শনিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ১ পৌষ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
চমক থাকছে আওয়ামী লীগের নির্বাচনী ইশতেহারে  » «   দুই-তিন দিনের মধ্যে ইসিতে যাবে বিএনপি  » «   কাদের সিদ্দিকী রাজাকার, বদমাইশ : মির্জা আজম  » «   নির্বাচনের ৭ দিন আগে ব্যালট পৌঁছে যাবে: ইসি সচিব  » «   রাষ্ট্রপতির সঙ্গে দেখা করতে চান ড. কামাল  » «   যুক্তরাষ্ট্র-অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ড কানাডায় বোমা হামলার হুমকি  » «   ক্ষমা চাইলেন ড. কামাল  » «   মন্দিরের প্রসাদ খেয়ে ১১ জনের মৃত্যু, অসুস্থ ৮১  » «   ২৪ ডিসেম্বর মাঠে নামছে সেনাবাহিনী, থাকবেন ম্যাজিস্ট্রেটও  » «   ইন্টারনেটে ধীর গতি ও মোবাইল ব্যাংকিং বন্ধ চায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী  » «   প্রার্থিতা নিয়ে শুনানি: আদালতের প্রতি খালেদা জিয়ার আইনজীবীদের অনাস্থা  » «   আওয়ামী লীগ ১৬৮ থেকে ২২০ আসনে জিতবে: জয়  » «   সিলেট-২ আসনে বিএনপির প্রার্থী তাহসিনা রুশদীর লুনার মনোনয়ন স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট  » «   আম্বানি কন্যার বিয়েতে নাচলেন হিলারি ক্লিনটন [ভিডিও ]  » «   সিলেট-১ আসনে ধানের শীষের প্রচারণার একসঙ্গে মুক্তাদির-আরিফ  » «  

কিবরিয়া হত্যা মামলায় ৭ আসামীর হাজিরা



10. kibria hottha mamlaহবিগঞ্জ সংবাদদাতা::
সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এএমএস কিবরিয়া হত্যা মামলায় ৭ আসামী হবিগঞ্জে আদালতে হাজিরা দিয়েছেন। বৃহস্পতিবার মামলার নির্ধারিত তারিখে ইতিপূর্বে উচ্চ আদালত থেকে জামিনপ্রাপ্ত ওই আসামীরা সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট রোকেয়া আক্তারের আদালতে হাজির হন। তবে কারাগারে আটক সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবর, সিলেট সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী ও হবিগঞ্জের মেয়র জি কে গউছকে এ দিন আদালতে হাজির করা হয়নি। আগামী ২৫ জানুয়ারী মামলার পরবর্তী তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে।

২০০৫ সালের ২৭ জানুয়ারী বিকেলে সদর উপজেলার বৈদ্যের বাজারে স্থানীয় আওয়ামী লীগ আয়োজিত ঈদপূণর্মিলনী অনুষ্ঠানে যোগ দেন সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এএমএস কিবরিয়া। স্থানীয় প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে আয়োজিত জনসভা শেষে সন্ধ্যায় ফেরার সময় দুর্বৃত্তদের ছোড়া গ্রেনেডে গুরুতর আহত হন শাহ এএমএস কিবরিয়া। পরে ঢাকায় নেয়ার পথে তিনি মারা যান। এ ঘটনায় নিহত হন তার ভাতিজা শাহ মঞ্জুর হুদাসহ আরও স্থানীয় ৩ আওয়ামী লীগ কর্মী। হামলায় আহত হন জেলা আওয়ামী লীগের বর্তমান সভাপতি এমপি অ্যাডভোকেট মো. আবু জাহিরসহ অর্ধশতাধিক নেতাকর্মী। এ ঘটনায় দায়েরী মামলার তৃতীয় দফার সম্পূরক চার্জশীটে আসামী করা হয় খালেদা জিয়ার সাবেক রাজনৈতিক উপদেষ্টা হারিছ চৌধুরী, সিলেটের মেয়র (বর্তমানে বরখাস্তকৃত) আরিফুল হক চৌধুরী ও হবিগঞ্জের মেয়র (বর্তমানে বরখাস্তকৃত) জি কে গউছকে। এর মধ্যে জি কে গউছ ২৮ ডিসেম্বর ও আরিফুল হক চৌধুরী হবিগঞ্জের আদালতে আত্মসমর্পন করার পর তাদেরকে কারাগারে প্রেরণ করা হয়। বর্তমানে গউছ হবিগঞ্জ কারাগারে আটক এবং আরিফুল হক চৌধুরী অসুস্থতার জন্য ঢাকায় চিকিৎসাধীন আছেন। উক্ত মামলায় জামিনে থাকা জেলা বিএনপি’র তৎকালীন সহ-সভাপতি একেএম আব্দুল কাইয়ূম, জমির আলী, জয়নাল আবেদীন মোমিন, মোঃ তাজুল ইসলাম, মোঃ শাহেদ আলী, মোঃ সেলিম আহমেদ ও আয়াত আলী গতকাল বৃহস্পতিবার আদালতে হাজির হন। এছাড়া জামিনে থাকা অপর আসামী জয়নাল আবেদীন জালাল আদালতে হাজির না হওয়ায় তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি করা হয়েছে।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: