মঙ্গলবার, ২০ অগাস্ট ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
এমপি না হয়েও ল্যান্ড ক্রুজারে শুল্কমুক্ত সুবিধা পেলেন মুহিত  » «   খালেদা জিয়ার জামিনের মেয়াদ বাড়ল এক বছর  » «   নবজাতককে মুখে নিয়ে কুকুরের টানাটনি, উদ্ধার করলেন এসআই  » «   নতুন শ্রমবাজার অনুসন্ধানে উদ্যোগী হতে হবে: প্রবাসীকল্যাণমন্ত্রী  » «   জনগণের সংকট উত্তরণে নতুন নির্বাচনের বিকল্প নেই: ফখরুল  » «   পানি বণ্টনের নতুন ফর্মুলা খুঁজছে বাংলাদেশ-ভারত: জয়শঙ্কর  » «   শেখ হাসিনার ছাত্রলীগে জামায়াতি আঁচড়!  » «   অবশেষে ক্ষমা চাইলেন জাকির নায়েক  » «   অপরাধীদের শাস্তি দ্রুত নিশ্চিত না করায় ধর্ষণ বাড়ছে: হাইকোর্ট  » «   সিলেট-ঢাকা মহাসড়কে ‘স্পিড গান’  » «   কমলাপুর রেলওভার ব্রিজের ত্রুটির চিত্র তুলে ধরলেন ব্যারিস্টার সুমন  » «   জিন্দাবাজারে মিললো ২টি গোখরাসহ ৬ বিষধর সাপ  » «   কাশ্মীর ইস্যুতে আলোচনায় বসছেন ট্রাম্প- মোদী!  » «   মাত্র ১০০ মিটার দূরেই শত্রু  » «   অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্থদের পাশে থাকবে সরকার: কাদের  » «  

কাশ্মীর নিয়ে মধ্যস্থতায় আগ্রহী ট্রাম্প, ভারতের না



নিউজ ডেস্ক:: কাশ্মীর সঙ্কট সামাধানে ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে মধ্যস্থতা করার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। সোমবার ওয়াশিংটনে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সঙ্গে বৈঠকের সময় তিনি দাবি করেন, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিই তাকে সপ্তাহ দুয়েক আগে কাশ্মীর ইস্যুতে মধ্যস্থতা করার অনুরোধ করেছেন। তবে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় মার্কিন প্রেসিডেন্টের সেই দাবি নাকচ করে দিয়েছে।

সফররত পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সঙ্গে সোমবার হোয়াইট হাউসে ঘণ্টা খানেকের আলোচনা হয় প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের। পরে ওভাল অফিসে ইমরানের পাশে বসেই ট্রাম্প মধ্যস্থতার কথা তোলেন। ইমরান প্রথমে বলেন, ‘ভারতের সঙ্গে আলোচনা শুরু হওয়া দরকার।’সে কথার সূত্র ধরেই ট্রাম্প বলেন, ‘দু’সপ্তাহ আগে মোদির সঙ্গে আমার দেখা হয়েছিল। তিনি জানতে চান, আমি মধ্যস্থতা করতে রাজি কি না। আমি প্রশ্ন করি, কোন বিষয়ে? তিনি বলেন, কাশ্মীর। কারণ, বিবাদটা অনেক দিন ধরে চলছে। আমি তখন তাকে জানাই, মধ্যস্থতা করতে পারলে আমি খুশিই হব।’ এ কথা শুনে ‘থাম্বস আপ’ করে ইমরান বলেন, ‘এটা হলে ১০০ কোটি মানুষের শুভেচ্ছা আপনার সঙ্গে থাকবে।’

ইমরান খানকে ট্রাম্প বলেন, ‘এ বিষয় আমার কোনও সাহায্য লাগলে অবশ্যই জানাবেন।’ ওই বৈঠক শেষে সংবাদ সম্মেলনে ট্রাম্প আরও বলেন, ‘কাশ্মীর সম্পর্কে অনেক শুনেছি। দারুণ সুন্দর একটি জায়গা। তবে বর্তমানে শুধু গুলির আওয়াজই শোনা যায় ওখানে। পরিস্থিতি অত্যন্ত খারাপ।’

কাশ্মীর সঙ্কটকে পাকিস্তান বারবারই আন্তর্জাতিক সমস্যা বলে দেখাতে চায়। কিন্তু ভারত একে আন্তর্জাতিক সমস্যা হিসেবে দেখতে নারাজ। তারা এই সঙ্কটকে দ্বিপাক্ষিক সমস্যা বলে মনে করে। ১৯৭২ সালের শিমলা চুক্তিতে কাশ্মীরকে দ্বিপাক্ষিক বিষয় বলেই মেনে নিয়েছিল ভারত ও পাকিস্তান। সেই চুক্তি এবং লাহোর ঘোষণাপত্রই আলোচনার ভিত্তি হওয়া উচিত বলে মনে করে ভারত।

তাই ট্রাম্পের মন্তব্য নিয়ে সোমবার শোরগোল শুরু হয় দিল্লিতে। ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এ সংক্রান্ত এক বিবৃতিতে জানায়, ‘আমরা মার্কিন প্রেসিডেন্টের বক্তব্য শুনেছি। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এমন কোনও অনুরোধ মার্কিন প্রেসিডেন্টকে করেননি। ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে সব বিষয় নিয়ে দ্বিপাক্ষিকপর্যায়েই আলোচনা হবে, এটাই আমরা ধারাবাহিক ভাবে বলে এসেছি। তবে পাকিস্তানের সঙ্গে আলোচনা শুরু করার আগে সীমান্ত-সন্ত্রাস বন্ধ হওয়া দরকার।’

সূত্র: আনন্দবাজার

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: