান না যুবলীগ চেয়ারম্যান  » «   নোবেল পুরস্কার র‌্যাব-পুলিশের হাতে নয় : রিজভী  » «  

কোথায় পালালেন বুয়েটের ভিসি?



নিউজ ডেস্ক:: আবরার ফাহাদ হত্যার পর থেকেই বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) উপাচার্য (ভিসি) অধ্যাপক ড. সাইফুল ইসলামের খোঁজ মিলছে না। আবরার মৃত্যুর ৩০ ঘণ্টা পেরিয়ে গেলেও তিনি এখনও ঘটনাস্থলেই আসেননি।তিনি আবরারের জানাযাতেও যোগ দেননি। এমনকি ফোনেও তাকে পাওয়া যাচ্ছে না। বিষয়টি নিয়ে আবরারের সহপাঠীসহ সাধারণ শিক্ষার্থীরা ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

গতকাল সোমবার থেকেই বুয়েটে বিক্ষোভ করছে শিক্ষার্থীরা। তাদের শান্ত করতে আজ মঙ্গলবার বেলা ১১টার কিছু পরে ক্যাম্পাসে আসেন ছাত্রকল্যাণ পরিচালক (ডিএসডাব্লিউ) ড. মিজানুর রহমান। এ সময় আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা তাকে ঘিরে ধরেন। ঘটনার জন্য তার ব্যর্থতা বিষয়ে প্রশ্ন করে তার পদত্যাগ দাবি করেন।

এসময় শিক্ষার্থীরা বুয়েটের ভিসির বিষয়ে জানতে চাইলে ড. মিজানুর বলেন, সেটা ভিসিকে বলতে পারেন – ভিসি আসবে কিনা এটা ওনার ব্যপার। তবে আমরা এখানে ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধ করবো। এসময় শিক্ষার্থীদের দাবির মুখে সবার সামনেই উপাচার্যকে ফোন করেন ড. মিজানুর। কিন্তু উপাচার্য ফোন না ধরে লাইন কেটে দেন। এরপর থেকে তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

প্রসঙ্গত, গত রোববার (৬ অক্টোবর) দিবাগত মধ্যরাতে বুয়েটের সাধারণ ছাত্র ও বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ আবরারকে শেরেবাংলা হলের দ্বিতীয় তলা থেকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে যান। সোমবার সকাল সাড়ে ৬টার দিকে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

পরবর্তীতে জানা যায়, ছাত্রলীগের নির্যাতনে মৃত্যু হয়েছে আবরারের। এ ঘটনায় ফুঁসে ওঠে বুয়েটের শিক্ষার্থীরা। গতকাল থেকেই তারা আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: