শনিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ আশ্বিন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
তথ্য প্রযুক্তিতে বাংলাদেশ অনেক দূর এগিয়ে গেছে: ড. জাফর ইকবাল  » «   উ. কোরিয়ায় কম্পন, ফের পারমাণবিক পরীক্ষা!  » «   পানিতে ডুবে স্বামী পরিত্যক্তার মৃত্যু  » «   দেবের আচরণে রোশানের হতাশা  » «   পুলিশের খোয়া যাওয়া অস্ত্র উদ্ধার  » «   মহানন্দায় বালুভর্তি ট্রলার ডুবি, নিখোঁজ ১  » «   বিএনপির সঙ্গে রাজনৈতিক সমঝোতা নয় : প্রধানমন্ত্রী  » «   কুমিল্লা-৫ আসনে সমান অবস্থানে আ’লীগ বিএনপি, জামায়াতের ভোটব্যাংক  » «   পাক ব্যাংকে দুর্নীতি, অভিযুক্ত ৭ বাংলাদেশি  » «   ‘বাবার সঙ্গে হানিপ্রীতকে নগ্ন অবস্থায় দেখেছি’  » «   ব্রিফকেসের ভেতর যুবকের লাশ!  » «   ছুটি নিয়ে রাজনৈতিক প্রচারণায় সাকিব: অর্থায়নে রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়  » «   ভয়ংকর ভাবে ছড়িয়ে পড়ছে ‘সুপার ম্যালেরিয়া’  » «   আমেরিকান প্রবাসী পরিবার কর্তৃক রোহিঙ্গাদের ত্রাণ সহায়তা  » «   নবীগঞ্জে ভয়াবহ অগ্নিকান্ড, কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি  » «  

কাতারের সঙ্গে সৌদির সংলাপ স্থগিত



সৌদি আরবের যুবরাজ এবং কাতারের নেতার মধ্যে টেলিফোনে কথাবার্তার কিছু সময় পরই ‘প্রকৃত ঘটনা বিকৃত করার’ অভিযোগ এনে সৌদি আরব বলেছে, তারা কাতারের সাথে সংলাপ স্থগিত করে দিয়েছে।

সন্ত্রাসবাদে সমর্থন জোগানোর অভিযোগ এনে সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত, বাহরাইন ও মিশর -এই চারটি দেশ কাতারের সাথে সম্পর্ক ছিন্ন করে, যদিও এ অভিযোগ কাতার বরাবরই অস্বীকার করছে। এ প্রেক্ষাপটেই কাতারের আমির ও সৌদি আরবের ক্রাউন প্রিন্সের সাথে টেলিফোনে কথা বলার খবর বেশ সাড়া ফেলে দেয়।

কিন্তু এরপরই সৌদি আরব অভিযোগ করে, কাতার এই টেলিফোন সংলাপের খবর বিকৃত করেছে এবং সে জন্য তারা সংকট সমাধানের আলোচনা বন্ধ করে দিচ্ছে।

৮ সেপ্টেম্বর শুক্রবার সৌদি আরবের যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান টেলিফোনে কাতারের আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আল থানির সঙ্গে চলমান বিরোধ নিয়ে আলোচনা করেন বলে উভয় দেশের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে জানানো হয়েছিল।

সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থার (এসপিএ) প্রতিবেদনে বলা হয়, ‘ফোনে কথা বলার সময় কাতারের আমির সংলাপে বসার এবং সবার স্বার্থ নিশ্চিত করার জন্য চার দেশের দাবি নিয়ে আলোচনা করতে আগ্রহ ব্যক্ত করেছেন।’

সংযুক্ত আরব আমিরাত, বাহরাইন ও মিশরের সঙ্গে সৌদি আরবের ‘বুঝ-পরামর্শের পর’ এ বিষয়ে বিস্তারিত জানানো হবে বলে প্রতিবেদনে বলা হয়।

গত ৫ জুন সৌদি আরব, আরব আমিরাত, মিশর ও বাহরাইন কাতারের সঙ্গে কূটনৈতিক ও বাণিজ্যিক সম্পর্ক ছিন্ন করে। এরপর বিশ্বের সবচেয়ে বড় তরল জ্বালানি রপ্তানিকারক দেশ কাতারের সঙ্গে আকাশ ও সমুদ্র পথে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয় ওই চার দেশ।

পর্যবেক্ষকরা বলছেন, সমস্যাটা মূলত প্রটোকল বা আনুষ্ঠানিক রীতিনীতি নিয়ে হয়েছে। দোহা থেকেই যে প্রথম ফোন করা হয়েছিল, কাতারের সংবাদমাধ্যম সেটা স্পষ্ট না করায় সৌদি আরব ক্রুদ্ধ হয়।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: