রবিবার, ১৬ জুন ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ২ আষাঢ় ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
বিকল্প কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা না থাকায় ভালো নেই সুনামগঞ্জের হাওরাঞ্চলের মানুষ  » «   সীমান্তে বাংলাদেশি হত্যা ‘অনাকাঙ্ক্ষিত মৃত্যু’: বিএসএফ মহাপরিচালক  » «   সর্বোচ্চ চেষ্টা’ করেও ওসি মোয়াজ্জেমকে ধরতে পারছে না পুলিশ  » «   পৃথিবীর ইতিহাসে সর্বোচ্চ তাপমাত্রার রেকর্ড কুয়েতে  » «   রোহিঙ্গা সংকট সমাধান না হলে অস্থিতিশীল হবে এশিয়া: রাষ্ট্রপতি  » «   অবশেষে ইমরান-মোদির সৌজন্য সাক্ষাৎ  » «   এমপিও পাবেন মাদরাসার সাড়ে ২১ হাজার শিক্ষক  » «   বাজেট সমালোচকদের যে গল্প শোনালেন প্রধানমন্ত্রী  » «   সুনামগঞ্জে পরিবহন সেক্টরে নৈরাজ্য ঠেকাতে প্রতিবাদ  » «   পশ্চিমবঙ্গে থাকতে হলে বাংলায় কথা বলতে হবে: মমতা  » «   ইকোসকে বিপুল ভোটে জয় পেল বাংলাদেশ  » «   মোবাইলে ১০০ টাকার কথা বললে ২৭ টাকা কেটে নেবে সরকার  » «   সাক্ষ্য দিতে চাওয়ায় প্রাণটাই কেড়ে নিল আসামিরা  » «   পশ্চিমবঙ্গকে বাংলাদেশ নয়; গুজরাট বানানো ভাল : দিলীপ ঘোষ  » «   বাজেটের প্রভাব: দাম বাড়বে যেসব জিনিসের  » «  

কুকুরকে খাওয়ানোর দায়ে জরিমানা সাড়ে ৪ লাখ টাকা!



আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: ঘটনাটি মুম্বাই শহরের নিসর্গ হ্যাভেন সোসাইটি নামের একটি আবাসিক এলাকার। আবাসিকের ভেতরে থাকেন একজন পশুপ্রেমী। তিনি একদিন রাস্তার দুটি পাগলা কুকুরকে বাড়িতে নিয়ে এসে খাবার খেতে দেন। কিন্তু এই কারণে আবাসিক এলাকার কর্তৃপক্ষ তাকে প্রায় সাড়ে ৪ লাখ টাকা জরিমানা করেছে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে ঘটনাটি ঘটেছে মুম্বাইয়ের কান্দিভালি নামক স্থানে। এমন ঘটনার পর আবাসিক এলাকার সব সদস্য সভা করে তাকে জরিমানা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

নিসর্গ হ্যাভেন সোসাইটির চেয়ারম্যান মিতেশ বোরা বার্তা সংস্থা এএনআইয়ে বলেন, ‘আবাসিক এলাকার ভেতরে পাগলা কুকুরকে এনে খাবার খাওয়ানোর কারণে সোসাইটির ৯৮ শতাংশ সদস্য ওই ব্যক্তিকে বাধ্যতামূলক জরিমানা করার প্রস্তাব পাশ করেছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘সোসাইটির চেয়ারম্যান হিসেবে এটা আমার দায়িত্ব যে সংখ্যাগরিষ্ঠ সদস্যের সমর্থনের ভিত্তিতে তৈরি নিয়ম অনুসরণ করা। অনেক সদস্য এ নিয়ে অভিযোগ জানানোর পরই মূলত এমন সিদ্ধান্ত নিয়ে প্রস্তাব পাস হয়েছে।’

সোসাইটির চেয়ারম্যান মিতেশ বোরা জানান, ‘আবাসিক এলাকার বাইরে কেউ যদি কুকুরকে খাবার খাওয়ায় তাহলে তো আমাদের কোনো সমস্যা নেই। পশুপ্রাণীর প্রতি আমাদেরও ভালোবাসা আছে। এটা পশু অধিকারের বিরুদ্ধে কোনো পদক্ষেপ নয়। তাছাড়া এটা মানবাধিকারের প্রশ্নও বটে।’

জরিমানার শিকার নারী নেহা দাতওয়ানি বলেন, ‘আমাকে গত মার্চ থেকে প্রায় সাড়ে চার লাখ টাকার এই জরিমানা দিয়ে আসতে হচ্ছে।তারমধ্যে কুকুরকে খাওয়ানোর জন্য প্রতিমাসে ৯০ হাজার টাকার বেশি।তারা আমাকে প্রতিদিন ৩ হাজার টাকা করে জরিমানা ধরেছে কুকুরকে খাওয়ানোর জন্য।’

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: