বৃহস্পতিবার, ২৩ নভেম্বর ২০১৭ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
বরখাস্তকৃত ন্যানগ্যাগওয়াই হচ্ছেন জিম্বাবুয়ের প্রেসিডেন্ট  » «   খালেদার গাড়িবহরে হামলা সরকারের সর্বোচ্চ পর্যায়ের পরিকল্পনার অংশ  » «   এক মোটরসাইকেলেই বিশ্ব রেকর্ড  » «   কাঁদলেন ঐশ্বরিয়া, ১শ শিশুর ঠোঁটের অস্ত্রোপচারে খরচ দিবেন  » «   কাল থেকে পুনরায় চালু হচ্ছে চুয়েট বাস  » «   বলি একটা লেখেন আরেকটা: সাংবাদিকদের রোনালদো  » «   এসএসসি পরীক্ষা শুরু ১ ফেব্রুয়ারি  » «   মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে হবে ছাত্রলীগের স্কুল কমিটি  » «   এগিয়ে থাকুন সৃজনশীলতায়  » «   সংসদে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী ১ বছরে সাড়ে ৩ কোটি ইয়াবা জব্দ  » «   শ্রীমঙ্গলে বড় ভাইয়ের হাতে ছোট ভাই খুন  » «   দখলমুক্ত হচ্ছে খাল ও নদী  » «   কুমিল্লায় হানিফ‘আ’লীগকে হুংকার দিয়ে লাভ নেই’  » «   কমলগঞ্জে প্রতিহিংসায় বিনষ্ট কৃষকের শিম বাগান  » «   অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাৎ সহ নানা অভিযোগ  » «  

কে এই শুভাশিষ রায় চৌধুরী?



খেলাধুলা ডেস্ক::শুভাশিষ রায় চৌধুরী। বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য। জন্মগ্রহণ করেন ১৯৮৮ সালের ২৯ নভেম্বর। ঘরোয়া ক্রিকেটে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড একাডেমি, রংপুর বিভাগ ও সিলেট সুপার স্টার্সের পক্ষে খেলছেন। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগে সিলেট বিভাগের প্রতিনিধিত্ব করছেন। শুভাশিস রায় মূলত একজন বোলার। ডানহাতে মিডিয়াম বোলিংয়ের পাশাপাশি ডানহাতে ব্যাটিং করে থাকেন।

বিখ্যাত অস্ট্রেলীয় ফাস্ট বোলার গ্লেন ম্যাকগ্রা’র বোলিং ভঙ্গীমা ও নিখুঁত লেন্থের সাথে তার বোলিংয়ের বেশ মিল রয়েছে ও তাকে আদর্শ মানেন শুভাশিস। ১৮ বছর বয়সে ২০০৬-০৭ মৌসুমে ঢাকা লীগে ক্রিকেট কোচিং স্কুলের পক্ষে অভিষেক ঘটে। শুরুতে তার বোলিং নিয়ে যথেষ্ট বেগ পেতে হয়। পপিং ক্রিজে এসে বল ছোড়ার মূহুর্তে গতি কমে যেতো। কোচ সারওয়ার ইমরান ও সাইফুল ইসলামের সহায়তায় তার এ সমস্যা দূরীভূত হয়।

ঘরোয়া ক্রিকেট দূর্দান্ত সাফল্য পেলেও সমসাময়িক অন্যান্যদের তুলনায় তাকে বেশ দেরীতে জাতীয় দলে অন্তর্ভূক্ত হতে হয়। অক্টোবর, ২০১৬ সালে সফরকারী ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্টের জন্য সাব্বির রহমান ও শফিউল ইসলামকে বিশ্রামে পাঠিয়ে মোসাদ্দেক হোসেন-সহ তাকে বাংলাদেশ দলে নেয়া হয়। কিন্তু কয়েকদিন পরই সাব্বির রহমান সুস্থ হয়ে যাবার কথা ঘোষণা করার প্রেক্ষিতে তার টেস্ট অভিষেক হয়নি।

নিউজিল্যান্ড সফরকে সামনে রেখে নভেম্বর, ২০১৬ সালে অস্ট্রেলিয়ায় স্থাপিত প্রশিক্ষণ শিবিরে বাংলাদেশের ২২-সদস্যবিশিষ্ট প্রাথমিক তালিকায় তিনিও অন্তর্ভূক্ত হন। ওই সফরে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ওডিআই সিরিজে খেলার জন্য তাকেও দলে রাখা হয়। ২৬ ডিসেম্বর ক্রাইস্টচার্চে সিরিজের প্রথম ওডিআইয়ে রুবেল হোসেন, মেহেদী হাসান ও তানভীর হায়দারের সাথে তারও খেলার কথা ছিল কিন্তু হয়নি।

অবশেষে ২৯ ডিসেম্বর, ২০১৬ তারিখে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের ২য় একদিনের আন্তর্জাতিকে অংশগ্রহণের মাধ্যমে তার এ দীর্ঘ প্রতীক্ষার অবসান ঘটে। নেলসনের স্যাক্সটন ওভালে নুরুল ইসলাম ও তানভীর হায়দারের সাথে তার এ অভিষেক পর্বটি অবশ্য সুখকর হয়নি। নির্ধারিত ১০ ওভারে এক মেইডেন নিয়ে ৪৫ রানের বিনিময়ে মিচেল স্যান্টনারকে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা’র হাতে কট দিয়ে নিজের প্রথম উইকেট তুলে নেন। এরপর ১১ নম্বরে ব্যাটিংয়ে নেমে ৯ বল খরচায় অপরাজিত ১ রান তুলেন।

চলতি বছরের ১২ জানুয়ারি তাসকিন আহমেদের সাথে তার টেস্ট অভিষেক হয়।

সম্প্রতি তিনি আলোচনায় আসেন মাশরাফি বিন মুর্তজার সাথে বাদানুবাদে জড়িয়ে। বিপিএল এর পঞ্চম আসরের ৭ম ম্যাচে চিটাগং ভাইকিংস বনাম রংপুর রাইডার্সের তখন ১৭ তম ওভার। ম্যাচে টান টান উত্তেজনা। রংপুর রাইডার্সের জয়ের জন্য প্রয়োজন ৩৮ রান। হাতে আছে ২০ বল। ব্যাটিংয়ে মাশরাফি বিন মুর্তজা আর বোলিংয়ে শুভাশিষ রয়। ওভারের চতুর্থ বলে দারুণ এক ইয়র্কার দিয়েছিলেন শুভাশিষ। মাশরাফি ঠেকালেন। ফলো থ্রুতে ফিল্ডিং করে বল থ্রো করতে উদ্যত হন শুভাশিষ। মাশরাফি হাতের ইশারায় শুভাশিষকে ফিরে যেতে বলেন বোলিং প্রান্তে।

তাতে বেশ ক্ষেপে যায় শুভাশিষ। মাশরাফির সামনে তেড়ে যান তিনি। এগিয়ে আসেন মাশরাফি ও তার ব্যাটিংয়ের সঙ্গী সোহাগ গাজী। উইকেটের মাঝে উত্তপ্ত বাক্যবিনিময় হয় দুজনের মাঝে। তাকে থামাতে এগিয়ে আসেন সতীর্থ তানভীর হায়দার ও সিকান্দার রাজা। শুভাশিষকে যখন নিয়ে যাওয়া হয় তখন প্রতিক্রিয়াহীন ছিলেন মাশরাফি। নির্লিপ্ত দৃষ্টি নিয়ে তাকিয়ে ছিলেন তিনি। যদিও সংবাদ সম্মেলেনেই এসেই মাশরাফি জানিয়েছিলেন সিরিয়াস কিছুই হয়নি।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: