বৃহস্পতিবার, ১৯ জুলাই ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ শ্রাবণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
২৭ জুলাই খালেদার মুক্তি দাবিতে জাতিসংঘের সামনে বিক্ষোভ  » «   মৌসুমি বায়ু দুর্বল, বর্ষার বর্ষণ নেই  » «   সিলেটে দুর্ঘটনায় কলেজ ছাত্রের মৃত্যু  » «   হরিণাকুণ্ডুতে র‌্যাবের সাথে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ডাকাত সদস্য নিহত  » «   পুলিশের সোর্স মামুন মাদক ব্যবসায়ীর স্ত্রীকে নিয়ে উধাও  » «   ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা কিশোরি, সালিসে জরিমানার টাকা ভাগাভাগি!  » «   আইনমন্ত্রীর বাসায় প্রধানমন্ত্রী  » «   ‘এদেরকে নিয়েই মান্না সাহেব দুর্নীতির বিরুদ্ধে যুদ্ধ করিবেন’  » «   রাশিয়ায় বিশ্বকাপ দেখতে গিয়ে পুলিশের জালে বাংলাদেশী যুবক  » «   বিদেশ ও জেল থেকে আন্ডারওয়ার্ল্ড নিয়ন্ত্রণ করছে শীর্ষ সন্ত্রাসীরা  » «   বাংলাদেশে যুক্তরাষ্ট্রের নতুন রাষ্ট্রদূত মনোনীত রবার্ট মিলার  » «   বেবী নাজনীন অসুস্থ, হাসপাতালে ভর্তি  » «   কোটা আন্দোলন: ছাত্রলীগের হুমকিতে ক্যাম্পাস ছাড়া চবি শিক্ষক  » «   ভেবেই ক্লাব বদল করেছেন রোনালদো  » «   ভারতে নিষিদ্ধ, অন্য দেশে পুরস্কৃত যেসব ছবি  » «  

কোটা সংস্কার আন্দোলন‘যেমন কুকুর তেমন মুগুর’



নিউজ ডেস্ক::কোটা সংস্কার আন্দোলনে নেতৃত্ব দেওয়া তিন নেতার বিরুদ্ধে শিবির সম্পৃক্ততার বিষয়ে ওবায়দুল কাদের এক বাক্যে তার প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন। বলেছেন, ‘যেমন কুকুর তেমন মুগুর।’

সোমবার (১৬ এপ্রিল) দুপুরে রাজধানীর মানিক মিয়া অ্যাভিনিউয়ে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিদর্শনে গিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এ মন্তব্য করেন।

কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলন গড়ে তোলা বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের তিন নেতা যুগ্ম সমন্বয়ক মোহাম্মদ রাশেদ খাঁন, নুরূল হক নূর ও ফারুক হাসাকে নিয়ে দৈনিক ইত্তেফাকে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয় যাদের শিবির সংশ্লিষ্টতার অভিযোগ আনা হয়েছে।

এদের মধ্যে ফারুক এস এম হল শাখা ছাত্রলীগের সাবেক আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, তারা বিশ্ববিদ্যালয়ে এসে ভোল পাল্টালেও তাদের শিবির সংশ্লিষ্টতা খুঁজে পেয়েছে একটি গোয়েন্দা সংস্থা।

একই দিন সকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলন করে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ ও মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে কর্মসূচি ঘোষণা করেন তারা। বলেছেন, এটা একটা অপপ্রচার। আন্দোলন চলাকালে তাদের বিরুদ্ধে এসব অভিযোগ নিয়ে গোয়েন্দা সংস্থা খোঁজ খবর নিয়ে কিছুই পায়নি।

পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে আহত ছাত্রদের দেখতে গিয়ে ফেরার পথে সময় সাদা পোষাকের কয়েকজন পুলিশ, কমিটির ওই তিন নেতাকে জোর করে একটি সাদা মাইক্রোতে তুলে নেয়। অবশ্য কিছুক্ষণ পর তাদের ছেড়েও দেয়া হয়।

কোটা আন্দোলনে নেতৃত্ব দেয়া তিন নেতার বিষয়ে প্রশ্নের জবাব দেয়ার আগে কাদের কথা বলেন বিএনপির আন্দোলন নিয়ে। তিনি বলেন, ‘বিএনপির সরকারবিরোধী আন্দোলনের রঙিন খোয়াব বাতাসে উবে গেছে। বিএনপি শুধু খোয়াব দেখবে, আন্দোলন হবে না।’

‘বাংলাদেশের মানুষ এখন পুরোপুরি নির্বাচনের আমেজে (মুডে)। দুটি সিটি করপোরেশনে নির্বাচন হচ্ছে। মানে দুই বিভাগের ভোটাররা এর সঙ্গে জড়িয়ে গেছেন। এরপরে আরও পাঁচটি সিটি করপোরেশন নির্বাচন, সেমিফাইনাল চলছে (নির্বাচনের)-এখন আর আন্দোলনে কাজ হবে না।’

‘৭০টি আসন এবং ১০ থেকে ১৫টি মন্ত্রণালয় দিলে আওয়ামী লীগের সঙ্গে জোট করবে জাতীয় পার্টি’ দলের চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের এমন বক্তব্যের বিষয়ে ক্ষমতাসীন দলের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘কে কত আসন পাবে, সেটি বৈঠকে আলাপ-আলোচনা হবে। এসব বিষয় প্রকাশ্যে না বলাই ভালো।’

‘জোটের শরিক বলে ইচ্ছা মতো আসন চাইবে, এটা হতে পারে না। যেখানে যেখানে জাতীয় পার্টির প্রার্থীরা জয়ী হওয়ার মতো থাকবেন, সেখানে অবশ্যই মনোনয়ন পাবেন। এ ছাড়া আওয়ামী লীগসহ জোটের সবার ক্ষেত্রে জয়ী হওয়ার মতো প্রার্থী ছাড়া কাউকে মনোনয়ন দেওয়া হবে না।’

‘তাহলে কি আবার জাতীয় পার্টির সঙ্গে জোট হচ্ছে?’ এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘জোট হবে কি না সেটি এই মুহূর্তে বলতে পারছি না। তবে জেতার মতো প্রার্থীকে মনোনয়ন দেওয়া হবে। আর সরকার গঠনের সময় মন্ত্রী দেওয়া না দেওয়া নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সিদ্ধান্ত দেবেন।’

ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিদর্শনের সময় বাস, অটোরিকশা এবং মোটরসাইকেল থামিয়ে চালক ও যাত্রীদের সঙ্গে কথা বলেন সড়ক মন্ত্রী। এ সময় বিকাশ পরিবহন নামের একটি বাসের যাত্রীরা মন্ত্রীর কাছে বাড়তি ভাড়া নেওয়ার অভিযোগ করেন। যাত্রীরা বলেন, বাসটি সরকার নির্ধারিত ৩২ টাকার ভাড়া নিচ্ছে ৫০ টাকা।

এ সময় মন্ত্রী বাসটি আটকের জন্য বিআরটিএর লোকজনকে নির্দেশ দেন। যদিও যাত্রী থাকার কারণে বাসটি ছেড়ে দেওয়া হয়। বাসের নম্বরের সাহায্যে বিআরটিএ পরবর্তীতে বাস মালিকের সঙ্গে যোগাযোগ করবে বলেও ওবায়দুল কাদের জানান।

এর আগে সকাল সাড়ে সাতটা থেকে মানিক মিয়া অ্যাভিনিউয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়। বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বিআরটিএর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট-২ মো. মাজহারুল ইসলাম জানান, সকাল থেকে বিভিন্ন ধরনের ৪০টি গাড়িকে ৭২ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন তারা। এর মধ্যে সিএনজিচালিত অটোরিকশা, বাস এবং মোটরসাইকেল আছে।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: