মঙ্গলবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ আশ্বিন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
পর্নোগ্রাফির মামলা নিয়ে ভাবছেন না কুসুম শিকদার  » «   ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত আশরাফুল  » «   ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা সন্তান পরিচয় দিয়ে পুলিশ কনস্টেবল পদে চাকুরী  » «   মানববন্ধনে রিজভীচাল নেই: সরকারি গোডাউনে ইঁদুর খেলা করছে  » «   নতুন বিয়ে নিয়ে মুখ খুললেন ময়ূরী  » «   ‘যৌন নিপীড়ন বন্ধে বাংলাদেশ জিরো টলারেন্স নীতি নিয়েছে’  » «   মৌলভীবাজারে অং সান সুচির কুশপুত্তলিকা দাহ  » «   ইংলিশ মিডিয়ামে পড়ুয়াদের অভিভাবকের নাম অন্তর্ভুক্তি চেয়ে রিট  » «   পদ্মায় নিখোঁজ কনস্টেবলের মরদেহ ২৪ ঘন্টায় উদ্ধার হয়নি  » «   রাজধানীর পানিতে ঝুঁকিপূর্ণ জীবন  » «   উপজেলা পর্যায়ে চালু হচ্ছে ওএমএস  » «   ‘মধ্যরাতে আমাকে ঘিরে ধরে মাতালেরা, এরপর শুরু করে…’  » «   ভদ্র চালকদের জন্য পুরস্কার  » «   শাহজালালে সিগারেটসহ ৬ ভারতীয় নাগরিক আটক  » «   ৮ সন্তানকে আনতে পেরেছি আরেকজন জেলে  » «  

কলাপাড়ায় পাষন্ড স্বামীর অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীর শরীরে আগুন



সাইফুল ইসলাম (নুর),কলাপাড়া প্রতিনিধি:তিন মাসের অন্তঃসত্ত্বা ফাতেমার পড়নের ম্যাক্সিতে আগুন দিয়ে নৃশংসভাবে পুড়িয়ে দেয়া হয়েছে। শরীরের অধিকাংশ স্থানের চামড়া ছিলে উঠে গেছে। দ্বগ্ধ ক্ষতগুলো ধবধবে সাদাদগদগে ক্ষত হয়ে গেছে। বিভৎস দ্বগ্ধ ফাতেমা এখন নামে মাত্র বেঁচে আছে। কথা বলতে পারে না। শ্বাস নিতে অসম্ভব কষ্ট হচ্ছে। চিকিৎসক বলেছেন শরীরের ৭০ শতাংশ পুড়ে গেছে। শঙ্কাজনক অবস্থায় বৃহস্পতিবার রাতে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেবাচিমে প্রেরণ করেছেন কলাপাড়ার চিকৎসকরা। বর্তমানে চরম শঙ্কাজনক অবস্থায় রয়েছে হতভাগী এ গৃহবধূ। পাষন্ড স্বামী ছোবাহান গাজী বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা আনুমানিক সাতটায় স্ত্রী ফাতেমাকে অগ্নিদ্বগ্ধ করে মারার জন্য এমন বর্বরতা চালিয়েছে। কলাপাড়ার নাচনাপাড়া গ্রামে বসবাস ফাতেমার। পুলিশ এ বদমাশকে গ্রেফতার করেছে।স্বজনরা ও ফাতেমা জানায়, কোন কিছু বোঝার আগেই ছোবাহান গাজী ম্যাচের কাঠি জ্বালিয়ে তার পড়নের ম্যাক্সিতে আগুন লাগিয়ে দেয়। এসময় ডাক চিৎকার করলেও ফাতেমাকে রেখে সটকে পড়ে পাষন্ড স্বামী ছোবাহান। এক পর্যায়ে পড়শিরা ফাতেমার শরীরের জ্বলন্ত আগুন নেভায়। ভয়াবহ দ্বগ্ধ অবস্থায় কলাপাড়া হাসপাতালে ভর্তি করায়। চরম দারিদ্র্য সংসারে। দুই বছর তিন মাস বয়সী বড় সন্তান রূপাকে ফাতেমা তার দাদি হাসিনার কাছে রাখত। হাসিনা পৌর শহরের নতুন বাজারে থাকেন। বুধবার ওই মেয়েকে দেখতে যায় ফাতেমা। এনিয়েও রাতে ঝগড়া হয় স্বামীর সঙ্গে। কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে জ্বলন্ত সিগারেট ফাতেমার গালে চেপে ধরে। সিগারেটের ছ্যাকায় পুড়ে যায়। তখনই হুমকি দেয় পুড়িয়ে মারার।কাকড়া, ব্যাঙ ধরে জীবিকা চালাত ছোবাহান। নেশাগ্রস্ত ছিল বলে একাধিক সুত্রে জানা গেছে। এ পাষন্ডের এমন বর্বরতায় ফাতেমার এখন কী অবস্থা তা বোঝানো যাবে না। শুধু জীবন প্রদীপ নিভে যাওয়া বাকি। এতোটাই হত-দরিদ্র যে উন্নত তো দূরের কথা, কোন ধরনের চিকিৎসা ব্যয় চালানো তার পক্ষে সম্ভব নয়। কলাপাড়া থানার ওসি জিএম শাহনেওয়াজ জানান, পাষন্ড স্বামীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। মামলা হয়েছে। আদালতে তিনদিনের রিমান্ড চাওয়া হয়েছে।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: