শনিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ১ পৌষ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
চমক থাকছে আওয়ামী লীগের নির্বাচনী ইশতেহারে  » «   দুই-তিন দিনের মধ্যে ইসিতে যাবে বিএনপি  » «   কাদের সিদ্দিকী রাজাকার, বদমাইশ : মির্জা আজম  » «   নির্বাচনের ৭ দিন আগে ব্যালট পৌঁছে যাবে: ইসি সচিব  » «   রাষ্ট্রপতির সঙ্গে দেখা করতে চান ড. কামাল  » «   যুক্তরাষ্ট্র-অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ড কানাডায় বোমা হামলার হুমকি  » «   ক্ষমা চাইলেন ড. কামাল  » «   মন্দিরের প্রসাদ খেয়ে ১১ জনের মৃত্যু, অসুস্থ ৮১  » «   ২৪ ডিসেম্বর মাঠে নামছে সেনাবাহিনী, থাকবেন ম্যাজিস্ট্রেটও  » «   ইন্টারনেটে ধীর গতি ও মোবাইল ব্যাংকিং বন্ধ চায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী  » «   প্রার্থিতা নিয়ে শুনানি: আদালতের প্রতি খালেদা জিয়ার আইনজীবীদের অনাস্থা  » «   আওয়ামী লীগ ১৬৮ থেকে ২২০ আসনে জিতবে: জয়  » «   সিলেট-২ আসনে বিএনপির প্রার্থী তাহসিনা রুশদীর লুনার মনোনয়ন স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট  » «   আম্বানি কন্যার বিয়েতে নাচলেন হিলারি ক্লিনটন [ভিডিও ]  » «   সিলেট-১ আসনে ধানের শীষের প্রচারণার একসঙ্গে মুক্তাদির-আরিফ  » «  

কিং কোবরা ও কুমিরসহ ৪০০ সরীসৃপ নিয়ে ঘরবসতি



আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: কফি টেবিলে ওপর একটা আস্ত চন্দ্রবোড়া, বাগানে ঘুরে বেড়াচ্ছে ৫০ কিলোগ্রামের একটা কচ্ছপ। আর সাত ফুটের একটা কুমির গড়াগড়ি খাচ্ছে বিছানায়। দরজার সামনেও অপেক্ষায় কয়েকটা কুমির।নাহ, এটা কোনও বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনীর চলচ্চিত্র নয়। একেবারেই জলজ্যান্ত বাস্তব ঘটনা।ফ্রান্সের পশ্চিমে নান্তেস সিটিতে ৬৭ বছরের ফিলিপ গিলেটের প্রিয় বন্ধুই বলা যায় তাদের! তবে শুধু চন্দ্রবোড়াই নয়, র‌্যাটল স্নেক, ট্যারান্টুলা,

বিচিত্র প্রজাতির টিকটিকি মিলে প্রায় ৪০০টি সরীসৃপ থাকে ফিলিপের বাড়িতে।গিলেট বলেন, তার সবচেয়ে প্রিয় হল দুটি কুমির, একটি নাম এলি, অপর গেটর।চামড়ার কারখানার পাশে জলাশয় থেকে তাদের উদ্ধার করেছিলেন ফিলিপ। এ ছাড়াও বিভিন্ন জায়গা থেকে অসহায় প্রাণীদের নিয়ে এসে আশ্রয় দিয়েছেন তারই বাড়িতে।

প্রিয় গো সাপটিকে চামচ দিয়ে খাবার খাওয়াতে খাওয়াতে সংবাদ সংস্থাকে তিনি বললেন, সরীসৃপ দেখলেই মানুষ ঘৃণা করে। কিন্তু ওরা অসহায়। ওরা কারও ক্ষতি করে না স্বেচ্ছায়। ওদের জানলে, ওদের চিনলে প্রত্যেকেরই অসম্ভব ভাল লাগবে।

তার কথায় প্রতিবেশীদেরও খুব একটা আপত্তি নেই এই পোষ্যদের নিয়ে। তবে স্থানীয় দমকল দফতর কিন্তু এ বিষয়ে সতর্ক করেছেন, যাতে কোথাও আগুন লাগলে এই বাড়িতে কেউ আশ্রয় নিতে ঢুকে না পড়েন।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: