সোমবার, ১৮ জুন ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
ছাত্রীর সঙ্গে শিক্ষকের কুকীর্তি ফাঁস!  » «   মায়ের পছন্দ ব্রাজিল, সমর্থক জয়ও  » «   পুলিশ কমিশনার‘ঈদগাহে ছাতা ও জায়নামাজ ছাড়া অন্য কিছু নয়’  » «   ‘আমিও প্রেগনেন্ট হয়েছি, অনেকবার অ্যাবরশনও করিয়েছি’  » «   গুগল পেজ ইরর দেখায় কেন?  » «   রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, সিইসি কে কোথায় ঈদ করছেন  » «   ইসি সচিব : তিন সিটি নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা  » «   বিপজ্জনক রূপ নিয়েছে মনু ও ধলাই  » «   বিশ্বকাপের একদিন আগে বরখাস্ত স্পেন কোচ!  » «   ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কে ৭ কি.মি. যানজট  » «   শারীরিক সম্পর্ক নিয়ে আলিয়ার সোজা কথা!  » «   যে কারণে ইউনাইটেড হাসপাতালে যেতে চান খালেদা  » «   খালেদা চিকিৎসা চান নাকি রাজনীতি করছেন : সেতুমন্ত্রী  » «   যানজটের কথা শুনিনি, কেউ অভিযোগও করেননি  » «   ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান ‘বকশিসের নামে নীরব চাঁদাবাজি নেই’  » «  

কাতারের সঙ্গে সৌদির সংলাপ স্থগিত



সৌদি আরবের যুবরাজ এবং কাতারের নেতার মধ্যে টেলিফোনে কথাবার্তার কিছু সময় পরই ‘প্রকৃত ঘটনা বিকৃত করার’ অভিযোগ এনে সৌদি আরব বলেছে, তারা কাতারের সাথে সংলাপ স্থগিত করে দিয়েছে।

সন্ত্রাসবাদে সমর্থন জোগানোর অভিযোগ এনে সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত, বাহরাইন ও মিশর -এই চারটি দেশ কাতারের সাথে সম্পর্ক ছিন্ন করে, যদিও এ অভিযোগ কাতার বরাবরই অস্বীকার করছে। এ প্রেক্ষাপটেই কাতারের আমির ও সৌদি আরবের ক্রাউন প্রিন্সের সাথে টেলিফোনে কথা বলার খবর বেশ সাড়া ফেলে দেয়।

কিন্তু এরপরই সৌদি আরব অভিযোগ করে, কাতার এই টেলিফোন সংলাপের খবর বিকৃত করেছে এবং সে জন্য তারা সংকট সমাধানের আলোচনা বন্ধ করে দিচ্ছে।

৮ সেপ্টেম্বর শুক্রবার সৌদি আরবের যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান টেলিফোনে কাতারের আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আল থানির সঙ্গে চলমান বিরোধ নিয়ে আলোচনা করেন বলে উভয় দেশের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে জানানো হয়েছিল।

সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থার (এসপিএ) প্রতিবেদনে বলা হয়, ‘ফোনে কথা বলার সময় কাতারের আমির সংলাপে বসার এবং সবার স্বার্থ নিশ্চিত করার জন্য চার দেশের দাবি নিয়ে আলোচনা করতে আগ্রহ ব্যক্ত করেছেন।’

সংযুক্ত আরব আমিরাত, বাহরাইন ও মিশরের সঙ্গে সৌদি আরবের ‘বুঝ-পরামর্শের পর’ এ বিষয়ে বিস্তারিত জানানো হবে বলে প্রতিবেদনে বলা হয়।

গত ৫ জুন সৌদি আরব, আরব আমিরাত, মিশর ও বাহরাইন কাতারের সঙ্গে কূটনৈতিক ও বাণিজ্যিক সম্পর্ক ছিন্ন করে। এরপর বিশ্বের সবচেয়ে বড় তরল জ্বালানি রপ্তানিকারক দেশ কাতারের সঙ্গে আকাশ ও সমুদ্র পথে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয় ওই চার দেশ।

পর্যবেক্ষকরা বলছেন, সমস্যাটা মূলত প্রটোকল বা আনুষ্ঠানিক রীতিনীতি নিয়ে হয়েছে। দোহা থেকেই যে প্রথম ফোন করা হয়েছিল, কাতারের সংবাদমাধ্যম সেটা স্পষ্ট না করায় সৌদি আরব ক্রুদ্ধ হয়।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: