শনিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
বিএনপির বিরুদ্ধে গায়েবি মামলার প্রমাণ নেই : আমু  » «   অংশ্রহণমূলক নির্বাচনের জন্য সহযোগিতা করতে প্রস্তুত ইইউ  » «   কমলগঞ্জে ট্রাক চাপায় তরুণী নিহত,চালক পালাতক  » «   বি. চৌধুরীর চায়ের দাওয়াতে যাচ্ছে ন্যাপ–এনডিপি  » «   নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহে জাতীয় নির্বাচনের তফসিল: ইসি সচিব  » «   ঈশ্বর, মৃত্যু-পরবর্তী জীবন ও স্বর্গ নিয়ে যা ভাবতেন স্টিফেন হকিং  » «   আইয়ুব বাচ্চুর মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শোক  » «   সাম্প্রদায়িক সম্প্রতির দৃষ্টান্ত: এক উঠোনে মসজিদ-মন্দির  » «   খাশোগি হত্যা: যুক্তরাষ্ট্রকে সাড়ে ৭ হাজার কোটি টাকা দিল সৌদি  » «   দুর্গাপূজা যেভাবে হলো হিন্দুদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব  » «   সিলেটে ফোনে কথা বলা অবস্থায় যুবকের হঠাৎ মৃত্যু  » «   ইরান কখনো পরমাণু বোমা বানাবে না: রুহানি  » «   সিলেটে সমাবেশের অনুমতি পেয়েছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট  » «   বাংলাদেশে আরো সৌদি বিনিয়োগ চান প্রধানমন্ত্রী  » «   কানাডায় প্রকাশ্যে গাঁজা বিক্রি শুরু, ক্রেতাদের ভিড়  » «  

কালো বিড়াল কী শুভ না অশুভ?



নিউজ ডেস্ক:: মানব সমাজে অনেক সংস্কার ও কুসংস্কার প্রচলিত আছে। তার মধ্যে একটি হচ্ছে কালো বিড়াল নিয়ে একটি ধারণা। অনেকেই কালো বিড়ালের রাস্তা পার হওয়াকে অশুভ মনে করে থাকেন। এই সংস্কার যে শুধু আমাদের দেশেই প্রচলিত এমন নয়। পৃথিবীর বিভিন্ন সংস্কৃতিতেই তা বিদ্যমান। যেমন জার্মানিতে রাস্তার ডান দিক থেকে বাঁ দিকে কালো বিড়ালের ছুটে যাওয়াকে অশুভ মনে করা হয়। কালো বিড়াল যদি বাম থেকে ডানে রাস্তা পার হয় তবে তা শুভ লক্ষণ বলে ধরা হয়।

পশ্চিম এবং দক্ষিণ ইউরোপের বিভিন্ন দেশেও এ জাতীয় বিশ্বাস প্রচলিত রয়েছে। ১৯ শতকের জলদস্যুরা বিশ্বাস করত, কোনও মানুষের কাছ থেকে কালো বিড়াল দূরে পালালে তা দুর্ভাগ্য দূরীভূত হওয়ার লক্ষণ। জুয়াড়িরা জুয়া খেলতে যাওয়ার পথে কালো বিড়ালের দর্শনও অশুভ বলে মনে করেন।

সাধারণভাবে মনে করা হয়, কালো বিড়াল রাস্তা পার হলে ১০ পা পিছিয়ে গিয়ে কিছুক্ষণ অপেক্ষা করে তারপর আবার সামনে এগিয়ে যাওয়া ভালো।

তবে এই সমস্ত বিশ্বাসের বৈজ্ঞানিক কোনো ভিত্তি নেই। কোনও কোনও প্রাণী আসন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগের আভাস পেয়ে থাকে- এমনটা জীববিজ্ঞানীদের একাংশ মনে করেন। কিন্তু ব্যক্তিবিশেষের দুর্ভাগ্যের সঙ্গে বিড়াল বা অন্য কোনও প্রাণীরই কোনও যোগ রয়েছে বলে বিশ্বাস করার কোনও যুক্তিসঙ্গত কারণ নেই।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: