শনিবার, ১৮ অগাস্ট ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৩ ভাদ্র ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
চাকরি পেলেন সিলেটের অর্ধশতাধিক প্রতিবন্ধী  » «   ‘নির্বাচনকালীন সরকারের নেতৃত্ব দিবেন প্রধানমন্ত্রী’  » «   কফি আনানের মৃত্যুতে স্পিকারের শোক  » «   চীন থেকে ফিরে ঠান্ডা মাথায় সাবেক স্বামীকে খুন!  » «   মুক্তিযোদ্ধা ছাড়া সব কোটা বাতিল হচ্ছে: নাসিম  » «   জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব কফি আনান আর নেই  » «   ‘ভুলে ভরা’ ইমরানের শপথ  » «   বিএনপি নির্বাচনে গেলে আ.লীগের সঙ্গে থাকবে জাতীয় পার্টি : এরশাদ  » «   ৬ জিবি র‌্যামের নতুন ফোন আনলো স্যামসাং  » «   হবিগঞ্জে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু  » «   নাট্যাচার্য সেলিম আল-দীনের ৬৯তম জন্মজয়ন্তী আজ  » «   হকারদের দখলে নগরীর প্রধান প্রধান সড়ক,যানজটে অতিষ্ঠ নগরবাসী  » «   আজ ফাইনালে ভারতের মুখোমুখি বাংলাদেশ  » «   বিক্রেতারা গরুর দাম সহনীয় বললেও ক্রেতারা বলছেন বেশি  » «   গ্যালাক্সি নোট ৯-এর পেছনে এক কেজি সোনা, দাম অর্ধকোটি টাকা!  » «  

কর্নেল (অব.) অলি আহমদ‘জেলে খালেদার কিছু হলে দায় সরকারের’



নিউজ ডেস্ক::বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে ২০ দলীয় জোটের শরিক এলডিপির চেয়ারম্যান কর্নেল (অব.) অলি আহমদ বলেছেন, ‘তাকে যে নির্জন কারাবাসে রাখা হয়েছে এটা এক ধরনের নির্যাতন। সেখানে তিনি দিনদিন অসুস্থ হয়ে যাচ্ছেন। সুচিকিৎসাও দেয়া হচ্ছে না। এমনকি তার মৃত্যুও হতে পারে। সেজন্য সরকারকে দায়দায়িত্ব বহন করতে হবে।’

শনিবার (৯ জুন) রাজধানীর লেডিস ক্লাবে রাজনৈতিক নেতাদের সম্মানে লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এলডিপি) আয়োজিত ইফতারে তিনি এমন আশঙ্কা প্রকাশ করেন।

অলি আহমেদ বলেন, ‘প্রতিবছর আমরা বেগম খালেদা জিয়াকে নিয়ে ইফতার করি। কিন্তু এবছর তাকে মিথ্যা মামলায় কারাগারে রাখা হয়েছে। আমরা আল্লাহর কাছে দোয়া করি যেন তিনি দ্রুত মুক্তি পান। আমরা খবর পেয়েছি তিনি ‘মাইল্ড স্ট্রোকে’ আক্রান্ত। সঠিক চিকিৎসা হচ্ছে না। আমরা সরকারকে বলবো, তার সুচিকিৎসার ব্যবস্থা করুন। তাকে মুক্তি দেয়ার ব্যবস্থা করুন।’

‘বর্তমান গণবিরোধী সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলনের কোন বিকল্প নাই’ বলেও মন্তব্য করেন অলি আহমেদ। এসময় তিনি ২০ দলীয় জোটের প্রধান শরিক বিএনপি নেতাদের প্রতি গণতন্ত্র ও বেগম জিয়ার মুক্তির লক্ষে কঠোর কর্মসূচী ঘোষণা দেয়ার আহ্বানও জানান। এমনকি অতিতের মত যে কোন কর্মসূচীতে এলডিপি মাঠে অবস্থান করবে।

এলডিপি সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব শাহাদাত হোসেন সেলিমের সঞ্চালনায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন দলের মহাসচিব ড. রেদোয়ান আহমেদ।

উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায় ও ২০ দলীয় জোটের সমন্বয়কারী নজরুল ইসলাম খান, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, জামায়াতে ইসলামীর নায়েবে আমীর অধ্যাপক মিয়া গোলাম পারোওয়ার, কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সদস্য মাওলানা আবদুল হালিম, ঢাকা মহানগর দক্ষিনের আমীর নুরুল ইসলাম বুলবুল, বাংলাদেশ ন্যাপ চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গানি, মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া, এনডিপি চেয়ারম্যান খোন্দকার গোলাম মোর্ত্তজা, ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মো. মঞ্জুর হোসেন ঈসা, এনপিপি চেয়ারম্যান ড. ফরিদুজ্জামান ফরহাদ, মহাসচিব মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তফা, ইসলঅমী ঐক্যজোট চেয়ারম্যান এডভোকেট এম এ রকিব, কল্যাণ পার্টি মহাসচিব এম এম আমিনুর রহমান, খেলাফত মজলিশ সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা শফিকউদ্দিন, যুগ্ম মহাসচিব শেখ গোলাম আজগর, জাগপা সাধারণ সম্পাদক খন্দকার লুৎফর রহমান, বিএমএল মহাসচিব শেখ জুলফিকার বুলবুল চৌধুরী, বিজেপি ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব আবদুল মতিন সাউদ, ডিএল সাধারণ সম্পাদক সাইফুদ্দিন আহমেদ মনি, লেবার পার্টি (একাংশ) মহাসচিব হামদুল্লাহ আল মেহেদী, ইসলামিক পার্টি মহাসচিব এডভোকেট আবুল কাশেম, বিএনপি নির্বাহী সদস্য আবু নাসের মুহম্মদ রহমাতুল্লাহ, এডভোকেট কামরুল ইসলাম স্বজল, ন্যাপ মহানগর সদস্য সচিব মো. শহীদুননবী ডাবলু, সাবেক ছাত্রনেতা এম.এন শাওন সাদেকী প্রমুখ।

আরও উপস্থিত ছিলেন এলডিপি প্রেসিডিয়াম সদস্য ইবরামিম খলিলি, আবদুল গনি, যুগ্ম মহাসচিব তমিজউদ্দিন টিটু, সাংগঠনিক সম্পাদক এম এ বাশার প্রমুখ।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: