মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
নতুন সড়ক পরিবহন আইন কার্যকরের ‘বিরোধিতায়’ ১১ জেলায় বাস চালানো বন্ধ  » «   নগরীতে ৪৫ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে পিয়াজ, ক্রেতাদের দীর্ঘ লাইন  » «   বলিভিয়ার অশান্তির নেপথ্যে ‘সাদা সোনা’, যা পরবর্তী বিশ্বের আকাঙ্ক্ষিত বস্তু  » «   আবরার হত্যা: পলাতক চারজনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি  » «   ‘অপকর্মে’ সংকুচিত দ. কোরিয়ার শ্রমবাজার  » «   ৩০০ টাকার পিয়াজ সরকারের দিনবদলের সনদ: ডাকসু ভিপি নুর  » «   অযোধ্যা রায় পুনর্বিবেচনার আবেদন করছে মুসলিমরা  » «   ভাঙছে শরিক দল সঙ্কটে ঐক্যফ্রন্ট  » «   হলি আর্টিসান হামলা: রায় ২৭ নভেম্বর  » «   চাকা ফেটেছে নভোএয়ারের, ভাগ্যগুণে বেঁচে গেলেন ৩৩ যাত্রী  » «   হাত-পা ছাড়াই মুখে ভর করে লিখে পিইসি দিচ্ছে লিতুন  » «   প্রধানমন্ত্রীকে দেয়া বিএনপির চিঠিতে আবরার হত্যার বর্ণনা  » «   ১৫০ যাত্রী নিয়ে মাঝ আকাশে বিপাকে ভারতীয় বিমান, রক্ষা করল পাকিস্তান  » «   বিমান ছাড়াও ট্রেন, ট্রাক, বাসে করে আসছে পেঁয়াজ: সিলেটে পরিকল্পনামন্ত্রী  » «   চুক্তির তথ্য জানতে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দিল বিএনপি  » «  

কুখ্যাত কিশোর গ্যাং ‘লাড়া দে’ গ্রুপের প্রধান মীমসহ ২২ সদস্য আটক



নিউজ ডেস্ক:: রোববার রাতে মোহাম্মদপুরের কুখ্যাত কিশোর গ্যাং ‘লাড়া দে’ গ্রুপের প্রধান তামিমুর রহমান মীমসহ ২২ কিশোরকে আটক করেছে পুলিশ। ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) তেজগাঁও বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) আনিসুর রহমান আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, মোহাম্মদপুর থানাধীন বিভিন্ন এলাকায় সাঁড়াশি অভিযান চালিয়ে কিশোর গ্যাংয়ে ২২ সদস্যকে আটক করা হয়েছে। তারা দীর্ঘদিন ধরে মোহাম্মদপুরের বিভিন্ন এলাকায় বিভিন্ন গ্যাং তৈরি করে বিভিন্ন ধরনের অপকর্ম চালিয়ে আসছিল। আটক ২২ জনের মধ্যে অনেকের বিরুদ্ধেই মাদক, ছিনতাইসহ একাধিক মামলা রয়েছে।

ডিসি আনিসুর রহমান বলেন, আটকদের মধ্যে আমরা আটজনকে শনাক্ত করেছি। এরা হলো- মীম, শাকিল, অভিক, ডি কে সানি, জিসান, হৃদয়, নাঈম, মানিক। এই আটজনের সবাই গ্যাং গ্রুপ ‘লারা দে’ ও ‘লেভেল হাই’ গ্যাং গ্রুপের সদস্য। তবে এদের মধ্যে ‘লাড়া দে’ গ্রুপের প্রধান তামিমুর রহমান মীম খুবই দুর্ধর্ষ। আটককৃতরা এলাকায় গ্যাং কালচারের নামে আধিপত্য বিস্তারের জন্য বিভিন্ন অপকর্মে নেতৃত্ব দিয়ে আসছিলো। তাদের বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন বলেও জানান তিনি।

গত বছরের অক্টোবরে নূরজাহান রোডের এম-২৮ নম্বর বাসায় ঢুকে প্রায় আড়াই লাখ টাকার জিনিসপত্র লুটে নেন মীম ও তার সহযোগীরা। এ ঘটনায় নূরজাহান হক নামে এক নারী ‘লাড়া দে’ গ্রুপের সদস্যদের নামে মোহাম্মদপুর থানায় মামলা করেন। এছাড়া মাস তিনেক আগে নবোদয় হাউজিং এলাকায় হেরোইন ও ইয়াবা বিক্রির সময় হাতেনাতে গ্রেপ্তার হন মীম। এ ঘটনায় আদাবর থানায় একটি মামলা হয়।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: