বুধবার, ১৭ জানুয়ারী ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ মাঘ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
পাবনায় সিভিল সার্জন কার্যালয়ে কমিউনিটি ক্লিনিক-এ কমর্রত কমিউনিটি হেল্থ কেয়ার প্রোভাইডারদের অবস্থান কর্মসূচী পালন  » «   আল-আকসা সংস্কারে ইসরাইলের নিষেধাজ্ঞা!  » «   ঢাবি অধিভুক্ত ৭ কলেজের মানববন্ধন ১৮ জানুয়ারি  » «   এক সপ্তাহেও সন্ধান মেলেনি নিখোঁজ পরীক্ষার্থী বাপ্পীর  » «   উজানের দেশ সমূহ হতে বাংলাদেশে মোট ৫৭ টি নদী প্রবাহিত  » «   নরসিংদীতে অটোরিকশা চালকের লাশ উদ্ধার  » «   এ দেশে কোনো দস্যুতা চলবে না : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী  » «   স্কুল ছাত্রকে পিটিয়ে হাসপাতালে পাঠালো শিক্ষক  » «   হবিগঞ্জের স্কুল পরিদর্শনে কোরিয়ার প্রতিনিধি দল  » «   সড়কে পড়ে গিয়ে যা বললেন আইভী!  » «   বেসরকারি হাসপাতালে চলছে নৈরাজ্য!  » «   নীলফামারীতে নকল সার উদ্ধার, ২০ হাজার টাকা জরিমানা  » «   সিলেটে বোলারদের দাপট  » «   ৩ লাখ ৫৯ হাজার ২৬১ সরকারি পদ শূন্য  » «   ডাকসু নির্বাচন নিয়ে হাইকোর্টের রায় বুধবার  » «  

ওসমানী হাসপাতালে পানির পাইপে ত্রুটি : দুর্ভোগে রোগীরা



ওসমানী হাসপাতালে পানির পাইপে ত্রুটি : দুর্ভোগে রোগীরা

পানির জন্য হাহাকার চলছে ওসমানী হাসপাতালে। এতে রোগী ও তাদের স্বজনরা চরম ভোগান্তির মধ্যে পড়েছেন। পানির পাম্পের পাইপে দুইটি ছিদ্র হওয়ায় পানি উঠানো যাচ্ছে না। তবে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের দাবি, পানি সরবরাহ করতে বোর্ড মিটিংয়ের মাধ্যমে মেরামতের কাজ শুরু করা হয়েছে।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, অনেক বছর আগের পুরানো পাম্প ও পাইপ দিয়ে ওসমানী হাসপাতালে পানি সরবরাহ করা হচ্ছিল। গত এক সপ্তাহ ধরে পানি সরবরাহ বিঘ্নিত হচ্ছে। সোমবার সকাল ৯টার দিকে হাসপাতালের বিভিন্ন ওয়ার্ডে পানি সরবরাহ একেবারেই বন্ধ হয়ে যায়। এতে দিনভর রোগীরা পানির দেখা পায়নি। দেখা দেয় রোগী ও স্বজনদের চরম দুর্ভোগ।

রোগীদের জন্য হাসপাতালের খাবার রান্না করাও দুরূহ হয়ে পড়েছে। পানি সংকটের কারণে অপারেশন থিয়েটারেও ডাক্তারদের দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

ছাতকের এক রোগীর অভিভাবক আকবর আলী জানান, পানির কারণে রোগীকে বাথরুমে নেয়া যাচ্ছে না। রোগীর কাপড়-চোপড় ধোয়া যাচ্ছে না। নিজেও পরিস্কার হতে পারছেন না। এমনকি নামাজের জন্য অযু পর্যন্ত করার পানি নেই। সকাল থেকে পানির সমস্যা দেখা দেয়। দুপুর হতে একেবারে পানি সরবরাহ বন্ধ হয়ে যায়। এর ফলে অনেক স্বজন রোগী নিয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন।

হাসপাতালের রোগী, স্বজন ও কর্মকর্তা জানান, পুরানো পাইপ থাকায় দুইটি ছিদ্র হয়েছে পাইপে। যে কারণে পানির পাম্প পানি উঠাতে পারছে না। সোমবার সকালে পানি উঠার পরিমাণ মারাত্মকভাবে কমে আসে। কিন্তু তখন বিষয়টিকে গুরুত্ব দেয়া হয়নি। দুপুরে পানি সরবরাহ পুরোদমে বন্ধ হয়ে অচলাবস্থা তৈরি হলে টনক নড়ে কর্তৃপক্ষের।

তাৎক্ষণিকভাবে বোর্ড মিটিং করে করণীয় ঠিক করা হয়। পরে বিকেলে মিস্ত্রি এনে পানি সরবরাহ স্বাভাবিক রাখতে কাজ শুরু করা হয়। পাইপের দুইটি ছিদ্রে কেটে নতুন পাইপের অংশ জোড়া লাগানো হয়েছে। তবে পুরো পাইপই পুরানো। বিভিন্ন স্থানে আরও ছিদ্র হতে পারে বলে মিস্ত্রিরা জানিয়েছেন।

তারা পুরোনো পাইপ সরিয়ে নতুন পাইপ লাগানোর জন্য কর্তৃপক্ষকে বলেছেন। সে অনুযায়ী, কর্তৃপক্ষ নতুন পাইপ লাগানোর কাজ শুরু করেছেন। এতে এক সপ্তাহ লাগতে পারে।

এ ব্যাপারে পানি সংকটের কথা স্বীকার করে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ডা. আবদুস ছবুর মিঞা জাগো নিউজকে বলেন, সকালে পানি সংকট ছিল। পুরানো পাইপে দুইটি ছিদ্র হওয়ায় এ সংকট দেখা দেয়।

পরে বোর্ড মিটিংয়ে করে মিস্ত্রি এনে ছিদ্র সারানো হয়েছে। এখন পানি সরবরাহ অব্যাহত আছে। তবে কম পরিমাণে। পুরো পাইপ বদলাতে আরও সপ্তাহখানেক সময় লাগবে।

 

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: