মঙ্গলবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ আশ্বিন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
পর্নোগ্রাফির মামলা নিয়ে ভাবছেন না কুসুম শিকদার  » «   ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত আশরাফুল  » «   ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা সন্তান পরিচয় দিয়ে পুলিশ কনস্টেবল পদে চাকুরী  » «   মানববন্ধনে রিজভীচাল নেই: সরকারি গোডাউনে ইঁদুর খেলা করছে  » «   নতুন বিয়ে নিয়ে মুখ খুললেন ময়ূরী  » «   ‘যৌন নিপীড়ন বন্ধে বাংলাদেশ জিরো টলারেন্স নীতি নিয়েছে’  » «   মৌলভীবাজারে অং সান সুচির কুশপুত্তলিকা দাহ  » «   ইংলিশ মিডিয়ামে পড়ুয়াদের অভিভাবকের নাম অন্তর্ভুক্তি চেয়ে রিট  » «   পদ্মায় নিখোঁজ কনস্টেবলের মরদেহ ২৪ ঘন্টায় উদ্ধার হয়নি  » «   রাজধানীর পানিতে ঝুঁকিপূর্ণ জীবন  » «   উপজেলা পর্যায়ে চালু হচ্ছে ওএমএস  » «   ‘মধ্যরাতে আমাকে ঘিরে ধরে মাতালেরা, এরপর শুরু করে…’  » «   ভদ্র চালকদের জন্য পুরস্কার  » «   শাহজালালে সিগারেটসহ ৬ ভারতীয় নাগরিক আটক  » «   ৮ সন্তানকে আনতে পেরেছি আরেকজন জেলে  » «  

কুয়াকাটায় হাত পা ও গলায় রশি দিয়ে বাঁধা অজ্ঞাত এক ব্যক্তি উদ্ধার



সাইফুল ইসলাম (নুর), কলাপাড়া প্রতিনিধি:অপহরণের ১২দিন পর সাগরে হাত পা ও গলায় রশি দিয়ে বাঁধা অর্ধমৃত এক ব্যক্তিকে উদ্ধার করা হয়েছে। অচেন অবস্থায় উদ্ধার করে কুয়াকাটা ২০ শয্যা হাসপাতালে নিয়ে আসারপর জরুরী চিকিৎসায় তাকে চিকিৎসকরা আশঙ্কামূক্ত বলে জানিয়েছেন। শুক্রবার সকালে কুয়াকাটা সৈকতে মাঝিবাড়ি এলাকায় জালের খুটার সাথে আটকে থাকা ভাসমান অবস্থায় স্থানীয় লোকজন ওই ব্যক্তিকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠাায়।সূত্র জানা যায়, বরগুনা সদর উপজেলার ৯নং বালিয়াতলী ইউনিয়নের মনসাতলী গ্রামের মৃত আঃ মজিদ আকনের পুত্র পেশায় আইনজীবী সহকারী ছালেক আকন (৫৫) গত ১৬ এপ্রিল রাত ১১টার দিকে বাড়ির সংলগ্ন সড়ক থেকে অপহৃত হন। বরগুনা শহর থেকে ইজিবাইকে বাড়ি ফেরার পথে গতি রোধ করে ইজিবাইক থেকে নামিয়ে তাকে অপহরণ করা হয়। এরপর জোর করে একটি ইনজেকশন পুশ করলে অচেতন হয়ে পড়েন ছালেক আকন। হুশ ফেরার পর দেখতে পান, বরগুনার খাকদোন নদীতে একটি ট্রলারে তাকে তোলা হয়েছে এবং ওই ট্রলারের আরও তিন/চার দিন রাখা হয়।ট্রলারে থাকা সুজা নামে অপরিচিত একজনের কাছে ছালেক আকনকে হত্যার উদ্দেশ্যে আড়াই লাখ টাকা চুক্তিবদ্ধ হয় অপহরণকারীরা। এসব কথপকথন ছালেকের সামনেই করেছে অপহরণকারীরা। এরপর মূল অপহরণকারীরা চলে গেলে জনৈক সুজার কাছে ছালেক নিজের প্রাণ বাঁচাতে বহু আবেদন নিবেদন করে। এরই মধ্যে তাকে আরও একবার চেতনানাশক ইনজেকশন দেয়া হয়। এরপর থেকে কি ঘটেছে এসব তার মনে নেই বলে কুয়াকাটা ২০ শয্যা হাসপাতালে শুক্রবার দুপুরে এ বিস্তারিত জানিয়েছেন। উদ্ধারকারী কুয়াকাটা পৌরসভার কাউন্সিলর হাবিব শরীফ ও তৈয়বুর রহমান বলেন, স্থানীয় জেলেদের খবর অনুসারে অজ্ঞাত লোকটিকে হাত পা ও গলায় রশি দিয়ে বাঁধা অর্ধমৃত অবস্থায় সাগরে জালের খুটা থেকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। উদ্ধারকৃত ছালেক আকনের প্রতিবেশী সাবেক ইউপি সদস্য মোস্তফা বলেন, ছালেক মহুরী ১৬ তারিখ রাতে নিখোঁজ হওয়ার পর থেকে তার পরিবারের লোকজন বিভিন্ন জায়গা খোঁজ খবর নিয়েছেন। এ বিষয়ে বরগুনা থানায় একটি জিডি করা হয়েছে। মহিপুর থানার ওসি মিজানুর রহমান বলেন, খবর পেয়ে হাসপাতালে পুলিশ গিয়ে ছালেক আকনের জবান বন্দি গ্রহণ করা হয়েছে। অপহরণের ঘটনাটি যেহেতু অন্য জেলার। সেখানে আইনী বিষয়ে তারা পদক্ষেপ নিবেন।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: