মঙ্গলবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ আশ্বিন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
পর্নোগ্রাফির মামলা নিয়ে ভাবছেন না কুসুম শিকদার  » «   ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত আশরাফুল  » «   ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা সন্তান পরিচয় দিয়ে পুলিশ কনস্টেবল পদে চাকুরী  » «   মানববন্ধনে রিজভীচাল নেই: সরকারি গোডাউনে ইঁদুর খেলা করছে  » «   নতুন বিয়ে নিয়ে মুখ খুললেন ময়ূরী  » «   ‘যৌন নিপীড়ন বন্ধে বাংলাদেশ জিরো টলারেন্স নীতি নিয়েছে’  » «   মৌলভীবাজারে অং সান সুচির কুশপুত্তলিকা দাহ  » «   ইংলিশ মিডিয়ামে পড়ুয়াদের অভিভাবকের নাম অন্তর্ভুক্তি চেয়ে রিট  » «   পদ্মায় নিখোঁজ কনস্টেবলের মরদেহ ২৪ ঘন্টায় উদ্ধার হয়নি  » «   রাজধানীর পানিতে ঝুঁকিপূর্ণ জীবন  » «   উপজেলা পর্যায়ে চালু হচ্ছে ওএমএস  » «   ‘মধ্যরাতে আমাকে ঘিরে ধরে মাতালেরা, এরপর শুরু করে…’  » «   ভদ্র চালকদের জন্য পুরস্কার  » «   শাহজালালে সিগারেটসহ ৬ ভারতীয় নাগরিক আটক  » «   ৮ সন্তানকে আনতে পেরেছি আরেকজন জেলে  » «  

কলাপাড়ার মধুখালীর আয়রণ ব্রিজ দেবে গেছে,যে কোন সময় বিধ্বস্ত হয়ে যোগাযোগ বিচ্ছিন্নের শঙ্কায় ১৫ হাজার মানুষ



সাইফুল ইসলাম (নুর),কলাপাড়া প্রতিনিধিঃকলাপাড়া উপজেলার মিঠাগঞ্জ ইউনিয়নের মধুখালী আয়রন ব্রিজটির এক পাশ দেবে গেছে। ট্রাক বোঝাই করে ভারি মালামাল নিয়ে পার হওয়ার সময় ব্রিজটির একটি স্প্যান দেবে গেছে। দুই দিকে ফাক হয়ে গেছে মাঝের স্প্যান। এখন ব্রিজটি ধসে পড়ার শঙ্কা দেখা দিয়েছে। ফলে মানুষের যোগাযোগ বিচ্ছিন্নের শঙ্কা দেখা দিয়েছে। কুয়াকাটাগামী বিকল্প সড়কের চৌরাস্তা থেকে তেগাছিয়া যাওয়ার পধে মধুখালী লেকের উপরে ব্রিজটির অবস্থান। এক যুগ আগে আয়রণ স্ট্রাকচারের ওপর ঢালাই দিয়ে ব্রিজটি করে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতর। এমনিতেই ব্রিজটির আয়রণ স্ট্রাকচারে জং ধরে গেছে। কয়েকটি ক্রস এঙ্গেল পুরনো হয়ে গেছে। অনেক নাটবোল্ট নেই। আড়াআড়ি বীম নষ্ট হয়ে গেছে। ব্রিজটি দিয়ে ভারি মালামালবাহী কোন যানবাহন চলাচল উপযোগিতা ছিল না। কিন্তু ওই সড়কের নির্মাণ কাজ করা ঠিকাদার আক্তারুজ্জামান ভারি মাল বোঝাই করে ট্রাক ব্রিজটি পার হয়ে পশ্চিম পাড়ে যাওয়ার সময় দেবে যায়। স্থানীয় বাসীন্দা বাদশা হাওলাদার জানান, ট্রাকটি মাল নিয়ে যাওয়ার সময় তারা নিষেধ করেছিলেন। কিন্তু শোনেনি। এখন ব্রিজটি সম্পুর্ণভাবে বিধ্বস্ত হওয়ার শঙ্কায় সাধারণ মানুষ শঙ্কিত হয়ে পড়েছেন। অন্তত ১৫ হাজার মানুষ যোগাযোগ বিচ্ছিন্নের শঙ্কায় রয়েছেন। মিঠাগঞ্জ ইউপি চেয়ারম্যান কাজী হেমায়েত উদ্দিন হিরন জানান, এক যুগ আগে ২৫ লক্ষাধিক টাকা ব্যয় করে আয়রণ স্ট্রাকচারের ওপর ঢালাই দিয়ে ব্রিজটি করা হয়। ব্রিজটি ভারি যানবাহন চলাচলের উপযোগী নয়। এখন তিনি এটি দ্রুত মেরামতের জন্য সংশ্লিষ্ট এলজিইডি কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। এছাড়া ওই স্পটে একটি গার্ডার ব্রিজ নির্মাণ করাও জরুরি প্রয়োজন বলে স্থানীয়রা জানান। এলজিইডির উপজেলা প্রকৌশলী আব্দূল মান্নান জানান, তিনি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিচ্ছেন বলে জানান।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: