রবিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১ পৌষ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
লন্ডনে দ্বিতীয় জনপ্রিয় ভাষা বাংলা  » «   ঘুষের টাকাসহ হাতেনাতে সাব-রেজিস্ট্রার আটক  » «   আর কোনো হায়েনার দল বাংলার বুকে চেপে বসতে পারবে না  » «   সিলেটে মুক্তিযুদ্ধের পাণ্ডুলিপি সংগ্রহ করলেন প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী  » «   ফের জাতীয় পার্টির ঢাকা জেলা শাখার সভাপতি সালমা ইসলাম এমপি  » «   বিয়ানীবাজারে ৯৯০ পিস ইয়াবাসহ পেশাদার মাদক ব্যবসায়ী আটক  » «   আয়কর দিবস উপলক্ষে সিলেটে বর্ণাঢ্য র‌্যালি  » «   এবার শ্রীমঙ্গলে ট্রেনের ইঞ্জিনে আগুন  » «   বেলজিয়ামে মসজিদে তালা দেওয়ায় বাংলাদেশিদের প্রতিবাদ  » «   পায়রা উড়িয়ে জাতীয় পার্টির ঢাকা জেলা শাখার সম্মেলন উদ্বোধন  » «   ভারতের অর্থনীতির দুরবস্থা, জিডিপি কমে সাড়ে ৪ শতাংশ  » «   পায়রা উড়িয়ে সম্মেলন উদ্বোধন করলেন শেখ হাসিনা  » «   লন্ডন ব্রিজে আবারও সন্ত্রাসী হামলা, নিহত ২  » «   চীন থেকে মা-বাবার জন্য পেঁয়াজ নিয়ে এলেন মেয়ে  » «   রক্তে ভাসছে ইরাক, নিহত ৮২  » «  

কথাবার্তা সাবধানে বলবেন



Anisul-khaleda20160329213017 (1)নিউজ ডেস্ক: বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে সাবধানে কথাবার্তা বলার পরামর্শ দিলেন আইনমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক।

মঙ্গলবার (২৯ মার্চ) ঢাকা আইনজীবী সমিতির মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ পরামর্শ দেন।

সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম। সভাপতিত্ব করেন ঢাকা বারের সভাপতি সাইদুর রহমান মানিক ও পরিচালনা করেন সাধারণ সম্পাদক আয়ুবুর রহমান।

আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন আইনসচিব আবু সালেহ শেখ মো. জহিরুল হক, ঢাকা বারের সাবেক সভাপতি মোখলেছুর রহমান বাদল, কাজী নজীবউল্লাহ হিরু, আবু সাঈদ সাগর ও সৈয়দ রেজাউর রহমান, সাবেক সাংস্কৃতিক সম্পাদিকা সানজিদা খানম এমপি, মহানগর পিপি আব্দুল্লাহ আবু, জেলা পিপি খন্দকার আব্দুল মান্নান প্রমুখ।

সদ্য অনুষ্ঠিত বিএনপি কাউন্সিলে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ‘২০১৯ সালে শেখ হাসিনাবিহীন’ নির্বাচনের যে ঘোষণা দেন তার প্রেক্ষিতে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, আজকে যে আপনি (খালেদা জিয়া) এ কথাটা বলতে পেরেছেন, সেটাও কিন্তু শেখ হাসিনার কারণেই। তার কারণ হলো, আপনি মাইনাস হয়ে গিয়েছিলেন। শেখ হাসিনাই আপনাকে ২০০৯ সালের নির্বাচনের সুযোগ দিয়েছিলেন বলেই এ কথা আজ বলতে পেরেছেন। সুতরাং, কথাবার্তা সাবধানে বলবেন। এটা বাংলাদেশ, এটা জাতির জনক শেখ মুজিবের তৈরি করা বাংলাদেশ।

আনিসুল হক খালেদা জিয়াকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ক্ষমতায় গেলে কনস্টিটিউশন (সংবিধান) পরিবর্তন করার কথা বলেন। আপনি যদি কনস্টিটিউশন বানান করতে পারেন তবে আমি আপনার কথা শুনতে রাজি আছি।

তিনি বলেন, কনস্টিটিউশন পরিবর্তন করতে চাইলে পাকিস্তান চলে যান। সেখানে ১৫ দিন পর পর কনস্টিটিউশন পরিবর্তন হয়। আপনারা পাকিস্তান চলে গেলে বাংলাদেশের সংবিধান আর কখনোই পরিবর্তন করতে হবে না।

খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম বলেন, বিচার না করার সংস্কৃতি থেকে আমরা বের হয়ে এসেছি। খালেদা জিয়া ‘২০১৯ সালে শেখ হাসিনাবিহীন নির্বাচনের’ কথা বলে আরেকটি ২১ আগস্ট বানাতে চান। তিনি নতুন করে ষড়যন্ত্রের জাল বিস্তার করছেন। আমরা যখন সকল ষড়যন্ত্রের বেড়াজাল ডিঙ্গিয়ে সামনে এগিয়ে যাচ্ছি, সে সময় তারা নতুন করে ষড়যন্ত্র করছেন। এ ষড়যন্ত্রকারীরা যেমন বিরোধী শিবিরে অবস্থান করছেন, তেমনি সকল জায়গায় এ ষড়যন্ত্রকারীদের অবস্থান আছে।

এ ষড়যন্ত্রকারীদের বিরুদ্ধে দুর্বার প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহবান জানান তিনি।
কামরুল ইসলাম বলেন, ২৭ মার্চ স্বাধীনতা দিবসের আলোচনা সভায় প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, ষড়যন্ত্র এখনও চলছে। কাজেই আমাদেরকে হুশিয়ার থাকতে হবে।

এর আগে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক ঢাকা সিএমএম আদালতের লিফট, জেলা জজ আদালত ভবনের সামনে একটি গার্ডেন এবং মহানগর দায়রা জজ আদালতের দু’টি এসির উদ্বোধন করেন।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: