সোমবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
নির্বাচনে রোহিঙ্গাদের সম্পৃক্ততা প্রতিরোধে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে ইসির নির্দেশনা  » «   চিকিৎসা বিষয়ে খালেদার রিটের আদেশ আজ  » «   তারেক রহমান মনোনয়ন প্রত্যাশীদের কাছে যা জানতে চাচ্ছেন  » «   চ্যারিটেবল মামলায় দণ্ডের বিরুদ্ধে খালেদার আপিল  » «   সিরিয়ায় মার্কিন বিমান হামলা; শিশু ও নারীসহ নিহত ৪৩  » «   থার্টি ফার্স্ট নাইট উদযাপনে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নিষেধাজ্ঞা  » «   দু’দিনের মধ্যেই খাশোগি হত্যার পরিপূর্ণ তদন্ত রিপোর্ট : ট্রাম্প  » «   বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার নিচ্ছেন তারেক  » «   বাড়িতে বাবার লাশ, পিএসসি পরীক্ষা দিতে গেল মেয়ে  » «   প্রবাসী স্ত্রীকে লাইভে রেখে সিলেটের স্বামীর আত্মহত্যা!  » «   খাশোগি হত্যা: যুক্তরাষ্ট্র-সৌদির নীল নকশা ও তুরস্কের উদ্দেশ্য  » «   দুই নম্বরি কেন ১০ নম্বরি হলেও ঐক্যফ্রন্ট নির্বাচনে থাকবে: ড. কামাল  » «   বোরকার বিরুদ্ধে সৌদি নারীদের অভিনব প্রতিবাদ  » «   আজ থেকে শুরু হচ্ছে প্রাথমিক ও ইবতেদায়ী সমাপনী পরীক্ষা  » «   সিডরে নিখোঁজ শহিদুল বাড়ি ফিরলেন ১১ বছর পর!  » «  

কুকুর-বিড়ালের মাংস খাওয়া বন্ধ করতে চায় ভিয়েতনাম



আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: ভিয়েতনামের রাজধানী হানয়তে কুকুর এবং বিড়ালের মাংস খাওয়া বন্ধ করতে শহরটির নাগরিদকের সরকারের পক্ষ থেকে আহবান জানানো হয়েছে। সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে যে কুকুরের মাংস খেলে জলাতঙ্ক রোগ ছড়াতে পারে এবং শহরটির সুনাম নষ্ট হতে পারে। এছাড়াও প্রাণীদের হিংস্র ভাবে হত্যা বন্ধে সরকারের পক্ষ থেকে এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানানো হয়েছে। খবর বিবিসির।

হানয় পিপলস কমিটি নামে একটি সংস্থা জানায়, কুকুরের মাংস খাওয়ার রীতি আধুনিক এবং সভ্য রাজধানীর ছবিকে বিবর্ণ করে দিতে পারে। শহরটির সরকারি অধিদপ্তর থেকে বলা হয় কুকুরের মাংস খেলে জলাতঙ্কের মত রোগ ছড়াতে পারে। হানয়ের প্রায় ২ হাজারের বেশি দোকান এখনও কুকুর এবং বিড়ালের মাংস বিক্রি করে। হানয় পিপলস কমিটি আরও বলছে, প্রাণীদের হিংস্র ভাবে হত্যা করা বন্ধে এই উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

পরিসংখ্যান অনুযায়ী, হানয়তে প্রায় ৪৯ হাজার কুকুর এবং বিড়াল রয়েছে যার বেশিরভাগ পোষা। এদিকে হানয়ের সাধারণ মানুষ সরকারের এইরকম আহবানে সাড়া দিয়েছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও অনেকে এর পক্ষে তাদের মত দিচ্ছে । কিন্তু অনেকেই বলছে দীর্ঘদিন ধরে চলে আসা এই খাদ্যাভ্যাস বন্ধ করা সরকারের জন্য কঠিন হবে।

ড্যাং কুয়াং নামের একজন ফেসবুকে লেখেন, এটা সম্পূর্ণভাবে নিষেধ করা উচিত নয়। এতে অনেকের স্বাধীনতা হরণ করা হবে। সরকার কুকুর বা বিড়ালের মাংসে অতিরিক্ত কর বসাতে পারে অথবা কোন নির্দিষ্ট স্থানে বিক্রির অনুমতি দিতে পারে।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: