শনিবার, ১৭ অগাস্ট ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ২ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
২২ আগস্ট থেকে গ্রুপ চ্যাট বন্ধ করে দিচ্ছে ফেসবুক  » «   রাজনীতিতে আসছেন প্রধানমন্ত্রী কন্যা পুতুল?  » «   সৌদিতে সড়ক দুর্ঘটনায় বাংলাদেশি হাজী নিহত, আহত ১৭  » «   ফের পাক-ভারত সীমান্তে গোলাগুলি  » «   গভীর রাতে স্ত্রীকে মেডিকেলে নেয়ার ভয়াবহ বর্ণনা দিলেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট  » «   মিরপুরে বস্তিতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় পুড়েছে ৬০০ ঘর, ধ্বংসস্তুপে চলছে অনুসন্ধান  » «   বেফাঁস মন্তব্যে ফাঁসলেন জাকির নায়েক, হারাচ্ছেন নাগরিকত্ব  » «   কাশ্মীরে খুলছে স্কুল-কলেজ, তুলে নেওয়া হচ্ছে সব ধরনের নিষেধাজ্ঞা  » «   কাশ্মীর সঙ্কট নিয়ে নিরাপত্তা পরিষদের রুদ্ধদ্বার বৈঠক সম্পন্ন, নাখোশ ভারত  » «   শিক্ষামন্ত্রীর স্বামীকে দেখতে গেলেন প্রধানমন্ত্রী  » «   চীনে টাইফুন লেকিমার আঘাত: নিহত ২৮, ঘরছাড়া ১০ লাখ  » «   কেমন হবে এবার কাশ্মিরীদের ঈদ?  » «   কেন ঈদ যাত্রায় ভোগান্তি, কারণ বললেন সেতুমন্ত্রী  » «   কংগ্রেসের অন্তর্বর্তীকালীন সভাপতি সোনিয়া গান্ধী  » «   সড়ক-রেল-নৌ: সব যাত্রা পথেই ভোগান্তি  » «  

কুখ্যাত কিশোর গ্যাং ‘লাড়া দে’ গ্রুপের প্রধান মীমসহ ২২ সদস্য আটক



নিউজ ডেস্ক:: রোববার রাতে মোহাম্মদপুরের কুখ্যাত কিশোর গ্যাং ‘লাড়া দে’ গ্রুপের প্রধান তামিমুর রহমান মীমসহ ২২ কিশোরকে আটক করেছে পুলিশ। ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) তেজগাঁও বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) আনিসুর রহমান আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, মোহাম্মদপুর থানাধীন বিভিন্ন এলাকায় সাঁড়াশি অভিযান চালিয়ে কিশোর গ্যাংয়ে ২২ সদস্যকে আটক করা হয়েছে। তারা দীর্ঘদিন ধরে মোহাম্মদপুরের বিভিন্ন এলাকায় বিভিন্ন গ্যাং তৈরি করে বিভিন্ন ধরনের অপকর্ম চালিয়ে আসছিল। আটক ২২ জনের মধ্যে অনেকের বিরুদ্ধেই মাদক, ছিনতাইসহ একাধিক মামলা রয়েছে।

ডিসি আনিসুর রহমান বলেন, আটকদের মধ্যে আমরা আটজনকে শনাক্ত করেছি। এরা হলো- মীম, শাকিল, অভিক, ডি কে সানি, জিসান, হৃদয়, নাঈম, মানিক। এই আটজনের সবাই গ্যাং গ্রুপ ‘লারা দে’ ও ‘লেভেল হাই’ গ্যাং গ্রুপের সদস্য। তবে এদের মধ্যে ‘লাড়া দে’ গ্রুপের প্রধান তামিমুর রহমান মীম খুবই দুর্ধর্ষ। আটককৃতরা এলাকায় গ্যাং কালচারের নামে আধিপত্য বিস্তারের জন্য বিভিন্ন অপকর্মে নেতৃত্ব দিয়ে আসছিলো। তাদের বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন বলেও জানান তিনি।

গত বছরের অক্টোবরে নূরজাহান রোডের এম-২৮ নম্বর বাসায় ঢুকে প্রায় আড়াই লাখ টাকার জিনিসপত্র লুটে নেন মীম ও তার সহযোগীরা। এ ঘটনায় নূরজাহান হক নামে এক নারী ‘লাড়া দে’ গ্রুপের সদস্যদের নামে মোহাম্মদপুর থানায় মামলা করেন। এছাড়া মাস তিনেক আগে নবোদয় হাউজিং এলাকায় হেরোইন ও ইয়াবা বিক্রির সময় হাতেনাতে গ্রেপ্তার হন মীম। এ ঘটনায় আদাবর থানায় একটি মামলা হয়।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: