মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ১০ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
অবশেষে বাড়ছে সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়স  » «   টানা দুই সংসদ নির্বাচনে অংশ না নিলে ঝুঁকিতে পড়বে নিবন্ধন: ইসি  » «   সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়াই করুন: বিশ্বনেতাদের প্রধানমন্ত্রী  » «   আসামের নাগরিক তালিকা সংশোধন শুরু, চলবে দুই মাস  » «   শিক্ষার উন্নয়নে মুনাফার মানসিকতা ত্যাগের আহ্বান শেখ হাসিনার  » «   ভারতে ‘গণেশ’ বিসর্জন দিতে গিয়ে ১৮ জনের মৃত্যু  » «   পাকিস্তানের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নিতে চান ভারতীয় সেনাপ্রধান  » «   প্রধানমন্ত্রীর ফ্লাইটের ক্রুর মাদক সেবন  » «   কাশ্মীরে বিদ্রোহীদের টার্গেট এখন পুলিশ  » «   রোহিঙ্গাদের জন্য ১৩শ কোটি টাকার মার্কিন সহায়তার ঘোষণা  » «   ট্রাক চাপায় অটোরিকশার চালকসহ নিহত ৫  » «   দুর্নীতির প্রমাণ পেলেই সিনহার বিরুদ্ধে মামলা হবে: দুদক চেয়ারম্যান  » «   মানব পাচারের ঝুঁকি বেড়েই চলেছে: জাতিসংঘে প্রতিমন্ত্রী  » «   আরপিও সংশোধন: সরকারের দিকে তাকিয়ে ইসি  » «   রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে প্রধানমন্ত্রীর ৩ প্রস্তাব  » «  

কুকুর-বিড়ালের মাংস খাওয়া বন্ধ করতে চায় ভিয়েতনাম



আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: ভিয়েতনামের রাজধানী হানয়তে কুকুর এবং বিড়ালের মাংস খাওয়া বন্ধ করতে শহরটির নাগরিদকের সরকারের পক্ষ থেকে আহবান জানানো হয়েছে। সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে যে কুকুরের মাংস খেলে জলাতঙ্ক রোগ ছড়াতে পারে এবং শহরটির সুনাম নষ্ট হতে পারে। এছাড়াও প্রাণীদের হিংস্র ভাবে হত্যা বন্ধে সরকারের পক্ষ থেকে এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানানো হয়েছে। খবর বিবিসির।

হানয় পিপলস কমিটি নামে একটি সংস্থা জানায়, কুকুরের মাংস খাওয়ার রীতি আধুনিক এবং সভ্য রাজধানীর ছবিকে বিবর্ণ করে দিতে পারে। শহরটির সরকারি অধিদপ্তর থেকে বলা হয় কুকুরের মাংস খেলে জলাতঙ্কের মত রোগ ছড়াতে পারে। হানয়ের প্রায় ২ হাজারের বেশি দোকান এখনও কুকুর এবং বিড়ালের মাংস বিক্রি করে। হানয় পিপলস কমিটি আরও বলছে, প্রাণীদের হিংস্র ভাবে হত্যা করা বন্ধে এই উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

পরিসংখ্যান অনুযায়ী, হানয়তে প্রায় ৪৯ হাজার কুকুর এবং বিড়াল রয়েছে যার বেশিরভাগ পোষা। এদিকে হানয়ের সাধারণ মানুষ সরকারের এইরকম আহবানে সাড়া দিয়েছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও অনেকে এর পক্ষে তাদের মত দিচ্ছে । কিন্তু অনেকেই বলছে দীর্ঘদিন ধরে চলে আসা এই খাদ্যাভ্যাস বন্ধ করা সরকারের জন্য কঠিন হবে।

ড্যাং কুয়াং নামের একজন ফেসবুকে লেখেন, এটা সম্পূর্ণভাবে নিষেধ করা উচিত নয়। এতে অনেকের স্বাধীনতা হরণ করা হবে। সরকার কুকুর বা বিড়ালের মাংসে অতিরিক্ত কর বসাতে পারে অথবা কোন নির্দিষ্ট স্থানে বিক্রির অনুমতি দিতে পারে।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: